ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

জামাতি ব্লগারকূল (পেইড) যেভাবে মরিয়া হয়ে চারিত্রিক সনদ হাসিল করার জন্য নিজেরাই নিজেদের সুচরিত্রের ভান্ডার উপুড় করে দিচ্ছে তা দেখে ও পড়ে ওদের অসহায়ত্ব নিয়ে দুচার কথা লিখতে ইচ্ছা করল ।

শ্রদ্ধেয় ব্লগার আইরিন সুলতানার ব্লগের প্রতিক্রিয়ায় আরেক শ্রদ্ধেয় ব্লগার পথহারা জামাতিদের কুচরিত্র প্রমাণ করার জন্য বাঙালিদের আবার দেশপ্রেমের পরীক্ষায় বসতে বলেছেন তা হাস্যকর কিনা ভেবে দেখার বিষয় । আমি রাজাকারদের ব্লগে মন্তব্য লিখতে পছন্দ করিনা তাই পোস্ট লিখব স্থির করেছি ।

এই সময়ে তিন শ্রেণীর জামাতি ব্লগার আছে , ১) মধ্যপন্থী লাজুক জামাতি ব্লগার ২) আনপেইড জামাতি শিক্ষানবিশ ব্লগার ৩) পেইড জামাতি ব্লগার ।

প্রথমোক্ত শ্রেণীটি প্রকাশ্যে স্বীকার করতে চায়না সে জামাতি, কারণ এখনো তাদের এই অনুভূতিটি সক্রিয় যে, জামাতি হওয়া লজ্জাস্কর একটি ব্যপার । কোনও কারণে স্বাধীনতা পন্থী রাজনৈতিক দলের বিরোধিতা করতে হবে , অতএব অজান্তেই সে ঘৃণ্য জামাতি কার্যকলাপের পক্ষাবলম্বন করে বসে । এই শ্রেণীতে আরেকটি উপদল আছে যারা সুযোগ পেলেই নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা বা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের লোক বলে থাকে , কিন্তু অজানা বঞ্চনার জ্বালায় আওয়ামী লীগের নাম শুনলেই তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে এবং জ্বালা নিভানোর সুখানুভূতি পাওয়ার জন্য জামাতি (অপ) কার্যকলাপের সমর্থন করে মুখে ফ্যানা তুলে । আঃ :evil:

দ্বিতীয় শ্রেণীভুক্তটি উত্তরাধিকার সুত্রে জামাতি ধ্যান ধারণার বাহক অথবা বিত্তহীন পরিবার থেকে শহরে নতুন আসা গ্রামীণ তরুণ অর্থনৈতিক সুবিধার লোভে জামাত শিবিরের ফাঁদে আটকে পড়া একটি অসহায় গোষ্ঠী । এই শ্রেণীটির দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে ঝুকিপূর্ণ রাজনৈতিক এবং অনৈতিক কার্যকলাপে এদের ব্যবহার করা হয় ।

তৃতীয় শ্রেণীভুক্ত ব্লগার + আনরেজিস্টার্ড মন্তব্যকারি যাদের লজ্জা শরমের বালাই নেই , যেহেতু পেইড অতএব দেহপসারিণীর মানসিকতার সমগোত্রীয় । ওদের আবার লাজই কী আর শরমের ই কী । দেহপসারিণীদের সন্তান যেমন পূর্বপ্রজন্মের পেশা নিয়ে কোনরূপ হীনমন্যতায় ভোগেনা এরাও তেমনি।

এক জামাতি পেইড ব্লগার তার ব্লগে লিখেছে এভাবে …
আসুন আমরা যারা জামাতের নির্মূল চাচ্ছি তারা আদর্শগতভাবে তাদের নির্মূল করি। তাদের আসল চরিত্র জনতার সামনে তুলে ধরি তাদের ভন্ড প্রমাণ করি। তাহলেই জনগন এমনিতেই তাদের ছুরে ফেলে দেবে, তার আগে আমাদেরকেও নিজেদেরকে দেশপ্রেমিক প্রমাণ করতে হবে।

জামাতীদের আকাম কুকাম প্রমাণ করতে আবার বাঙালি জাতিকে দেশপ্রেমের পরীক্ষা দিতে হবে ব্লগার পথহারা ? আমার মনে হয় আপনি ৭১ দেখেননি, বাঙ্গালির দেশপ্রেম কাকে বলে তাও দেখেননি । এই স্বপ্ন না দেখা আপনাদের জন্য মঙ্গল জনাব জামাতি পেইড ব্লগারকূল ।

বাঙালি জাতি রক্তের সাগরে ডুব দিয়ে উঠে স্বাধীনতার আনন্দে
দেশপ্রেমে হাবুডুবু খেয়ে জামাতি রাজাকার গোষ্ঠীকে মাফ করে দিয়েছিল, এখন আবার বাঙ্গালির দেশপ্রেমের পরীক্ষা নেওয়ার দু:সাহস জামাতিদের ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনবে বৈকি ।

বাঙালি যখন ফুসে উঠবে, জামাতিদের সুচরিত্রের সার্টিফিকেট ফেলে পালাবার পথ খুজে পেতে কষ্ট হবে। দ্বিতীয়বার বাঙালি জাতিকে দেশপ্রেমের পরীক্ষায় বসানোর সুযোগ ওরা জামাতিরা পায় কিনা ভবিষ্যতই বলে দিবে ।

৫৩ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. নুরুন্নাহার শিরীন বলেছেনঃ

    বাংগাল ভাই, সময়োচিত পোস্টটির কারণে আপনাকে সালাম। এই শনাক্তকরণের পরেও যদি লজ্জিত হয় ওদের বিবেক তবুও ওরা নিজের অপরাধের খেসারতটি দিয়ে যেতেই হবে আগামী দিনের শিশুর কাছে। নতুন শিশুরাও ওদের ঠিক চিনতে পাবে। এবঙ মুখ ফিরিয়ে নেবে, নেবেই।

  2. মাহবুব বলেছেনঃ

    এখানে বাঙাল ভাই পেইড জামাতি ব্লগারের একটা মন্তব্য তুলে ধরলেন তাতে আমার এই ক্ষুদ্র মাথায় কোনভাবেই আসছেনা উনি জামাতিদের পক্ষে কি লিখেছেন? জামাতিদের বেপারে জনসচেতনতার বিকল্প কি আসলেই কিছু আছে? আপনি কি তাদের সাথে যুদ্ধ করতে চান? যুদ্ধ করে আরো একটা বিশ্বজিতের রক্তে সিক্ত হতে চান নাকি জনসচেতনতা গড়তে চান? আর বাঙালিদের দেশপ্রেম নিয়ে যে কথাটা বললেন তাতে বলতেই হয় আপনার দেশপ্রেম শব্দটার বেপারে ধারণার কিছুটা সংস্কারের হয়ত দরকার আছে! একজন কাদের সিদ্ধিকি মুক্তিযুদ্ধে অসীম অবদানের জন্য বঙ্গবীর খেতাব পেলেই তার দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়না! স্বাধীনতা পরবর্তী টাঙ্গাইলের জনপদের কাছে কাদের সিদ্ধিকি হলো এক ত্রাসের নাম! তাহলে তার দেশপ্রেমটা কোথায় দেখলেন আপনি! সুতরাং দেশপ্রেমটা জাগিয়ে তোলাটা অবস্যই জরুরি! জামাতিরা দেশের স্বাধীনতার বিরোধী স্বীকৃত সত্য হওয়ার পর কেন তাদের বেলায় সঠিক সাক্ষী সরকার হাজিত করতে এত বেগ পেতে হচ্ছে? কারণ আমাদের ভেতর দেশপ্রেমের বড়ই অভাব!

  3. bangla71 বলেছেনঃ

    আজকের প্রজন্মের জামায়াত-শিবির কর্মীরা তো যুদ্ধাপরাধী ছিল না, তাহলে তাদের দোষ কোথায়?

    উল্লেখিত প্রশ্নে পিঠ বাঁচানোর কৌশল থাকলেও অন্তত: যুক্তিগুলো অসার। যুদ্ধপরাধীদের নেতৃত্বে, স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী এই সংগঠন দুটোর অনুসারীরা স্বাধীনতার পরে জন্ম নিলেও তারা একই আদর্শের অনুসারী। তাই তাদের ‘নব্য রাজাকার’ অভিধায় ভূষিত করাই শ্রেয়তর। জামায়াত যুদ্ধের বিপক্ষে অবস্থানকে ‘রাজনৈতিক ভুল’ বলে বাধ্য হয়ে স্বীকার করলেও ধর্ষণ, হত্যা কিংবা জ্বালাও পোড়াওর এর অভিযোগ স্বীকার করেনি। করলেই বা কি! ভুল ক্ষমা করা গেলেও খুন, হত্যা, ধর্ষণ কিংবা জ্বালাও-পোড়াও-এর সাথে যারা জড়িত ছিল, সেই অপরাধের তো ক্ষমা হতে পারে না।

  4. ইকবাল বলেছেনঃ

    আব্দুল ওয়াহাব নজদী, নিজেই ছিলেন, বেহায়া+তথ্য-সন্ত্রাসী+দাঙ্গাবাজ+বকধার্মিক– তার প্রেতাত্মারাও অনুরূপ। সৌদী/মিসর/তুরস্কের ক্ষমতাসীনদের চরিত্র পর্যালোচনা করলেই, ওয়াহাবীদের নীতি-নৈতিকতার দুরবস্থা অনুভূত হবে। আপসোস! তাদের জন্য– যারা “ইসলামী” মনে করে, তাদের অজান্তেই ‘ওয়াহাবী’দের অনুসারী হয়ে, নরকের পথে যাত্রা করেছে !! তারা যদি, মওদূদী/হাসনুলবান্নার সখ্যতার ইতিহাস, তথা তাদের গুরুদের গুরুর খোঁজ-খবর নেয়– তা’হলেই, তাদের শুধ্য-সঠিক পথের দিশা মিলবে।

  5. বোতল বাবা বলেছেনঃ

    বাংগাল ভাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ সুন্দর ভাবে তুলে ধরার জন্য।

    সিম্পল ভাবে বললে , আমি দেখছি যে ব্লগার ও মন্তব্যকারী ডাইরেকট অথবা ইনডাইরেকট জামায়াতের ও জামায়াতের নেতাদের গীত গায় , জামায়াতের বিরুদ্ধে কোনো কিছু লেখার প্রতিবাদ স্বরূপ আরো একটি লেখা লেখে এরাই তিন শ্রেণীর জামায়াতি ব্লগারদের একটিতে পরে। তথ্যসূত্রর উত্স ও বিচার বিশ্লেষণে প্রথমেই এদেরকে চিন্নিত করা যায় , নতুবা এরা সময়ের সাথে হাতে নাতে ধরা পরে।

    মাননীয় ব্লগপোষকগনকে অনুরোধ করছি এই গুরত্বপূর্ণ পোস্টটি নজর দিয়ে এবং সেই অনুযায়ী পোস্ট ও মন্তব্য প্রকাশ করতে।

  6. মাহি জামান বলেছেনঃ

    বিডি নিউজের ব্লগারদের মধ্যে দু’টি বিশেষ সম্প্রদায়ের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এর একটি হচ্ছে জামায়াতি সম্প্রদায়, অন্যটি বাকশালী সম্প্রদায়। এই ব্লগার এবং তাকে সমর্থনকারিদের নিঃসন্দেহে বাকশালী বলে চিহ্নিত করা যায়।
    বাকশালীদের চরিত্র হল সকল রাজনৈতিক দল নিষিদ্ধ করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার মসনদ চিরদিন শুধুমাত্র নিজেদের কব্জায় রাখা এবং স্বনিয়ন্ত্রিত চারটি বাদে সকল পত্রিকা নিষিদ্ধ করে ভিন্নমতকে স্তব্ধ করে দেয়া। বিডি নিউজের এই সব বাকশালী (আনপেইড কিন্তু ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট ভোগী) ব্লগার ভিন্নমত এবং ভিন্নমতের ব্লগারদের প্রতি যেভাবে অশ্লীল, ব্যক্তি আক্রমনাত্বক, অপ্রাসঙ্গিক, অযৌক্তিক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত মন্তব্য করেন তা কোন ক্রমেই গণতান্ত্রিক মুল্যবোধের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

    • বাংগাল

      বাংগাল বলেছেনঃ

      মাহি জামান ভাই , বাকশালী বলে চিহ্নিত হওয়ার মধ্যে কোনও লুকোছাপা নেই । ১৯৭০ এর নির্বাচন এর আগে এবং পরে ৯৮/ ৯৯ % বাঙ্গালি আওয়ামি লীগের পক্ষে ছিল , বাকি ১% মতান্তরে তারচেয়েও কম সংখ্যক হতভাগা বাংলাদেশের চেতনার সঙ্গে বেইমানী করেছিল । আপনার ভাষায় যারা ভিন্নমতের অনুসারী , ইয়াহিয়ার ভাষায় অচল পয়সা , স্বাধীনতা পরবর্তী মার্কিন দূতাবাসের ভাষায় জামাতি স্ল্যাগ । স্বাধীনতার পর রাষ্ট্র পরিচালনার স্বার্থে বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক আওয়ামি লীগ (বাকশাল ) নামে সারা দেশ এক প্লাটফর্মে এসেছিল ওই ১% হতভাগা ছাড়া । কিন্তু ভাই জামাতি শব্দটির সাথে লজ্জাকর অনুভূতি আপনার মধ্যেও জাগরূক বোঝাই যাচ্ছে , কারণ আপনি ভিন্নমতের বলছেন ,জামাতি বলছেননা । এটাও আশার কথা বটে । শুভকামনা ।

      ৭.১
  7. মাহাবুব১৯৯৫ বলেছেনঃ

    এই সময়ে তিন শ্রেণীর জামাতি ব্লগার আছে , ১) মধ্যপন্থী লাজুক জামাতি ব্লগার ২) আনপেইড জামাতি শিক্ষানবিশ ব্লগার ৩) পেইড জামাতি ব্লগার । এটার প্রমাণ কি? বলবেন কি ?

    ১০
  8. abdullah বলেছেনঃ

    এ ব্লগে দেখি বাকশালীদের বিরোধী মতের উপর অশালীন মন্তব্য ও এডমিন অতিমাত্রাই প্রকাশ করলে ও বিরোধী মতের একটু দাঁতভাংগা জবাব পেলেই তা মুছে দেয় ।তাহলে কি ধরে নিব এডমিন গনতন্ত্রে নই বাকশালে বিশ্বাসী ।

    ১১
  9. রাত্রিশেষ বলেছেনঃ

    বাংগালের পোষ্টটি “ব্লগার পথহারা”কে সরাসরি আক্রমণ করে লিখিত, সেটি যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশিত হয়েছে। অথচ আমাদের যৌক্তিক মন্তব্যের কাছে আর্দশিকভাবে পরাজিত হয়ে নানা ছলা-কলার আশ্রয় নিচ্ছে। বাকশালী-বাম সংশ্লিষ্ট ব্লগ মডারেটরের ক্ষমতা অপব্যবহারের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

    “ব্লগার পথহারা”র উদ্ধৃতি দিয়ে যা লেখা হয়েছে, তাতে ব্লগার পথহারাকে “পেইড” বলা যায় না। “পেইড ব্লগারদের” লেখা হয় অতি নিম্নমানের আর সোজা-সাপ্টা আক্রমণাত্বক, যেমন – আপনার পোষ্টটি।

    অসম্পূর্ণ লেজে-গোবরে পোষ্ট – এটা কোন শ্রেণীবিভাগ হল?? মুল জামাতি গ্রুপ “মৌলবাদী জামাতি ব্লগার” শ্রেণীবিভাগেই নাই!! এই পোষ্ট মুছে ফেলুন, নতুন করে “মৌলবাদী জামাতি ব্লগার” শ্রেণীবিভাগে যোগ করে (উদাহরণ হিসেবে আমার নামও দিতে পারেন) আবার পোষ্ট করুন। “মৌলবাদী জামাতি ব্লগার” শ্রেণীবিভাগে না থাকার অপরাধ তো আপনার বাম-দাদারাও ক্ষমা করবে না। তখন আপনাকে “চাপাতি বাংগাল” ডাকবে সবাই। শুভেচ্ছা রইল। :shock:

    ১৪
  10. গিট্টুমামা বলেছেনঃ

    মমি কি লিখতে পারে? মমির কি লেখার অধিকার থাকা উচীত? আমি জানি এটা নিয়ে এক জন এক রকম উত্তর দিবেন।
    গত কয়েকদিন যাবত যখনই কিছু একটা লিখতে যাই, মডু কয় আমার যোগ্যতা নাই। আরে মডু! আমিতো আমি, মমি নই! শীতের কারনে একটু ত্যানা প্যাঁচাই রাখছি। ভয় পাইসনা। ভয় পাওয়ার কিছু নাই। আমি গিট্টু। মমি নই।

    অবশ্য সন্দেহ জাইগতেছিল যে, লেখার একটা কোয়ালিটি লাগে। মনে হয় কোয়ালিটি নাই আমার। তাই আমারে খাতা দিতাছেনা।

    কিন্তু মডু, আমার একটু সাহস বাড়ছে। এক্কেবারে ঝিঁঝিঁ পোকার কিরা। আমার লেখা কোন মতেই এই পোষ্টের চেয়ে কোয়ালিটিতে খারাব হইবোনা। আমার লেখায় একটু হইলেও যুক্তি টুক্তি থাইকবো। কাউরে আক্রমন কইরা দুই এক লাইন লেইখলে আর তাতে সময়োচিত টাইপের দুই একটা বাহবা জুটলেই যে পোষ্ট হইয়া যায় বা তারে পোষ্ট কয় এইটা জানলে তো আরো আগেই লেখা শুরু করতাম।

    দে মডু, এবারের মতো ছাইড়া দে। দুই এক লাইন লেখি। খোঁচাখুঁচি না কইরলে এই শীতকালে শীত আরো বাইড়া যাইবো। ভয় পাইসনা, আমি মমি নয়।

    ১৫
  11. নগর বালক বলেছেনঃ

    ভাইজান দেখি বেজায় রেগে আছেন!!!
    বাকশালী ব্লগারকূল (পেইড/আনপেইড) যেভাবে মরিয়া হয়ে নিজেদের ঐতিহাসিক কুকর্ম নতুন প্রজন্মের কাছ থেকে গোপন করার জন্য নিজেরাই নিজেদের সুচরিত্রের ভান্ডার উপুড় করে দিচ্ছে তা দেখে ও পড়ে ওদের অসহায়ত্ব নিয়ে দুচার কথা লিখতে ইচ্ছা করল ।
    হেরা কল্পনা কইরাইই দেশপ্রেমিক হইতে চায় আর তা প্রতিষ্ঠা করতে সমস্ত শক্তি প্রয়োগ কইরাও জখন ব্যার্থর ছাই এ মুখ থুবরে পড়ে তখনই আবোল তাবোল প্রলাপ শুরু করে, তথ্য-সূত্র, দলিল প্রমান কিছুই বুঝে না, বুঝতে চায়ও না। মাথা ভড়া গোবর আর হেইডারেই হেরা জৈব সার মনে করে। গোবর কোথাকার……….

    ১৭
  12. পথহারা সৈকত বলেছেনঃ

    আসুন আমরা যারা জামাতের নির্মূল চাচ্ছি তারা আদর্শগতভাবে তাদের নির্মূল করি। তাদের আসল চরিত্র জনতার সামনে তুলে ধরি তাদের ভন্ড প্রমাণ করি। তাহলেই জনগন এমনিতেই তাদের ছুরে ফেলে দেবে, তার আগে আমাদেরকেও নিজেদেরকে দেশপ্রেমিক প্রমাণ করতে হবে।

    দেশপ্রেমের প্রমান দিতে হবে কথা ও কাজে। শুধু চেতনার কথা বল্লে হবে না। আর হা, উল্টা-পাল্টা না বলে যদি যুক্তি দিয়ে কথা বলতে চান আসুন আমার ব্লগে

    ১৮
  13. পথহারা সৈকত বলেছেনঃ

    আসুন আমরা যারা জামাতের নির্মূল চাচ্ছি তারা আদর্শগতভাবে তাদের নির্মূল করি। তাদের আসল চরিত্র জনতার সামনে তুলে ধরি তাদের ভন্ড প্রমাণ করি। তাহলেই জনগন এমনিতেই তাদের ছুরে ফেলে দেবে, তার আগে আমাদেরকেও নিজেদেরকে দেশপ্রেমিক প্রমাণ করতে হবে।

    দেশপ্রেমের প্রমান দিতে হবে কথা ও কাজে। শুধু চেতনার কথা বল্লে হবে না। আর হা, উল্টা-পাল্টা না বলে যদি যুক্তি দিয়ে কথা বলতে চান আসুন আমার ব্লগে
    ……..

    ১৯
  14. অ্যানড্রমিডা বলেছেনঃ

    সম্পূরক খবরঃএকটু আগে সাইদির ফাঁস হওয়া অডিও শুনলাম সাউন্ডক্লাউডে।আমার সিস্টেম হ্যাং করেছে।রিস্টার্ট দিতে হবে।

    ২৩
  15. Alam বলেছেনঃ

    আমার দেশ যুক্তিতে স্বাধীন হয়নি । রক্তে স্বাধীন হয়েছে ।
    যত প্রশ্ন যত যুক্তি সবই কি মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ?
    ঐ হায়েনাদের বিচারে যুক্তি তর্ক তুলে রাখ ।
    আমি কেন যুক্তি খুঁজব ওদের শাস্তি দিতে

    ২৪
  16. জয়ন্তসাহা বলেছেনঃ

    অনেক প্যাঁচাল হইছে, অনেক গ্যাঞ্জামও হইছে। জামায়াত চিরকালের ধর্ম ব্যবসা করা একটা দল। ধর্ম বেঁচে ক্ষমতার মসনদে যাবার মত ঘৃণ্যতম চিন্তা তারাই করতে পারে। যারা ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়া তরুণ সমাজকে বিভ্রান্ত করে, যারা ধর্মের দোহাই দিয়া দেশের বিরোধিতা করে, এদের মত বেঈমানের টিকে থাকার কোন রাইট নাই। জামায়াতের ধ্বংস অনিবার্য। আল্লাহ তাদের গজব দিক।

    ২৫
  17. এমডি জিয়া উদ্দিন titu বলেছেনঃ

    জামাত অথবা শিবির কোনও বিষয় নয় আসল প্রবলেম হসসে দরমানিরপক্কা রাজনীতি তথা নাস্তিক্যবাদ প্রতিষ্ট করা বাংলাদেশে দরমানিরপেক্য রাজনীতি যদি থাকে তাহলে ধর্মের পককের রাজনীতি থাকবে এটাই গণতন্ত্র অন্যথায় সবই ভন্ডামি

    ২৭
  18. জান মাহমুদ খান বলেছেনঃ

    বাঙ্গাল ভাই, সব সময সাহসী লেখা লিখে থাকেন। ধন্যবাদ লেখার জন্য। জামাতীদের চরিত্র ১৯৭১ সালেই দেখা হয়ে গেছে।

    ৩৪
    • বাংগাল

      বাংগাল বলেছেনঃ

      @জনাব মহী , বিডি ব্লগ তো অনেকের লেখাই প্রকাশ করছে , শুধু অশ্লীল মন্তব্য ছাড়া । বিকৃত যৌন কর্মের যারা সমর্থক, তাদের বিকৃত রুচির মন্তব্যও বিডি ব্লগে প্রকাশিত হয়না । এই ব্লগ সুস্থ্য মানুষের জন্য। রাত ১২ টা পর্যন্ত আল্লামা সেজে ওয়াজ করবেন আর বাড়িতে গিয়ে অন্যের বউয়ের সঙ্গে পরকীয়া সহ ফোনসেক্স করবেন , এর বিপক্ষে লিখলে অশালীন মন্তব্য করবেন আর আশা করবেন তা বিডি ব্লগে ছাপা হবে ? ক্যামনে হয় হুজুর ?

      ৩৫.১

কিছু বলতে চান? লিখুন তবে ...