ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

কোন ধরনের পক্ষপাতিত্ব নয়, নতুন প্রজন্মকে সঠিক ইতিহাস জানানো একান্ত প্রয়োজন। স্বাধীনতার তিন যুগ পেরিয়ে চার যুগের দ্বারপ্রান্তে এসে জাতি ভুলতে বসেছে স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস। নতুন প্রজন্ম জানে না বঙ্গবন্ধু আর শহীদ জিয়া কে ছিলেন। তার একমাত্র কারন প্রতিহিংসার রাজনীতি ও পক্ষপাতিত্ব মূলক আচরণ। এজন্য আমি বিএনপি’কে বেশী দায়ী করছি, কারন স্বাধীনতা পর ২০ বছর সামরিক শাসনের কথা বাদ দিয়ে ৯০ এর গন আন্দোলনে সামরিক শাসনের পতনের পর প্রতিষ্ঠিত হয় গণতন্ত্র। গণতান্ত্রিক সরকারের প্রথম দায়িত্ব পালন করেন বিএনপি প্রধানমন্ত্রী হন খালেদা জিয়া।

৯০ এর পর প্রথম গণতান্ত্রিক সরকার হিসাবে বিএনপি ক্ষমতায় এসে সুচনা করেন ইতিহাস বিকৃতি। ৯১ এর নির্বাচনে বিএনপি ক্ষমতায় এসে স্কুল কলেজের পুস্তক সহ যাবতীয় দলিল পত্রে জিয়াকে টপ অব দ্য গ্রেট বানাতে গিয়ে গৌণ করেছেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুকে। যার কারনে যেমন হয়েছে স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস বিকৃতি তেমনি মনে আঘাত পেয়েছেন লাখো বীর বাঙ্গালী এবং প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে উঠে আওয়ামীলীগ। ৯৬ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় এসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে প্রাধান্য দিয়ে সংশোধন করেন ইতিহাস। ক্ষমতার পালা বদলের সাথে সাথে ইতিহাস বদলের কারনে আজ জাতি ভুলতে বসেছে স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস। প্রতিহিংসার রাজনীতির কারনে নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা জানতে পারছে না স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস, জানতে পারছে আমাদের স্বাধীনতার প্রতি বঙ্গবন্ধু আর জিয়ার কি অবদান ছিল। তাই দেশের সকল রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি অনুরোধ রাজনীতির হীন স্বার্থ বাদ দিয়ে দেশের স্বার্থে, নতুন প্রজন্মের স্বার্থে স্বাধীনতার প্রকৃত ইতিহাস জাতিকে জানতে দিন, নতুন প্রজন্মকে জানতে দিন। আপনাদের রাজনীতির এই হীন স্বার্থ পরিহার করুন। আর না হলে একদিন বাংলার ইতিহাস থেকে যেমনি মুছে যাবে জাতির জনকের নাম তেমনি মুছে যাবে জিয়ার নামও। আপনাদের শুভবোধদয় কামনা করছি।