ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

এবার মার্কিন দূতাবাসের গাড়িতে ঢিল ছুড়েছে হরতাল সমর্থনকারীরা। কি জঘণ্য সব কান্ড-কারখানা ঘটে চলেছে। গতকাল শংকিত পদযাত্রা একটা লেখা পোষ্ট করেছিল। জামাত-শিবিরের হরতাল ” জামাতের হরতাল! চলেন আমরা ঘরের কোনায় ভয়ে-লজ্জায় লুকাই!!

কিন্তু আজ যখন সেই হরতাল প্রধান বিরোধী দল সমর্থন করে, তখন সেটা আমাদের জন্য আরো বেশি লজ্জাজনক হয়ে দাঁড়ায়। আর যখন শুনি হরতালকারীরা বিদেশী দূতাবাসের গাড়িতে ঢিল ছুঁড়েছে, ভাংচুরের চেষ্টা চালিয়েছে তখন জাতি হিসেবে আমরা আরো কতটা লজ্জায় ডুবে যাই ভাবতেই কষ্ট হয়। আর আজকের এই হরতাল প্রধান বিরোধী দল সমর্থন করে আরো ন্যাক্কারজনক পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে। বাংলাদেশ নামক দেশটার জন্মই যে মানুষগুলো চায়নি, তাদের তো সেই দেশটার প্রতি কোন অধিকার থাকা উচিত নয়, উচিত নয় কোন কিছু আশা করাও। তারপরও তারা সেটা করছে, এবং দারুনভাবে সেটাকে অপব্যবহার করছে।

এটা ভেবে কষ্ট হয় যে, জামাত ইসলামী দলটা আমাদের এই প্রিয় দেশটাকে কখনো ভালো কিছু দিতে পারেনি। বরং একের পার এক কর্মকাণ্ড দিয়ে সারা বিশ্বর কাছে আমাদের প্রিয় দেশটার ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। আজ তারা মার্কিনি দূতাবাসের গাড়িতে যখন হামলা করে তখন তারা সেটা দ্বারা তারা কি প্রমাণ করতে চাচ্ছে? তারা অনেক বেশি ক্ষমতাশালী তাই যা খুশি করতে পারে, নাকি বাঙালী অনেক অসভ্য জাতি কোন কিছু তোয়াক্কা করিনা আমরা এটা? যদি প্রথমটা হয় তাহলে আমার মনে হয় তারা ভুল করবে। উঁই পোকার পাখা গজানোর মতই তাদের পাখাটা গজিয়েছে। আর উঁই পোকার মতই অবস্থাই হবে তাদের। আশা রাখছি সেই শুভদিন খুব তাড়াতাড়ি আসবে। আর মোটেও বাঙালী জাতি অসভ্য নয়। একটা বড় উঁচু কিছুর পাশে একটা বড় নিচু যেমন অনিবার্য, এখানে ও ঠিক তেমনি। কিছু সংখ্যক জামাত ইসলামীদের তান্ডব নৃত্যে ১৬ কোটি মানুষের স্বপ্ন আর আশা শেষ হয়ে যেতে পারে না। তবে একটা বিষয়, যেটা এর আগে হাজারো লক্ষ জন বলেছে, আজ আমি ও বলছি, সরকারের আরো কঠোর পদক্ষেপ নেয়া উচিত। আর সেই সাথে কৌশলগত ভাবে অনেক বেশি সচেতনতা দরকার। হত্যা, অগ্নিসংযোগ, বোমাবাজি, আর বিশেষ করে বিদেশীদের অথবা বৈদেশিক দূতাবাসের উপর হামলাকে শক্ত হাতে প্রতিহত করতে হবে। আমাদের স্বাধীনতা যুদ্ধটা এই সব নরপিশাচদের পছন্দ ছিল না। তারপরও তো আমরা আমাদের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে পেরেছি। আর আজও জামাত সহ তাদের সমর্থনকারীদের কে শক্ত হাতে প্রতিহত করতে গেলে অনেক বাঁধা-বিপত্তি আসবে। আসবে অনেক চাপ। তারপরও সব বাধা প্রতিহত করে এখনই এদেরকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়ার সুষ্ঠু সময়। সরকার যদি এখন সেটা না পারে তাহলে সেটা ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের জন্য এক অশনি বার্তা বয়ে নিয়ে আসবে। আমরা সেটা কিছুতেই চাইতে পারিনা।

তথ্যসূ্ত্র: বিডিনিউজ২৪.কম