ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

আমি সিটিসেলের জুম আল্ট্রা ব্যাবহার করি। গত ২০ডিসেম্বর আমার মডেমটি হারিয়ে যায়। ঐদিন রাতে খোজাখুজি করে আর পাই নি। পরদিন ভোরে উদীচীর সম্মেলন উপলক্ষে ঢাকায় চলে যাই। সারাদিন চলে ব্যাস্ততার মধ্যে, রাতে সিটিসেলের কাস্টমার কেয়ারে কল করি। তারা বিভিন্ন তথ্য জানতে চাইলে তা যথারিতি জানিয়ে দেই। ২০-২১ উদীচীর সম্মেলন শেষে ২১ তারিখ রাতে বাসায় ফিরি। পরদিন ২৩ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় রিম উঠানোর জন্য ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মার্কেটে অবস্থিত কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে যাই । ওখানের ম্যানেজার আমাকে জানান নতুন রিম নিলে আপনার পূর্বের সকল সুবিধা বাতিল হয়ে যাবে, এমকি আপনার বাকী যে মেয়াদ আছে সেটা সহ প্যাকেজ বাতিল হয়ে যাবে এবং এখনই আপনার ৩২০টাকা রিচার্জ করতে হবে। নতুবা ব্যাবহার করতে পারবেন না। আমি বল্লাম কেন? আমার এই রিম যদি আগামীকাল হারিয়ে যায় বা কোন কারণে নষ্ট হয়ে যায় তখন কী হবে? উনি বল্লেন আবার ৩২০ টাকা লাগবে।

আমি কল দিলাম ০১১৯৯১২১১২১ নাম্বারে। নানান কথার পর রিং ধরলেন সানজিদা নামের একজন। তাকে সমস্যার কথা বলার পর উনি বল্লেন আপনি রিম নেন আপনার সব কিছুই আগের মত থাকবে। উনি ম্যানেজারের সাথেও কথা বল্লেন। ততক্ষণে আমার পকেট কেটে নিয়ে গেছে ২০টাকার মত। ম্যনেজার রিম দিলেন আমিও নিয়ে এলাম।

ঘটনা এখানে শেষ নয়। এরপর শুরু হলো আসল খেলা। ২ ঘন্টা পর কানেকশন দিতে গিয়ে দেখি রিম অচল। আবারও কল ০১১৯৯১২১১২১ এ। আবার বকবকানি শুনার পর ধরলেন একজন। বল্লেন কতক্ষণের মধ্যেই চালু হয়ে যাবে। এবারও হলো না। আবার বিকাল ৫টায় ফোন ০১১৯৯১২১১২১ এ। যথারিতি বলা হলো খুব অল্প সময়ের মধ্যেই চালু হয়ে যাবে। সেই অল্প সময় কত সেটা জানতে চাইলে বলা হলো ২ঘন্টা চেষ্টা না করে পরে চেষ্টা করবেন। ধরে নিলাম এবার হয়ে যাবে। হলো না।

আমি ততক্ষণে গৌরীসেনের ভূমিকায় অভিনয় শুরু করে দিয়েছি। ২ ঘন্টা পর আবার সেই ০১১৯৯১২১১২১।

সকাল বেলা যেখান থেকে শুরু করেছিলাম তার কাছাকাছি জায়গা থেকে মোলায়েম কণ্ঠে বলা হলো আপনার প্যাকেজ ডি-এ্যাকটিভ। কিন্তু কেন? একটু অপেক্ষা করুন বলে জোর করে গান শুনানো হলো। তিনি বল্লেন জানি না। আমি বল্লাম আমাকে জানাতেই হবে, কেন ডি-এ্যাকটিভ। আবারও গান-হয়তো কাহারো সাথে পরামর্শ। কারণ জানাতে ব্যর্থ হয়ে-জানানো হলো অতি অল্প সময়ের মধ্যে এ্যাকটিভ হয়ে যাবে।
অতি অল্প সময় কতক্ষণ-সেটা জানতে রাত ৯.৪৫ এ আবার ০১১৯৯১২১১২১ এ কল।

এবার জানা গেল আসল খবর। এতক্ষণ যাদের সাথে কথা বলছিলাম তারা সমাধান দেওয়ার কেউ না। এরা ব্রিটিশদের তৈরি ভারতীয় কেরাণীদের নব সংস্করণ। শুধু অভিযোগ লেখা ছাড়া এদের আর কোন কাজ নেই।
পরিশেষে গ্রাহক হয়রানীর জন্য আমি অভিযোগ করতে ইচ্ছুক কোথায়, কিভাবে, এর বিচার চাওয়া যাবে এ বিষয়ে পরামর্শ চাচ্ছি।
একটি বিষয়ে ধন্যবাদ না দিলে নয়। নেট বন্ধ থাকার কারণেই লেখাটি লেখার সুযোগ পেলাম।
২৩ ডিসেম্বর রাত ১১.৩০ পর্যন্ত এ লেখা-লেখার পরও দেখলাম ভাগ্যের শিঁকা ছিঁড়েনি।
আগামীকাল এ লেখাটি অন্যকো স্থান থেকে ব্লগে পোষ্ট করার ইচ্ছে রইলো।
২৪ডিসেম্বর সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠেও দেখলাম যত তারাতারি শেষ হয় নি।
সকাল ৯.১০ আবারো কল ০১১৯৯১২১১২১ এ।
আবারো “যত তারাতারি সম্ভব” বাণী বিতরণ।

অবশেষে সিদ্ধান্ত নিলাম-“বেহায়া সিটিসেল” পারলে তোর বিচার চাইব, না পারলে এখানেই ইতি।
তবে বাকী রই গালি………………..

এ পর্যন্ত লেখার পর কম্পিউটার বন্ধ করে বাথরুমে যাই। কল আসে ০১১৯৯১২১১২১থেকে। পরপর ৩বার। কল রিসিভ করতে পারি নাই। বের হলাম চাকুরীর কাজে। রাস্তায় থাকা অবস্থায় আবার কল দিল বল্লাম সমস্যার কথা আবারো দ্রুত সমাধানের আস্বাস।

এবার চালু হলো আমার প্যাকেজ, অনেক সংগ্রামের পর ফিরে পেলাম আমার অধিকার। কিন্তু আমার অব্যাহৃত মেগাবাইট হাওয়া।

এখানে আমার বোনাস ১২৫টাকা এবং ব্যালেন্সের ৩.৭৫টাকা দেখানো হচ্ছে। কাল বলেছিল ৩২০টাকা লাগবে, আজ সেখানে ১৯০টাকা হলেই চালু হচ্ছে ১জিবি প্যাকেজ।

কতক্ষণ পর আবার কল এলো জানালাম ঘটনা। এবার জানানো হলো পূর্বের অবস্থায় দেওয়া যাবে না। তবে আমার অব্যাহৃত মেগাবাইটের সমপরিমান টাকা আমার একাউন্টে ফেরত দেওয়া হবে। বিকাল ৫টায় দেখলাম দেওয়া হয়নাই।

তারপরও যেহেতু আংশিক অধিকার ফিরে পেয়েছি(১৯০টাকায় ১জিবি পাচ্ছি)। সংগ্রামের মাধ্যমে প্রাপ্ত অধিকার ভোগ করার জন্য পাল্টানোর সিদ্ধান্ত আপাদত স্থগিত। ঘটনাটি প্রমাণ করল ন্যায্য অধিকারের জন্যও সংগ্রাম করতে হয়।

তবে বিচার চেয়ে অভিযোগ করার সিদ্ধান্ত এখনও বহাল আছে।

২৪ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. শওকত আলি বলেছেনঃ

    এরা লোকাল বাসের কন্ডাকটারের মত।উঠানের সময় কোলে করে উঠায়,নামানোর সময় চলতি বাস থেকে ধাক্কা দিয়ে নামায়।

  2. এলডোরাডো বলেছেনঃ

    আপনারা আমাকে নৈরাশ্যবাদী বলতে পারেন। কিন্তু আমি মনে করি আমাদের এ দেশ, সমাজ, রাষ্ট্র প্রায় সকল ক্ষেত্রেই অব্যবস্থাপনা, দুর্নীতি, প্রতারনা, অনিয়ম, বিশৃংখলা আর অসভ্যতার শেষ প্রান্তে অর্থাৎ পয়েন্ট অব নো রিটার্ন এ পৌছে গেছে। যারা মনে করেন একদিন সব ঠিক হয়ে যাবে তারা হয় সুবিধাভোগী অথবা কল্পনা বিলাসী।
    একটা আমুল পরিবর্তন দরকার – সব ক্ষেত্রেই। এই পরিবর্তনের যে দাওয়াই আমার মনের পর্দায় উকি দেয় তা অত্যন্ত বর্বর মনে হতে পারে। অন্ততঃ কিছুদিনের জন্য হলেও আমাদের দেশের সকল আইন কানুন তুলে নেয়া হোক। যার যেভাবে ইচ্ছা চলবে, যে যাকে ইচ্ছা মারবে, কাটবে, যেভাবে ইচ্ছা লুটপাট, দুর্নীতি, খুন খারাবি করবে, যেভাবে ইচ্ছা রাস্তায় চলবে, গাড়ী চালাবে, যে যেখানে যেভাবে ইচ্ছা আইন হাতে তুলে নিবে। এর পর দেখা যাক আমরা নৈরাজ্যের আর কত উদাহরন তৈরী করতে পারি। এভাবে ২-৩ বছর চলুক। তারপর কি হবে পরে ভেবে নিব আমরা।

  3. জুলফিকার জুবায়ের

    জুলফিকার জুবায়ের বলেছেনঃ

    সম্ভব হলে বর্জন করুন, অভিযোগ না করে পাল্টানোর সিদ্ধান্তটা বহাল রাখলে বেশি সুবিধাজনক অবস্থায় থাকবেন।

    অসুন্দর অভিজ্ঞতাটা যেহেতু আপনাকে সিদ্ধান্তে অটল থাকাতে ভূমিকা পালন করেনি সুতরাং আবারো তারা আপনাকে বিড়ম্বিত করার সুযোগ খুঁজবে।

    কার কাছে বিচার চাইবেন যেখানে খুনের প্রমাণিত দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামীকে ফুলের মালাসহকারে ছেড়ে দেয়া হয়?

    অভিজ্ঞতাটা শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা।

    • মোত্তালিব দরবারী বলেছেনঃ

      বর্জন করাটা ছিল সহজ। কিন্তু যে লড়াইটা করে যাচ্ছি সেটা কঠিন। আজও আমাকে ফোন করেছিল, বললো আমার পাওনা দিয়ে দিবে। আমি শুধু আমার পাও নয় আমি চাই তাদের নিয়মটা পরিবর্তন হোক। আজও বলেছি এবং এখানেও বলছি একজন গ্রাহকের যতবার রিম পাল্টাতে হবে ততবার নতুন করে টাকা দিয়ে প্যাকেজ কিনতে হবে এটা অদ্ভুত নিয়ম। এটা পাল্টানোর জন্যই অভিযোগ করতে চাচ্ছি।
      তারা চাইবে ঠকাতে আমরা প্রতিবাদ করব।
      খুনের আসামীকে যেমন ফুলের মালা দেওয়া হচ্ছে, তেমনি সম্মিলিত প্রতিবাদের কারণে বিচারও হচ্ছে।
      ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

      ৩.১
  4. মোত্তালিব দরবারী বলেছেনঃ

    বলদগুলো এখনো আমাকে জানাতে পারে নাই আমার পাওনা কত ছিল। আমাকে কত ঠকাইছে ওরা তাও জানে না। জানি শুধু আমি আর ওদের বাপেরা জানে।

  5. মাসুদ রানা বলেছেনঃ

    ভাইরে আপনার মতো ভুক্তভুগী আমরা সবাই। যে কোন মডেমের স্পীড নিয়ে কথা বললেই ওরা বলবে আপনার পিসির সমস্যা। এটা করেন, ওটা করেন বলতেই আমার মোবাইলের ৫০ টাকা হাওয়া। কোন সমাধান নেই। সবাই মিলে এর প্রতিবাদ করতে হবে। তা না হলে অপারেটরদের প্রতারনা বন্ধ হবে না।

  6. Babu বলেছেনঃ

    আমি গতো ৬ বছর থেকে মালয়শিয়ায় আছি। এখানকার কিছু কাস্টমার সার্ভিস এর অভিজ্ঞতা বলছি, তাহলে তুলনা করা সহজ হবে আমরা বাংলাদেশীরা বাংলাদেশে কাস্টামর সার্ভিস এর নামে কি পাচ্ছি।

    ঘটনা ১: আমি এখানকার ডিজি অপারেটর (বাংলাদেশ এর গ্রামীন, টেলিনর)এর সিম ব্যবহার করি। এ পর্যন্ত ৪ বার সিম হারিয়ে ৪ বার তা কাস্টমার কেয়ার থেকে পূর্বের ব্যালেন্স সহ বিনা পয়সায় উত্তলন করেছি। এবং ৪বার ই তারা আমাকে ৩২টি দাত দেখিয়ে হাসি মুখে একবারও কোন কারন না জেনে সিম দিয়ে দিয়েছে।

    ঘটনা ২: জারিং এর ইন্টারনেট ব্যবহার করতাম। মাঝে মাঝে বিল সময় মতো পরিষোধ না করায় লাইন কেটে যেত। কল করতাম কাস্টমার কেয়ার এ। বেশিরভাগ সময় লাইন ব্যস্ত। সমস্যা নেই। আমি লাইন টা কেটে দিয়ে চুপচাপ বসে থাকতাম। ১০ মিনিটের মধ্যে কল চলে আসত। আর ৫ মিনিটের মধ‌্যে সমস্যার সমাধান।

    ঘটনা ৩: বছন খানেক আগে অনেক সাহস করে একটা এল.জির ৩২ ইঞ্চি এল.ই.ডি টিভি কিনি। রিমোট কন্ট্রল কাজ না করায় কল করি তাদের। ৩০ মিনিটের মধ্যে তারা ভ্যান সহ বাসায় হাজির। ৭ দিনের মধ‌্যে প্রয়োজনীয় পার্ট আমি গতো ৬ বছর থেকে মালয়শিয়ায় আছি। এখানকার কিছু কাস্টমার সার্ভিস এর অভিজ্ঞতা বলছি, তাহলে তুলনা করা সহজ হবে আমরা বাংলাদেশীরা বাংলাদেশে কাস্টামর সার্ভিস এর নামে কি পাচ্ছি।

    ঘটনা ১: আমি এখানকার ডিজি অপারেটর (বাংলাদেশ এর গ্রামীন, টেলিনর)এর সিম ব্যবহার করি। এ পর্যন্ত ৪ বার সিম হারিয়ে ৪ বার তা কাস্টমার কেয়ার থেকে পূর্বের ব্যালেন্স সহ বিনা পয়সায় উত্তলন করেছি। এবং ৪বার ই তারা আমাকে ৩২টি দাত দেখিয়ে হাসি মুখে একবারও কোন কারন না জেনে সিম দিয়ে দিয়েছে।

    ঘটনা ২: জারিং এর ইন্টারনেট ব্যবহার করতাম। মাঝে মাঝে বিল সময় মতো পরিষোধ না করায় লাইন কেটে যেত। কল করতাম কাস্টমার কেয়ার এ। বেশিরভাগ সময় লাইন ব্যস্ত। সমস্যা নেই। আমি লাইন টা কেটে দিয়ে চুপচাপ বসে থাকতাম। ১০ মিনিটের মধ্যে কল চলে আসত। আর ৫ মিনিটের মধ‌্যে সমস্যার সমাধান।

    ঘটনা ৩: বছন খানেক আগে অনেক সাহস করে একটা এল.জির ৩২ ইঞ্চি এল.ই.ডি টিভি কিনি। রিমোট কন্ট্রল কাজ না করায় কল করি তাদের। ৩০ মিনিটের মধ্যে তারা ভ্যান সহ বাসায় হাজির। ৭ দিনের মধ‌্যে প্রয়োজনীয় পার্ট অর্ডার করে ঠিক করে দেয়ার প্রমিস করে তারা। এবং ঠিক ঠিক আবার এসে আমার টিভি মেরামত করে দিয়ে যায়।

    কষ্ট করে এতো লেখার প্রয়োজন ছিল না আমার। কিন্তু মনে একটু আশা- কেউ না কেউ তো পড়বে আমার লেখা। তাদের মধ্যে কেউ না কেউ তো হতে পারে কর্তৃপক্ষের লোক। তাদের মধ্যে কেউ যদি একবারও ভাবে যে এভাবে আমরাও তো গ্রাহক সেবা দিতে পারি!

  7. মহাজের বলেছেনঃ

    আমিও একজন সিটিসেল কাস্টমার, আমি মডেম এবং হ্যান্ডসেট ব্যবহার করি, আমার কাজে এদের এইরকম মনে হইনাই। এদেরকে কুঅপারেটিভ বলেই মনে হইসে, আমি সব দরনের মোবাইল অপেরেটর ব্যবহার করেসি এবং এঁদের সব কিছুই ভাল লাগসে আমার কাজে। জানি না আপনার সাথে কেন এইরকম হল। অনেক দিন আগে টেলিটক-এর ১২১-এ কল করে আমাকেই জিজ্ঞাসা করতে হল যে এটা কি টেলিটক অফিস তখন আমি আমার সমস্যার কথা বললাম, তখন মোবাইলের অপর প্রান্ত থেকে শুনলাম অনারা সবাই বাস্ত আসে, আপনি কিছু খন পরে কল করেন, চিন্তা করের তাহলে কি দরনের মানুষ আমার কল টা রিসিভ করেসিল, এই কথা উত্তরা টেলিটক অফিসে বলেও কুন উত্তর পাই নাই

  8. mohajer বলেছেনঃ

    আমিও একজন সিটিসেল কাস্টমার, আমি মডেম এবং হ্যান্ডসেট ব্যবহার করি, আমার কাজে এদের এইরকম মনে হইনাই। এদেরকে কুঅপারেটিভ বলেই মনে হইসে, আমি সব দরনের মোবাইল অপেরেটর ব্যবহার করেসি এবং এঁদের সব কিছুই ভাল লাগসে আমার কাজে। জানি না আপনার সাথে কেন এইরকম হল। অনেক দিন আগে টেলিটক-এর ১২১-এ কল করে আমাকেই জিজ্ঞাসা করতে হল যে এটা কি টেলিটক অফিস তখন আমি আমার সমস্যার কথা বললাম, তখন মোবাইলের অপর প্রান্ত থেকে শুনলাম অনারা সবাই বাস্ত আসে, আপনি কিছু খন পরে কল করেন, চিন্তা করের তাহলে কি দরনের মানুষ আমার কল টা রিসিভ করেসিল, এই কথা উত্তরা টেলিটক অফিসে বলেও কুন উত্তর পাই নাই

    ১০
  9. মামুন হাসান বলেছেনঃ

    আপনাদের সাথে আমিও আমার একটা অভিঙ্গতা টা একটু শেয়ার করতে চাই্ এবং তা হল আমিও এক জন সিটিসেল কাস্টমার কোন কারনে আমার মডেম টি বেশ কিছু দিন বন্ধ ছিল্‌।অতপর আমার ছোট ভায়ের প্রয়োজনে সে আমার মডেম ব্যবহার করার জন্য কাস্টমার কেয়ারে কল করে তাদের প্যাকেজ সম্বন্ধে জানার জন্য। তো কিছু গান শোনানোর পর কেউ এক জন কথা বলে, তথ্য দেন এবং সুসংবাদ দেন আমার রিমটি বন্ধ থাকার করণে আমি বোনাস পাব এবং ধরাবাহিক ভাবে তিন মাস ১২০ টাকা করে। জেনে আমি মহা খুশি। কারণ আমি একজন ছাত্র। ১২০ টাকা আমার কাছে অনেক।যা হোক কথা অনুযায়ী আমি প্রথম মাসে বোনাস পেলাম সাথে সাথে। কিন্তু খেলা শুরু হলো পলের মাসে। আমি শর্ত অনুযায়ী ২০০ টাকা রিচার্জ করি কিন্তু আমার বোনাস পাই না। কাস্টমার কেয়ারে ফোন করি যথারীতি গান শোনানার পর ফোন ধরে এবং আমার সমস্যার কথা বলি কিন্তু কোন সমাধান দিতে পারেনা। বলে একটু পরে আবার ফোন দিতে। আমি আবার দেই। আবার গান তারপর ফোন ধরে এবং আমাকে জানায় আমি কোন বোনাসের আওতায় নেই। তবে ভাবুন কি অবস্থা……………………………………………..

    ১১
    • মোত্তালিব দরবারী বলেছেনঃ

      ভাই বোনাসের কথা আর বইলেন না। আমার নভেম্বর মাসের ১জিবি শেষ হয়ে যায় ১৫দিনে। গেলাম কাষ্টার কেয়ারে বর্তমানের মতই বলা হলো প্যকেজ অফ করে আবার চালু করলে বোনাস পাবেন না। ফোন ১২১ এ। জানতে চাইলাম কেন পাব না, ওরা বললো দিয়ে দিবে। কিন্তু মাস শেষ হওয়ার পর দেখা গেল বোনাস দেয় নাই। তখনও এরকম ঝগড়া করে বোনাস আনতে হয়েছে। আমার বিটিআরসি ইচ্ছে করলে আমার ৩টি নাম্বারের কল রেকর্ড যাচাই করে দেখতে পারে ওরা কত বড় প্রতারক।

      ১১.১
  10. জিতু আহসান বলেছেনঃ

    আমি ইউকে তে তিন বছর ধরে আছি। সিম্প্লি ওদের কাস্টমার সার্ভিস সম্পর্কে বলি। আমি এখানে 02 এর সিম ইউজ করি। ওদের কাস্টমার সার্ভিস উইদিন 2 মিনিট তারা পিকআপ করে কল্ল গুলো র সলিউশন কী বলব অসাধারণ । আর ওদের দেয়া মোবাইল এর কোন প্রবলেম হলে ইন্সট্যান্ট কম্পিউটার এ অ্যাক্সেস নিয়ে ফিক্স করে দেয়। এই কোম্পানী আমাদের ফ্রী মোবাইল দেয় জুষ্ট কন্ডিশন 1 টা । ওদের সাথে 2 বছর ফিক্সড কনট্রাক্ট এ থাকতে হবে। আমি অ্যাপল এর 4 পেয়েছিলাম 2 বছর আগেই ফ্রী ঐ 02 থেকে। 2 বছর পর ওর আইফোন 5 দিল মাত্র পঞ্চাশ £50 টাকা অতিরিক্ত কাটলো। বিনিময়ে আনলিমিটেড কথা বলা, আনলিমিটেড এসএমএস যে কোনও অপারেটর এ & আনলিমিটেড ইন্টারনেট ফ্রী। আর আমার মোবাইল এ প্রবলেম হবার পর অ্যাপল এ গেলাম কাস্টমার সার্ভিস থেকে বলল- ‘ উড ইউ মাইন্ড, ইফ আয় গিভ ইউ এ নিউ মোবাইল ইন্সটেড অফ দিস ওয়ান? ” আমি অবাক আমার ওল্ড mobile নিয়ে নিউ 1টা মোবাইল দিয়ে দিল। তখন ভাবতেছিলম আমাদের দেশের কাস্টমার সার্ভিস এর কথা। কী রুব্বিশ আমাদের সার্ভিস আর কী নাইস হতে পারে কাস্টমার সার্ভিস। কখনো লিখি নাই আজ নিউ৛ টা পড়ে মন চাইল share করতে। ভাই আফসোস করে কী হবে ? আমাদের দেশ এর সবকিছু এ অখন এমন হয় যাইতসে। আল্লাহ এ ভাল জানে কবে এগুলু ঠিক হবে।

    ১২
  11. মোত্তালিব দরবারী বলেছেনঃ

    অনেক লড়াই সংগ্রামের পর অবশেষে আজ সিটিসেল ফেরত দিল আরো ৫৭টাকা।

    আজ সন্ধা ৫.৫২ মিনিটে সিটিসেল থেকে ফোন দিল আমাকে-জানাল আপনার অব্যবহৃত মেগাবাইটের সমপরিমান ৫৭টাকা আপনার একাউন্টে ফেরত দেওয়া হয়েছে। আমি বল্লাম ধন্যবাদ।
    সেই সাথে ইহাও বল্লাম যে শুধু আমার টাকা ফেরত দেওয়া নয়, পাল্টাতে হবে আপনাদের নিয়ম। কোন গ্রাহক কোন কারণে রিম পাল্টালেও যেন তার অব্যবহৃত মেগাবাইট মেয়াদ সহ দেওয়া হয়। বললো ঠিক আছে।
    আপনাদের সকলের নিকট দাবী কেউ আপনার পাওনা ছাড়বেন না। আমার মত লড়াই করুণ জয় আমাদের হবেই।

    ১৩
  12. মোহাম্মদ সাইফুল ইসলা বলেছেনঃ

    সিটিসেল আসলে সিটিংসেল । আমার ক্ষেত্রে ও এই ঘটনা হয়েছে । আমি আলট্রা ১ প্যাকেজ একটিভেট্ করলাম যথারীতি টেকনিকেল সমস্যার কারণে আমার ৩২০ টাকা গায়েব। তারপর কাষ্টমার কেয়ারে যাওয়া , তারা আমার মেসেজগুলো ডিলিট করে দিয়ে বলেন আপনার কমপ্লেইন কাষ্টমার কেয়ার এ মেইল করা হলো পরে টাকা আর ফেরত দেয়নি তারা চোর বাটপার। কিন্তু কি আর করা এ দেশে সব সম্ভব এবং চোরদের মধ্যেই সংগ্রাম করে বাচতে হয় বলে মেনে নিলাম

    ১৪

কিছু বলতে চান? লিখুন তবে ...