ক্যাটেগরিঃ ব্যক্তিত্ব

 

গত আমেরিকার ইলেকশনে বিষয়টি সামনে চলে এলো, যখন প্রথম মহিলা হিসাবে হিলারী ক্লিনটন হোয়াইট হাউজে যেতে চলেছিলেন। প্রেসিডেন্টের বৌ ‘ফার্স্ট লেডি’ হলে প্রেসিডেন্টের স্বামী কি হবে? উত্তর- ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’।

বাংলাদেশ রাষ্ট্রপতি শাসিত নয় বরং মন্ত্রীপরিষদ শাসিত। এবং ১৯৯১ সাল থেকে ২০১৭ পর্যন্ত ২ বছর ৯ মাস বাদ দিলে অবশিষ্ট সময়টায় প্রধানমন্ত্রী ছিলো মহিলা, তাই আমি আগ্রহী তাদের স্বামী ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’ নিয়ে। তবে তার আগে আমি একটু ঘুরে আসতে চাই পাকিস্তান থেকে-
২ ডিসেম্বর’৮৮ পাকিস্তানের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী এবং দেশের ১২ তম প্রধানমন্ত্রী হন বেনজির ভুট্টো। সে হিসাবে পাকিস্তানের প্রথম ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’ ধরতে হবে বেনজির ভুট্টোর স্বামী আসিফ আলী জারদারীকে।
আমি এবার বাংলাদেশে ফিরছি-
২০ মার্চ’৯১ বাংলাদেশের প্রথম মহিলা প্রধানমন্ত্রী এবং দেশের ১০ম প্রধানমন্ত্রী হন বেগম খালেদা জিয়া। দুঃখজনক ভাবে উনার স্বামী ছিলেন প্রয়াত তাই প্রধানমন্ত্রীর স্বামী বা ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যানের’ জন্য বাংলাদেশকে অপেক্ষা করতে হয় আরো ৫ বছর।
২৩ জুন ১৯৯৬ বাংলাদেশের দ্বিতীয় মহিলা প্রধানমন্ত্রী ও দেশের ১২ তম প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা। ফলে দেশ পায় প্রথম ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’- ডক্টর ওয়াজেদ মিয়া।
বেনজির ভুট্টোর সাথে শেখ হাসিনার তুলনা হতে পারে তাদের কয়েকটি সাদৃশ্য ও একটি বৈসাদৃশ্যের কারনে-
উনারা দুই জনেই দুই দেশের ১২ তম প্রধানমন্ত্রী। উভয়ের কারনেই দুই দেশ পেয়েছে প্রথম ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’।
বেনজির ভুট্টোকে বলা হয় ‘ডটার অব দ্যা ইস্ট’।
শেখ হাসিনাকে তার দলীয় কর্মীরা বলে- ‘ডটার অব পিস’
 তবে বৈসাদৃশ্য হলো- তাদের মাধ্যমে আসা ‘ফার্স্ট জেন্টেলম্যান’ দের ভূমিকায়।
বেনজির ভুট্টোর স্বামী আসিফ আলী জারদারী স্ত্রী সুত্রে ক্ষমতার কাছাকাছি এসে নিজেই ক্ষমতায় ভেসেছেন এবং ডুবেছেন। এর ফলে পাকিস্তানে তার নাম হয়ে যায় ‘মিস্টার টেন পার্সেন্ট’
অন্যদিকে শেখ হাসিনার স্বামী ডক্টর ওয়াজেদ মিয়্যা, ক্ষমতার এত কাছে থেকেও নিজেকে রেখেছেন দূরে। তিনি নামীয় ফার্স্ট জেন্টেলম্যান না হয়ে বাস্তবিক জেন্টেলম্যান হয়েছিলেন। এখানেই আমার আগ্রহ।
গতপরশু ছিলো এ বিরল ভদ্রচরিত্রের অধিকারী ডক্টর ওয়াজেদ মিয়ার জন্মদিন। বিলম্বিত শুভ জন্মদিন মিস্টার ফার্স্ট জেন্টেলম্যান।