ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

বেশ কদিন ধরে পত্রিকায় মৃত্যু, হত্যা, যৌননিপীড়ন, আর ধর্ষনের রিপোর্ট দেখতে দেখতে অনুভূতি গুলো ভোঁতা হয়ে গেছে! এখন মনে হয় অসুস্থ্য এ সমাজে ধর্ষন বা যৌন নিপীড়নই একমাত্র বিনোদন! আর মৃত্যু বা হত্যা স্বাভাবিক নিয়তি!

মিরসরাইয়ে যে এতগুলো প্রান ঝড়ে গেলো, তা কি শুধুই দূর্ঘটনা নাকি চালক রূপী হেলপার কিম্বা হেলপার রূপী যমদূতের সুনিপুণ কাজ! আমিনবাজারে ডাকাত সন্দেহে আঘাতে আঘাতে যে ছয় ছাত্রে করুন মৃত্যু হলো তা কি এলাকাবাসীর নিরপত্তা সচেতনতা নাকি উত্তেজনার আতিসাজ্জে বিকেকহীনতা! এতো হত্যা! বিকৃত চিন্তায় হত্যা! তবুও অবাধ্য মন কিছু যদির মাঝে বন্দি হয়ে যায়…….। যদি মিরসরাইয়ে সেই ট্রাকটা চালক চালাতো, তাহলে হয়তো এতোগুলো প্রান ঝড়তো না।

যদি আমিনবাজারে একজন এলাকাবাসীরও অনুভূতি কাজ করতো, তাহলে হয়তো শবে বরাতের রাতে সেই ছয় ছাত্রের ভাগ্যলিপি অন্যভাবে লেখা হতো! কিন্তু যখন পত্রিকায় পড়ি- “খুনিকে রাষ্ট্রপতির ক্ষমা”, লক্ষীপুরের নুরূল ইসলাম হত্যা মামলার ফাঁসির দণ্ডাদেশ পাওয়া আসামি এ এইচ এম বিপ্লবকে রাজনৈতিক বিবেচনায় ক্ষমা করেছেন রাষ্ট্রপতি! তখন আমার চিন্তাকে আর কোনো যদির মাঝে বন্দি করতে পারি না। এটাও তো হত্যা! সামাজিক শৃংখলা হত্যা, বিচারপ্রার্থী সমাজকে হত্যা, বিচার ব্যবস্থাকে উপর্যুপরি ধর্ষন ও হত্যা!

মিরসরাইয়ের সেই চালক তো ছিলো- চালকরূপী হেলপার। আমিনবাজারে এলাকাবাসীর তো লোপ পেয়েছিলো বিচারবোধ।

কিন্তু মহামান্য রাষ্ট্রপতি, আপনি কী? আপনিও কি রাষ্ট্রপ্রতি রূপী সেই হেলপার? বয়সের ভারে আপনার ও কি লোপ পেয়েছে বিচারবোধ? আপনি কি মাতৃপ্রধান পরিবারের অসহায় পতি নাকি সেই ঘরজামাই, যার কোন ব্যক্তিত্ব থাকতে নেই! কৃতজ্ঞতায় যাকে শশুরবাড়ীর অনেক অন্যায় আবদার মাথা পেতে নিতে হয়! রাষ্ট্রপতি পদের কৃতজ্ঞতায় কি রাজনৈতিক বিবেচনায় মাথা পেতে সই দিতে হবে? নাকি আপনি সংসদীয় গণতন্ত্রের শোভা বর্ধনকারী অলংকার, পুতুল নাচের পুতুল-”যেমনে নাচাও তেমনে নাচি পুতুলের কি দোষ”!

মহামান্য রাষ্ট্রপতি হয়তো আমারি ভুল! আপনি তো ধারাবাহিকতা রক্ষা করেছেন, আপনার পূর্বে যিনি এ পদে ছিলেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি ইয়াজউদ্দিন আহম্মেদ, তিনিও দলীয় বিবেচনায় কানাডা প্রবাসী জিন্টুকে ক্ষমা করেছিলেন। হয়তো রাষ্ট্রপতি হলেই ক্ষমার আধার হতে হয়! ব্যক্তিত্ব বিসর্জন দিয়ে শোভাবর্ধনকারী অলংকার হতে হয়! ইয়াজউদ্দিনকে ইয়েস উদ্দিন হতে হয়! জিল্লুর রহমানকে হতে হয় জি হুজুর রহমান!
প্লিজ, রাষ্ট্রপতি পদকে আপনারা ইয়েস আর জি হুজুরের মাঝে বন্দী করবেন না। ব্যক্তিত্ব বিসর্জন দিয়ে পুতুল হবেন না।

আপনাদের পূর্বে এ পদে ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, সৈয়দ নজরুল ইসলাম, জিয়াউর রহমান, সাহাবুদ্দিন আহম্মেদের মতো ব্যক্তিরা। প্লিজ রাষ্ট্রপতি পদকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তাদের ছোট করবেন না….প্লিজ….প্লিজ….!


৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. আশার আলো বলেছেনঃ

    অনেকেই বলবেন আগের সরকারও এমন কাজ করেছে খুনীদের ক্ষমা করে। কিন্তু এ সরকার দিন বদলের কথা দিয়ে এসেছে, আমরা হয়েছি প্রতারিত ।আমরা তরুনরা ভোট দেয়েছি দিনবদলের আশায়ো,আগেকার সরকার যা করেছে সেটা অনুসরন করার জন্য নয়।

  2. zahirul বলেছেনঃ

    একটু সময় পেলে ব্লগে ঢুঁ মারি আর লেখাগুলো পড়ে নেয়ার চেষ্টা করি। আপনার লেখা ও মন্তব্যের দৃষ্টিভঙ্গি আমার নজর কেড়েছে। লেখা চালিয়ে যান। সত্যি অসাধারণ আপনার লেখা।

কিছু বলতে চান? লিখুন তবে ...