ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

 

standing-straight

প্রায় প্রতি মাসেই আমেরিকার কোনো না কোনো শহরে শেতাঙ্গ পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ মারা যাবার ঘটনা নিত্য নৈমত্তিক একটা ব্যাপার কিন্তু এই ইস্যু নিয়ে এই দেশের বেশির ভাগ মানুষের তেমন একটা ভ্রূক্ষেপ নেই যদিও প্রতিটি পুলিশের কোমরের বেল্টে পিস্তলের ঠিক ছয় ইঞ্চি পেছনেই একটা ইলেক্ট্রিক গান থাকে চাইলেই এই ইলেকট্রিক গান ব্যবহার করে রীতিমতো মেরে ফেলা থেকে বাঁচাতে পারে এখানকার পুলিশরাকিন্তু এই সহজ কাজটি এখানকার পুলিশরা খুব একটা করতে চায় না আমার জানা মতে এই ধরনের হত্যার জন্য কোন পুলিশের এখনো চাকরি পর্যন্ত যায়নি এখন ভাববার বিষয় হলো যে দেশে ট্রাম্পের মতো প্রেসিডেন্টকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দেবার উপক্রম সেখানে কেন পুলিশের এই আচরণে প্রশাসন কিছু করে না?

নিউইয়র্ক বা লন্ডনের মতো কসমোপলিটন শহরে দুনিয়ার নানা জাতের মানুষের বসবাস আফ্রিকান জাপানি ইন্ডিয়ান চাইনিজ নানা জাতের মানুষের চেহারার গঠন আর শারীরিক আচারআচরণ বেশ ভিন্ন এতটাই ভিন্ন যে এখানকার আফ্রিকান মাইগ্রান্টদের আচারআচরণ দেখলে আমার আপনারও ভয় লেগে যেতে পারে তবে এরা বেশির ভাগই নিরীহ সমস্যা একটাই যখন কোনো আফ্রিকান মাইগ্রান্টকে পুলিশ হাত তুলে দাঁড়াতে বলে তখন সে দৌড়ানো শুরু করে ঠিক কি কারণে এরা দৌড়ায় এটা কারোরই জানা নেই আর পুলিশের কাজ দৌড়ানো মাত্র গুলি করা এখন উপড় থেকে ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করলেও কোনো ভাবেই পুলিশকে দোষ দেয়া যাবে না কারণ এখানকার পুলিশ যখন কাউকে থামতে বলে তখন হাত পর্যন্ত নাড়ানো যায় না, দৌড়ানো তো দূরের কথা এই পর্যন্ত যত কৃষ্ণাঙ্গ নিরীহ মানুষ শেতাঙ্গ পুলিশের গুলিতে মারা গেছে প্রায় সবাই অযথাই দৌড়ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ হারিয়েছে

সাম্প্রতিক সময়ে দেশে জঙ্গি দমনের নানা ভিডিও নিয়ে নানা মহলের নানান মন্তব্য রয়েছে অনেকে একে সাজানো নাটক বলে মানছেন কিন্তু একই ধরনের অপরাধ এর দমন তো প্রায় একই রকম হবে, তাই না? পুলিশ বা সোয়াট- এরা তো একই রকম ভাবেই জঙ্গি দমন করবে কারণ, আমেরিকার কালোদের মতো আমাদের দেশের জঙ্গিরাও ঠিক কি কারণে সবসময় আত্মঘাতী হচ্ছে তা বোধগম্য নয় চাইলেই নিজে মারা না গিয়েও অন্যের ক্ষতি সাধন করা যেতে পারে আরো একটা ব্যাপার হচ্ছে আমাদের ভাববার দৃষ্টিভঙ্গি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যা করছে এরপর মৃত জঙ্গিদের পক্ষে কি কেউ কিছু বলছে বা তাদের আত্মীয় স্বজনরা কি বলছেন যে তাদের প্রতি অন্যায় হয়েছে? যদি মানেন এরা সবাই জঙ্গি তাহলে প্রশাসনের পদক্ষেপকে অন্তত উল্টো চোখে দেখা উচিত নয় ভিডিও ফুটেজে যদি দেখা যেত জঙ্গিরা সুইসাইডাল ভেস্ট পরে বসে আছে আত্মসমর্পন করার জন্য তাহলে কি পুলিশের উচিত হতো জঙ্গিদের কাছে যাওয়া?

ভিন্নমত থাকতেই পারে এটা গণতন্ত্রের জন্য ভালো মানুষের জীবনের অধিকার নিয়ে কথা বলাই তো মানবিকতা তবে ঠিক আমরা যেভাবে জঙ্গি দমন অপেরেশন গুলোকে দেখি যারা আর্মি বা পুলিশের মাঝে আছেন তারা ওই ভাবে দেখেন না কারণ আমার আপনার অফিসের কাজের ধরন যেমন একজন আর্মি অফিসার সঠিক ভাবে বুঝবে না, আমরাও একজন আর্মি অফিসার এর কোড বা নিয়ম নীতি বুঝবো না যারা বাংলাদেশ আর্মিতে কমিশন পদের জন্য আবেদন করছেন তারা জানেন আবেদনের প্রথম দিন কি নিদারুণ অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হয় প্রতিটি আবদেনকারীকে যা ওই দিন হয় তা যদি সাধারণ কোনো মানুষকে বলা হয় তাহলে সাথে সাথেই এই প্রক্রিয়াকে প্রচন্ড অমানবিক বলে লেখালেখি শুরু করে দেবেন যা আমার আপনার কাছে নিয়ম লঙ্ঘন তা অন্যের কাছে হয়তো নিয়ম এটাই ব্যালান্স অফ ডেমোক্রেসি সবাই সব কাজ করবে না একজন কবির কখনো কমান্ডো হবার স্বপ্ন দেখা উচিত নয় কারণ এতে রোল কনফ্লিক্ট হতে পারে

টাকাপয়সার দিক থেকে মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলো বেশ ধনী কিন্তু উন্নত দেশের তালিকায় এই দেশগুলোর নাম নেই এর কারণ টাকাপয়সা গুলোর সমবন্টন নেই এই দেশ গুলোয় একটা দেশের উন্নত হবার পেছনে টাকাপয়সার সমবন্টন যেমন প্রয়োজনীয় ঠিক তেমনি জ্ঞানের সমবন্টনও প্রয়োজন অর্থাৎ দেশের সবাই যখন এক সাথে একই চিন্তা করতে পারবে ঠিক তখনি একটা দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে যেমন আমেরিকা বা ইউরোপে বেশির ভাগ মানুষ মোটামুটি একই রকম ভাবে ভাবতে পারে একই রকম ভাববার জন্য জানতে হয় ভাববার নিয়মকানুন যদি সাধারণ নিয়মকানুন এবং রোল ডেফিনেশন জানা থাকে তাহলে কখনোই অন্য কারো দায়িত্ব নিয়ে গল্প বানানোর চিন্তা মাথায় আসবে না

07_Operation+Twilight_Sylhet_250317_0006

সম্ভবত সাধারণ মানুষের পক্ষে এই অসাধারণ গল্পগুলোকে হজম করতে সমস্যা হচ্ছে মানুষের চিন্তাধারার সীমাদ্ধতা তার বেড়ে উঠার পরিবেশের উপর নির্ভর করে প্রায় সব সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা সটান বা মেরুদণ্ড একেবারে সোজা করে হাটতে পারে যেখানে বেশির ভাগ আমরা (সাধারণ লোক) এখনো সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারি না একটু লক্ষ করলেই দেখবেন আমাদের বেশির ভাগ যখন দাঁড়ায় তখন একটু হেলে থাকি একটু হেলে থাকা মানুষের পক্ষে সটান দাঁড়িয়ে থাকা মানুষের মতো চিন্তা করাটা এতো সহজেই হবার কথা নয়

ধন্যবাদ সটান দাঁড়াতে পারে এই মানুষ গুলোকে আর যারা এখনো জঙ্গি দমন গল্পের নানা দিক ব্যাখ্যা করে চলছেন তাদের বলছি, আয়নায় আগে দেখুন আপনি যখন দাঁড়ান তখন বেঁকে থাকেন কিনা? মেরুদণ্ড সোজা করে দাঁড়িয়ে থাকা এতো সহজ কাজ নয় চেষ্টা করে দেখতে পারেন