বিভাগের নাম- প্রথমত কুমিল্লা, দ্বিতীয়ত কুমিল্লা

/

কুমিল্লা নামকরণ কথিত ইতিহাস ভাষাতত্ত্ব ও প্রত্নতত্ত্ব গবেষকগণের মত অনুসারে, এখানে কলিঙ্গ দেশের সাথে একটি প্রাচীন রাজ্যের গোড়াপত্তন হয়েছিল একদিন, যার নাম ছিল কমলিঙ্ক। কমলিঙ্ক রাজ্যটি পরে ব্রাহ্মণ্য প্রভাবধীনে এসে কমলাঙ্ক নাম ধারণ করে। খৃষ্টীয় সপ্তম শতকের দিকে দ্বিতীয় দশকে চৈনিক পরিব্রাজক যূয়ান চোয়াং তাঁর ভ্রমণ কাহিনীতে ‘কিয়ামলংকিয়া’ নামক একটি স্থানের নাম উল্লেখ করেন। কারো… Read more »

ইতিহাস-ঐতিহ্য আর সম্ভাবনার শহর ব্র্যান্ডিং জেলা চাঁদপুর

/

“রৌদ্রজ্জ্বল রূপালী ইলিশ নয়, নয় বেশী দূর, এখানে এলেই দেখা পাবে তার, এই সেই চাঁদপুর। ভাঙনের মুখে বিপন্ন তবু হৃদয়ে আশার সুর, এই সেই চাঁদপুর।” বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেতের উক্তি। ইতিহাস-ঐতিহ্যের শহর চাঁদপুর। ১৭৭৯ খ্রিঃ ব্রিটিশ শাসনামলে ইংরেজ জরিপকারী মেজর জেমস রেনেল তৎকালীন বাংলার যে মানচিত্র এঁকেছিলেন তাতে চাঁদপুর নামে এক ছোট্ট জনপদের নাম… Read more »

ঢাকাই মসলিনঃ বাস্তবের রূপকথা

/

বাল্যকালে একটি পাঠ্য বইয়ে পড়েছিলাম, ঢাকার সোনার গাঁয়ের তৈরি মসলিন কাপড় এত বেশি মিহি হত যে সত্তর হাত লম্বা একটি মসলিন শাড়ি নাকি কয়েক ভাঁজ করে একটি আংটির ভিতর দিয়ে বের করা যেত। তবে মসলিন সম্পর্কে আমার জ্ঞান তখন ঐ পর্যন্তই সীমাবদ্ধ ছিল। বাঙালিরা তাদের হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্যের যে সামান্য কিছু বিষয় বা বস্তু নিয়ে… Read more »

জামালপুরের ঐতিহ্যবাহী কারুকার্যপূর্ণ শ্রী শ্রী রীঁ দয়াময়ী মন্দির

/

জামালপুর পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত সনাতন (হিন্দু) ধর্মাবলম্বীদের কারুকার্যপূর্ণ ধর্মীয় দর্শনীয় অন্যতম প্রতিষ্ঠান শ্রী শ্রী রীঁ দয়াময়ী মন্দির। আজ থেকে প্রায় সাড়ে তিনশ বছরের পুরাতন এ মন্দির। তত্কালীন নবাব মুর্শিদকুলি খাঁ এর আমলে মন্দির প্রতিষ্ঠা করেছিল ময়মনসিংহ জেলার তত্কালীন ঈশ্বরগঞ্জ থানার অন্তর্গত বর্তমানে গৌরিপুর রামগোপালপুর জমিদারের জমিদারি জাফরশাহী পরগণার জায়গীরদার শ্রী কৃষ্ণ রায় চৌধুরী। মন্দিরটি ১৬৯৮ইং… Read more »

হারিয়ে যাচ্ছে বাঙালির ঐতিহ্যবাহী পালকির প্রচলন!

/

পালকির কথা শুনলেই নতুন প্রজন্মের ধারকরা হা করে তাকিয়ে থাকেন। ‘পালকি চলে, পালকি চলে গগন তলে আগুন জ্বলে, স্তব্দ গায়ে,আদুল গায়ে যাচ্ছে তারা রৌদ্র সাড়া।’ কিংবা, ‘মনে কর জেনো বিদেশ ঘুরে মাকে নিয়ে যাচ্ছি অনেক দূরে, তুমি যাচ্ছ পালকি তে মা চড়ে।’ বইয়ের পাতায় পালকির কথা আজো উল্লেখ থাকলেও বাস্তবিক সমাজে দেখা মেলেনা পালকির! সভ্যতার… Read more »

পাকিস্তানে ‘শান্তি’ নয়, ‘বুদ্ধ’  ফিরে এলেন নয় বছর পর

/

আজ থেকে প্রায় ২০০০ বছর আগের কথা । প্রাচীন গ্রিক ভাস্কররা অনুপ্রাণিত হলেন এবং স্বেচ্ছায় নিয়োজিত হলেন বুদ্ধমূর্তি নির্মাণে । এই ঘটনা পরবর্তীতে ভারতবর্ষে জন্ম দিল  ‘গান্ধার’ নামে এক অভূতপূর্ব শিল্পরীতি । এটি ছিল মূলত ভারতীয় বুদ্ধ’র সাথে গ্রিক শিল্পরীতির এক মিশ্রণ । বর্তমান পাকিস্তানের পেশোয়ার ও রাওয়ালপিন্ডিতে অবস্থান ছিল প্রাচীন গান্ধার রাজ্য। গান্ধারের রাজধানী… Read more »

শাহের হেরেম ও আমার শখ

/

ছোটবেলা থেকেই রাজা বাদশা আর তাদের হেরেমখানার গল্প শুনে শুনে এমন মজে গেছিলাম যে, আমিও মনে মনে লালন করতাম, আহা! হেরেম খানা! পারলে আমিও একটা বানিয়ে দেখাবো, একদিন! কিন্তু গত পরশুদিন হটাৎ করেই আমার হেরেমখানার স্বপ্নখানা নাই হয়ে গেছে- বলেন তো কেন? আসেন তার আগে কিছু ছবি দেখে নেই- এটা হচ্ছে- মাদার অব অল সেলফি… Read more »

শীতের পিঠা শীতের আগেই ঘরে ঘরে, পথে পথে

/

অফিসিয়ালি শীতকাল শুরু না হলেও শীতের শাক-সব্জির ঘ্রাণে নগরের কাঁচা বাজারগুলো ম ম। শীতের সবজি এমন একটিও নেই যা হেমন্তের বাজারে মেলে না। আবার পথের ধারে সন্ধ্যার পর থেকেই পিঠা-পুলির ভ্রাম্যমাণ দোকানগুলোতে ব্যস্ততা অনেক। সন্ধ্যার পর পথে পথে পিঠার ঘ্রাণ। শীতেও সব্জির সাথে শীতের পিঠাও এখন পৌষের অনেক আগেই পাওয়া যায়। . রাস্তার ধারে ভ্যানের… Read more »

কুমিল্লার ‘মাতৃ ভাণ্ডার’ রসমালাই, একটি বিশ্বরেকর্ড এবং জিআই নিবন্ধন

/

১৪৯৮ সাল। সম্পূৰ্ণ সাগর পথ পাড়ি দিয়ে ভারতে এসে উপস্থিত হলেন ইতিহাসের প্ৰথম ইউরোপিয়ান পর্তুগীজ নাবিক ভাস্কো-দা-গামা। ভারতে দলবল সহ তিনি অবস্থান করেছিলেন ১৫০৩ সাল পর্যন্ত। সাগরে ঘুরে ঘুরে যারা সভ্যতার নতুন নতুন দিগন্ত উন্মোচন করে চলছেন, দুধের সাথে একটু টক দিলেই যে দুধ  ছানা হয়ে যাবে- এই সিম্পল টেকনোলোজি তাদের না জেনে থাকবার কোন কারণ… Read more »

গঞ্জের রেল স্টেশন

/

ছোটবেলায় দেখতাম উনিয়া দিয়ে মাছ ধরতো। উনিয়া মানে হলো বাঁশ দিয়ে তৈরী একপ্রকার মাছ ধরার ফাঁদ। স্রোতের বিপরীতে মাটিতে রাখা হতো। মাছ একবার ঢুকলে আর বের হতে পারতো না। বিশেষ করে আষাঢ় মাসে কৃষকরা সন্ধ্যায় উনিয়া নিয়ে বের হতো। ধানক্ষেতও দেখে আসতো সাথে এটাও পানির স্রোতে রেখে আসতো। সকালে মাছ সহ উনিয়া নিয়ে আসতো। এজন্যে… Read more »