টিকে থাকবে কি জামদানির ঐতিহ্য?

/

প্রাচিনকাল থেকেই বাংলাদেশের জামদানি শাড়ি অত্যন্ত শিল্পগুণ সম্পন্ন এবং সমাদৃত। বলা হয়, যিশুখ্রিস্টের জন্মের পূর্ব থেকেই বাংলার ভূখণ্ডে জামদানির কাঁচামালের প্রাচুর্য ছিল,সেই সাথে জামদানি শাড়ি তৈরির অনূকুল আবহাওয়া, শিল্পীদের বুনন্ শৈলী আর একদল জনগোষ্ঠীর শ্রমশক্তির সম্মিলিত প্রয়াসে ধীরে ধীরে বাংলাদেশের তৈরি এ শাড়ি বিশ্বখ্যাতি লাভ করে। পূর্বে বিভিন্ন দেশের মনীষীরা বাংলার জামদানি শাড়ির ভূয়সী প্রশংসা… Read more »

ভুত উৎসব ‘হ্যালুইন’: থ্রি লেগেড লেডি রোড!!!!!

/

বছর ঘুরে আবার এসেছে ‘হ্যালুইন’ উৎসব, সহজ ভাষায় যাকে বলা হয়, ‘ভুত উৎসব’। এই উৎসবের মূল ভাবনানুযায়ী, এই দিনে সমস্ত মৃত আত্মারা পৃথিবীর বুকে নেমে আসে, নিকটজনের সান্যিধ্য লাভের আশায়। সবার মাঝে থাকার বাসনা নিয়ে এরা আসে, কিনতু পৃথিবীর মানুষ সেটা কোনভাবেই হতে দিতে চায় না। এই দিনে সকলেই যার যার বাড়ী ঘরের সামনে ‘ল্যান্টেন’… Read more »

অযত্ন অবহেলায় ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে পাকুটিয়ার নান্দনিক জমিদার বাড়িগুলো

/

কলকাতা ভিক্টোরিয়া প্যালেস, ফোর্ট উইলিয়াম দূর্গ ও কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের নান্দনিক সৌন্দর্য্যের মিশেলে ১৯১৫ সালে গড়া তিন ভাই ব্রজেন্দ্র-উপেন্দ্র-যোগেন্দ্র মোহনের জমিদার বাড়িগুলো অযত্ন অবহেলায় আজ ধ্বংসের পথে। যেখানে কলকাতার স্থাপনা গুলো সে দেশের সরকারের তদারকিতে লক্ষ লক্ষ পর্যটকের পদচারনায় মুখর সেখানে আমাদের দেশের একই ধরনের স্থাপনা গুলোর বেহাল অবস্থা। স্থানীয় অধিবাসীদের সাথে কথা বলে জানা গেল… Read more »

মামন উকিলের মসজিদ: প্রাচীন স্থাপত্যের এক অনুপম নিদর্শন

/

গত ২৯/১০/২০১০ ইংরেজি তারিখ এক আত্মীয়ের অনুরোধে তাকে সঙ্গ দিতে সিলেট জেলার ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার আশিঘর নামক গ্রামে যাওয়া। নাতি উঁচু টিলায় ঘেরা উপজেলার প্রায় প্রতিটি গ্রাম। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক অপরূপ লীলাভূমি এ উপজেলার প্রতিটি গ্রাম। হাকালুকি হাওরের তীর ঘেষা একটি গ্রাম আশিঘর। গ্রামের যে বাড়িতে আমাদের যাবার কথা সে বাড়িটিও একটি টিলার ওপর। পাশেই আরেকটি… Read more »

সেনতিনেলিজ: অজানা একটি সম্প্রদায়

/

বেশ কয়েক বছর আগে কোনো এক পত্রিকায় পড়েছিলাম আমাজন জঙ্গলের এক যোগাযোগবিহীন জাতির সম্পর্কে। পড়ে অবাক হয়ে ছিলাম একবিংশ শতাব্দীতেও এমন জাতি আছে যাদের আধুনিক সভ্যতার ছোয়া লাগেনি বিন্দুমাত্র!!! গতরাতে লিংক ধরে খুঁজতে গিয়ে বিস্মিত হই, এমন জাতি এই পৃথিবীতে শতেরও উপর!!! যাদের সাথে আধুনিক মানুষ এখনও যোগাযোগ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে! খুঁজতে গিয়ে দেখি… Read more »

উপজাতীয় ভাষা (প্রথম খণ্ড)

/

বাংলাদেশের ত্রিশটির বেশি উপজাতির বসবাস। তারা প্রধানত রাজশাহী, চট্টগ্রাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম, বৃহত্তর ময়মনসিংহ, সিলেট, পটুয়াখালী, বরগুনা এ অঞ্চলগুলোতে বসবাস করছে। বাংলাদেশে ২০-৩০ লক্ষ উপজাতীয় জনগোষ্ঠী তাদের নিজ নিজ ভাষায় কথা বলে। তবে কিছু ব্যতিক্রমও আছে। উপজাতীয় ভাষাগুলোর মধ্যে ওরাওঁ, খাসিয়া, গারো, চাকমা, মগ, মনিপুরী, মুণ্ডা ও সাঁওতালি উল্লেখযোগ্য। এছাড়া কাচারি, কুকি, তিপরা, মালপাহাড়ী, মিকির, শাদ্রি,… Read more »

১ বঙ্গাব্দ

/

অনেকেই বলেন বাংলা সন বা সাল গণনা অনেক পরে শুরু হয়েছিল তাই ১ বঙ্গাব্দ বলে কিছু ছিল না। বাংলা পঞ্জিকা গণনা গনিতের সকল নিয়ম মেনেই গণনা করা হয়। তাহলে উল্টো গণনা করলে ১ম বর্ষ থাকবেনা কেন? খ্রীস্টাব্দ, যীশু খ্রীষ্ট জন্মের অনেক পরে শুরু হলেও আমরা জানি কখন ১ম খ্রীস্টাব্দ ছিল বা ২১০ খ্রীষ্টপূর্বাব্দ কখন তা… Read more »

কান্তজিউ মন্দির-দিনাজপুরঃ স্থাপত্য শৈলী ও পোড়ামাটির ফলকে উৎকীর্ণ পৌরানিক কাহিনী (সমাপ্তি পর্ব-১১)

/

এক নজরে টেরাকোটা প্যানেলসমূহ : কান্তজিউ মন্দিরে মুলত রামায়নে বিবৃত রাম ও কৃষ্ণের ঘটনাবলী ধারাবাহিকভাবে চিত্রায়িত হয়েছে। তবে মহাভারতে বর্ণিত কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের অংশটি কৃষ্ণের ঘটনাবলী উৎকীর্ণের পরিপ্রেক্ষিতে এখানে আনা হয়েছে। নিম্নে মন্দিরের প্রতিটি দিকের প্যানেল ভিত্তিক সংক্ষিপ্ত পরিচয় তুলে ধরা হলো। মন্দিরের দক্ষিণ ডান ব্লকের (ডান থেকে বাম) প্যানেল ১ থেকে প্যানেল ২৫ পর্যন্ত, দক্ষিণ… Read more »

কান্তজিউ মন্দির-দিনাজপুরঃ স্থাপত্য শৈলী ও পোড়ামাটির ফলকে উৎকীর্ণ পৌরানিক কাহিনী (পর্ব-১০)

/

সমসাময়িক জীবনচিত্র ও পৌরাণিক কাহিনী : উভয়বোলতা কান্তজিউ মন্দিরের বিভিন্ন টেরাকোটায় মধ্য যুগের শেষ দিকে বাংলার সামাজিক জীবনের নানা কাহিনী বিবৃত রয়েছে। উদাহরণ হিসেবে ধরলে বলা যায় যে, মন্দির গাত্রের দক্ষিণ পূর্ব কোণের ডান দিকে নিচে পোড়ামাটির ফলকে সমসাময়িক সমাজ জীবনের কাহিনী বর্ণিত আছে (ফলক চিত্র-২২)। সেখানে দেখা যাচ্ছে যে, একজন অভিজাত ব্যক্তি বা তাঁর… Read more »

কান্তজিউ মন্দির-দিনাজপুরঃ স্থাপত্য শৈলী ও পোড়ামাটির ফলকে উৎকীর্ণ পৌরানিক কাহিনী (পর্ব-০৯)

/

পোড়ামাটির ফলক চিত্রঃ শ্রী কৃষ্ণের জীবন ও কর্ম- কান্তজিউ মন্দিরে রামায়ণের পাশপাশি কৃষ্ণের জন্ম থেকে শুরু করে কুরুক্ষেত্র যুদ্ধ পর্যন্ত কাহিনী বিবৃত হয়েছে। কৃষ্ণ হচ্ছেন বিষ্ণুর নবম মানবীয় রূপ, যার আগমণ ঘটে বিভিন্ন অপদেবতার বিনাশ সাধন করতে। গ্রাম্য জনগোষ্ঠী যদবদের মধ্য থেকে কৃষ্ণের জন্ম হয়। তারা যমুনা নদীর পশ্চিম তীরে বৃন্দাবনে বাস করত। তিনি ছিলেন… Read more »