জন্মদিন কিংবা প্রথম ব্লগ পোস্টের ইতিকথা

/

বাংলাদেশের মানুষের বেশ কয়েকটা জন্মদিন হয়। আসল জন্মদিন তো আছেই। এর বাইরে আছে সার্টিফিকেটের জন্মদিন। এস এস সি দেবার আগে সার্টিফিকেটে বয়স কমিয়ে দেয়া হত। হোক না একটু আইবুড়ো, তবুও চাকরির বাজারে একটু বেশি দিন এপ্লাই করার সময় তো থাকবে! তবে আমার আম্মুর এস এস সি সার্টিফিকেটে স্কুল থেকে ভুল করে বয়স বাড়িয়ে দিয়েছিলো। আম্মুর… Read more »

ঝোলাগুড়

/

থার্টিফার্স্টের উপলক্ষ্য দেখাইয়া বসকে কইলাম, তাড়াতাড়ি ছুটি দ্যান, রাতে কার্ফু। জানগা! কওয়া মাত্র ব্যাগ লইয়া হাঁটা দিলাম। বাসার গলির দিকে মুভ করতেই, কানে আসলো- “যশোরের খাঁটি ঝোলাগুড়, লইয়া যান মামা”। শুইনাই কান খাঁড়া হইলো! তাকাইয়া কইলাম, দাম কত? উনি কইলো, একশো সত্তুর! কইলাম, গুড়ের দাম একশো সত্তুর? খেজুর গাছের লগে ফাঁসি লমু! আর গুড় থুইয়া… Read more »

এবং ভিসিআর ইফেক্ট

/

আমাদের শৈশব ও কৈশোর কালটা কেটেছে পুড়োটাই পারিবারিক নিয়ন্ত্রণে। আবার এক ধরনের স্বাধীনতাও আমরা উপভোগ করতাম। একে গ্রাম্য ভাষায় যদি বলি, তাহলে বলতে হয় “ছাড়া গরুর মত করে আমরা বড় হয়েছি”। অর্থাৎ গৃহপালিত ছিলাম ঠিকই কিন্তু গলায় দড়ি ছিল না! ফলে সুযোগ পেলেই ঘাস খাওয়ার সুযোগে অন্যের জমির দুই-চারটা ধান গাছও খেয়ে ফেলতাম। সেক্ষেত্রে গরু… Read more »

আমাদের বাড়ি

/

এসএসসিতে আমি খুব একটা ভাল রেজাল্ট করতে পারলাম না। সেটা যতটুকু না পড়ালেখার কারণে তারচেয়ে বেশী ছিল পরীক্ষার হলেও আমাদের দুষ্টুমিটা বজায় রাখার কারণে। আগের বছরগুলোতে পাবলিক পরীক্ষায় নকলের মহাৎসব চলার কারণে ৮৯ সাল থেকে এই পরীক্ষাগুলোতে ব্যাপক কড়াকড়ি শুরু হয়। আমরা ছিলাম ১৯৯০ সালের ব্যাচ এবং পড়তাম শত বছরের পুড়নো শ্যামকিশোর হাইস্কুলে। এটা ছিল… Read more »

হ্যাপি নিউ ইয়ার!

/

বছর ফুরিয়ে এলো। কেউ ফুটছে। কেউ ফুটবে। কেউ ঝরছে। কেউ ঝরবে। আসা-যাওয়ার এই দোলাচলে জীবনজুড়ে আশার মঞ্জুরী নিয়ত বুক পেতে রয়। প্রাণ, তুমি ফুটে ওঠো। ফোটাও।  . ষোলো’র এই ফুলগুলো সতেরো’র ভোরেও ফুটে থাক আরও আরও নতুনের সাথে। . H A P P Y  N E W  Y E A R  2 0 1 7

হেরে যাওয়া মানুষের পাশে কেউ হাঁটে না!

/

ভাবছিলাম কিছু লিখবো না।কিন্তু না লিখলে যে মনের ভাব প্রকাশ করা হবে না।এসব লেখা ছাপবে না কোন পত্রিকা। আজ অনেক শিশু পি,ই,সি-জে,এস,সি,জে,ডি,সি পরীক্ষায় পাস করেছে।পত্রিকা গুলো খুললে কাল আনন্দের খবর পড়া হবে।খুশি,উল্লাস সবই থাকবে।শুধু থাকবে না ফেল করা,অকৃতকার্য, হেরে যাওয়া শিশুগুলোর গল্প! আমরা অনেকেই ব্যস্ত পাস করা শিক্ষার্থীদের নিয়ে। অনেকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে বলবে অমুক ছেলেটা-মেয়েটা… Read more »

ভিসিআর আর শিরোনামহীন অনুভূতি

/

তখন ইন্টারে পড়ি। থাকি কলেজের ছাত্রাবাসে। শীতের এক অন্ধকার রাতে, হোস্টেলের সবকয়টা মিলে চাঁদা তুলে গোপনে একটা টিভি আর ভিসিআর ভাড়া করে আনলাম। একটা ইংরেজি ছবি দেখার পর রাত যখন গভীর হলো, রুমের সব লাইট নিভিয়ে দিয়ে বন্ধু মোমেন নীল ছবির ক্যাসেটগুলোর মধ্য থেকে একটা চালিয়ে দিলো। গভীর মনোযোগ সহকারে আমরা ছবি দেখছি। হঠাৎ মোমেন… Read more »

বেওয়ারিশ কুকুর ও আমাদের লালু আর বাঘা

/

আমাদের সমাজের প্রচলিত বিশ্বাস- “রাস্তার কুকুর মানেই সে খারাপ তাই তাদের মেরে ফেলো! অথবা বন্ধা করে দাও!” নিতাই দা তার সিটিজেন জার্নালিজম ভিত্তিক পোস্ট “বেওয়ারিস কুকুরের আক্রমণ থেকে নারায়ণগঞ্জবাসীদের বাঁচাবে কে?” পোস্টে আমার উল্লেখিত ধারণাকেই উল্লেখ করেছেন। যেখানে শুধুমাত্র মানুষকেই বাঁচানোটাকে মূখ্য হিসেবে ধরে নেওয়া হয়েছে। ব্যক্তিজীবনে আমি যেমন পশুপ্রেমী নই। তেমনি নই, অপ্রয়োজনে এদের… Read more »

হৃদরোগে আক্রান্ত হবো কখনো ভাবিনি

/

কেমন আছেন সকলে? শ্রদ্ধেয়া শিরিন আপা, আইরিন আপা,জুবায়ের ভাই,শ্রদ্ধেয় মোনেম ভাই,সুকান্ত দাদা,বাংগাল ভাই, শ্রদ্ধাভাজন হৃদয়ে বাংলাদেশ ভাই, জাহেদ ভাই,আব্দুর রাজ্জাক ভাই, নিতাই দাদা,নাজনীন খলিল আপা,লিলিয়ান আপা,মাধুরী শিকদার আপা,গালিব ভাই,জহিরুল চৌধুরী ভাই,রীতা দিদি, সুলতানা আলগীন আপা, আশরাফ মহি উদ্ দ্বীন ভাই,আতা স্বপন ভাই, মনোনেশ দাদা,শহীদ শওকত ভাই,কাজী রাশেদ ভাই,অনুজ প্রতিম শফিক মিতুল, নুর ইসলাম রফিক ভাই,সাজ্জাদ… Read more »

আমার ছোট ভাইটি, মায়া ভরা মুখটি

/

আমার দুই নাতনী, আর এক নাতি। আমার মনে বড় আশা, ওরা একদিন অনেক বড় হবে, মানুষের মত মানুষ হবে। ওদের জন্য সবার আশীর্বাদ কামনা করি।