অফিসিয়াল পাসপোর্ট বনাম গভর্নমেন্ট অর্ডার(জিও) আর একটি স্বপ্ন ভঙ্গ

/

আমি নিরব রক্ত ক্ষরণ দেখছি। যদিও এসব দেখেই বড় হয়েছি। কিছুই করার নেই। হয়তো এটাই বাংলাদেশ। এর কোন মানেই নাই। আমার প্রচণ্ড মন খারাপ। সামনে যদি কারও বিদগ্ধ চোখ আর আশা ভাঙ্গা চেহারা থাকে পুরো পরিবেশই তো ভারাক্রান্ত হবে। তাই আমারও হৃদয়ে রক্তক্ষরণ। কারণ আপনার মগজের এক অংশ যদি খারাপ থাকে আপনিও ভাল থাকবেন না।… Read more »

স্বীকৃতি চাই

/

স্বীকৃতি চাই, অামার বাবা একজন সনদ প্রাপ্ত মু্ক্তিযোদ্ধা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কতজনকেই ঠাই দিলেন। অসহায় বৃদ্ধ বাবা কি ঠাই পাবেনা? সহযোদ্ধারা ভাতা এবং সন্মান প্রাপ্ত। বাবা কী দোষ করলেন? দোষ একটাই জীবনের তাড়নায় নিজ জন্মস্থান ত‍্যাগ করা। গফরগাঁও বাসিন্দা বাবা জীবনের কিনার হারিয়ে দিনাজপুরে ঠাই নিয়েছেন। তিনি মু্ক্তিযুদ্ধে যোগদানের পূর্বে ফোর্থ বেঙ্গল রেজিমেন্টে চাকুরিরত ছিলেন। অাম… Read more »

অযথা…..(পর্ব-১)

/

  আমাদের উজানচর গ্রামে যেখানে মরা পোড়ায় জায়গাটা ভীষণ প্রিয় আমার। গ্রামে স্থায়ী শ্মশানঘাট নেই। কেউ একজন বাজারের পাশে তিতাসপাড়ে খানিক জায়গা ছেড়ে দিয়েছিল। তারপর থেকে এখানেই মরা পোড়ায়।ঠাকুমাকে দাহ করার সময় থেকে এই অস্থায়ী শ্মশানঘাট এলাকাটা আমার কেন জানি খুব ভালো লাগে। কারণ অনেক! বলেকয়ে শেষ করা যাবে না। বাড়িতে গেলে সোজা পথে না… Read more »

slide

আবেগ যেন ঘণীভূত বায়ু

/

স্বভাবগত ভাবেই মানুষ খুব আবেগপ্রবণ । মূলত মানুষের আবেগ আছে বলেই স্নেহ , মায়া , ভালবাসার বন্ধনে একে অপরকে বাঁধতে পারে । আবেগের ঘনত্ব নির্ভর করে সম্পর্কের ওপর। কোন কোন সময় সম্পর্কহীন অযৌক্তিক আবেগেও মানুষ নিজেকে জড়িয়ে ফেলে। আমার বন্ধু রুপম হঠাৎ করে বুঝতে পারে পাশের ফ্লাটের তমার প্রতি তার অন্যরকম একটা ফিলিংস জন্ম নিয়েছে… Read more »

নাগরিক সাংবাদিকতা ও বন্ধুত্ব

/

সবে প্রাইমারী পেরিয়ে হাই স্কুলে, বাবা মাঝে মাঝে বলতেন, সব ক্লাসমিট বন্ধু হতে পারে না। কলেজ জীবন, বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে বন্ধু পেয়েছিঅসংখ্য। বয়স বাড়ার সাথে সাথে সুখের ও দূ:খের বন্ধু পেলাম। প্রেরণা দিতেন বাবা, মা,পরিবারের লোকজন ও হাতেগুনা গোটাকয়েক বন্ধু। সিলেটে জন্ম, লেখা পড়া, বিরাট বন্ধুমহল সবই পেলাম, সিলেটে। শেষে এসে পেলাম জীবন সঙ্গী তাও সিলেটে।… Read more »

দুধ চা

/

বিষয়টা যদি কখনো ‘খাওয়া বিষয়ক’ হয়; তাহলে আমি এক্ষেত্রে দুটো টাউটামী থিয়োরি মেনে চলি! এর প্রথমটা হলো- “সুকান্ত তুঁই খেয়েই মরবি”! আর দ্বিতীয়টা হলো- “সুকান্ত, তুঁই না খেলেও মরবি”! এই থিয়োরি দুটো মেনে চলতে যেয়ে আমি মাঝে মাঝেই ভেজালে পড়ি! কেউ খাওয়াতে চাইলেও মুখের উপরে তাকে যেমন ‘না’ করি। আবার কেউ না খাওয়াতে চাইলেও তাকে… Read more »

কঠিন বাস্তবতা!

/

আমার বড় চাচা (মেঝো দাদার বড় ছেলে) যেদিন মারা গেলেন সেদিন ছিল ঈদ-উল-ফিতর। দুপুরের দিকে মারা গেলেন, এরপর সে কি বৃষ্টি। দাফন হতে হতে রাত ১০টা পার হয়ে গেলো। ঈদের দিন জন্য সবাই বিভিন্ন জায়গা থেকে বাড়িতে ফিরেছিলেন, তাই জানাজা ও মাটি দেয়ার সময় নিকট আত্মীয়দের অর্থাৎ আপনজনদের প্রায় সবাই ছিলেন। গোরস্থানটা বাড়ি হতে প্রায়… Read more »

জন্মদিন কিংবা প্রথম ব্লগ পোস্টের ইতিকথা

/

বাংলাদেশের মানুষের বেশ কয়েকটা জন্মদিন হয়। আসল জন্মদিন তো আছেই। এর বাইরে আছে সার্টিফিকেটের জন্মদিন। এস এস সি দেবার আগে সার্টিফিকেটে বয়স কমিয়ে দেয়া হত। হোক না একটু আইবুড়ো, তবুও চাকরির বাজারে একটু বেশি দিন এপ্লাই করার সময় তো থাকবে! তবে আমার আম্মুর এস এস সি সার্টিফিকেটে স্কুল থেকে ভুল করে বয়স বাড়িয়ে দিয়েছিলো। আম্মুর… Read more »

ঝোলাগুড়

/

থার্টিফার্স্টের উপলক্ষ্য দেখাইয়া বসকে কইলাম, তাড়াতাড়ি ছুটি দ্যান, রাতে কার্ফু। জানগা! কওয়া মাত্র ব্যাগ লইয়া হাঁটা দিলাম। বাসার গলির দিকে মুভ করতেই, কানে আসলো- “যশোরের খাঁটি ঝোলাগুড়, লইয়া যান মামা”। শুইনাই কান খাঁড়া হইলো! তাকাইয়া কইলাম, দাম কত? উনি কইলো, একশো সত্তুর! কইলাম, গুড়ের দাম একশো সত্তুর? খেজুর গাছের লগে ফাঁসি লমু! আর গুড় থুইয়া… Read more »

এবং ভিসিআর ইফেক্ট

/

আমাদের শৈশব ও কৈশোর কালটা কেটেছে পুড়োটাই পারিবারিক নিয়ন্ত্রণে। আবার এক ধরনের স্বাধীনতাও আমরা উপভোগ করতাম। একে গ্রাম্য ভাষায় যদি বলি, তাহলে বলতে হয় “ছাড়া গরুর মত করে আমরা বড় হয়েছি”। অর্থাৎ গৃহপালিত ছিলাম ঠিকই কিন্তু গলায় দড়ি ছিল না! ফলে সুযোগ পেলেই ঘাস খাওয়ার সুযোগে অন্যের জমির দুই-চারটা ধান গাছও খেয়ে ফেলতাম। সেক্ষেত্রে গরু… Read more »