বৃষ্টি হোক বা না হোক আজ বর্ষা দিবস, আজ আষাঢ়ের প্রথম দিন…

/

আজ ঢাকার আকাশে একচিলতে মেঘ নেই…তুলো তলো সাদা মেঘের ভেলাগুলো কেন যেন অভিমান করে দূরে চলে যাচ্ছে। তবে আজ সকালে বিজয় স্মরণীর মোড়ে এক ক্ষুদে মেয়ের হাতে কদম ফুল দেখে এক স্নিগ্ধতায় ছুঁয়ে গেল মন। বৃষ্টি নামুক অঝোরধারায় ….ভিজে যাক উত্তপ্ত ঢাকার কংক্রিট। আমার কাছে বৃষ্টি মানেই এক ধরনের নষ্টালজিয়া….চলে যেতে ইচ্ছে করে কল্পনার সমুদ্দুরে।… Read more »

কবিতা লিখার ব্যর্থ চেষ্টা ও আমার ডায়েরি কথন

/

লেখালিখি হাতেখড়ি সেই ছোটবেলাতেই। বাবার ছোট একটা ডায়েরি ছিল। সেটাতে বাবা আমাদের ভাই-বোনের জন্ম, একাডেমিক জীবনের শুরু, ট্রান্সফার হওয়ার পর আবার নতুন স্কুলে ভর্তি এসব লিখে রাখতেন। ওই ডায়েরীটার প্রতি আমার ভীষণ লোভ হত। মাঝে মাঝে বাবার ড্রয়ার থেকে ডায়েরিটা নিয়ে লেখাগুলো পড়ে দেখতাম, আর শেষের দিকের পৃষ্ঠাগুলোতে নিজের মত করে দু;এক লাইন লিখতাম। সেই… Read more »

আমরা মধ্যবিত্ত

/

এই আমি হয়ত জন্মাতে পারতাম ধনী মি: বিল গেট্‌সের স্ত্রীর গর্ভে অথবা ভিয়েতনামের কোন ভিকারির ঘরে। কিন্তু আমি জন্মেছি বাংলাদেশের একটি মধ্যবিত্তের ঘরে। যদি বিত্তকে কোন এক বৃত্তের বাইরের অংশ ধরা হয় তাহলে আমরা আছি সেই বৃত্তের কেন্দ্রে। কিন্তু আমরা কখনো এই বৃত্তের ব্যাসার্ধের বাইরে যেতে পারি না। বারবার হোঁচট খেয়ে নিষ্ফল স্বপ্ন নিয়ে চেয়ে… Read more »

আমি আমার …..!

/

সাধারন জীবনের উর্দ্ধে থেকে বাস্তবতাকে বরণ করার অসাধ্য সাধন বেদনার প্রতিচ্ছবি। কিছুটা অন্যরকম এক অনুভূতির স্পর্শ। ইচ্ছের চাওয়ার সাথে পাওয়ার সামঞ্জস্যতা খুঁজি অন্য পথে, পাওয়া হয়নি। সাধারণ জীবনের খানিকটা হাতের মুঠোয়। তারপরও নিজের ভিতর নিজেকে প্রতি মূহুর্তে অবহেলা অবজ্ঞা করেছি। হার মানিনি যার কাছে। হয়ত সে কিছু চায়, তাকে দেওয়া হয়নি কখনও, দেওয়ার চেষ্টা করিনি,… Read more »

আমার বাবা দিবস!

/

মধ্যরাতের কিছু আগে, বিশাল গামলা নিয়ে ভাত খেতে বসেছি। খাবার টেবিলে ভাত রাখবার যে গামলা, সেটা। বসেছি বিছানায়, আসন দিয়ে; ইন্টারেস্টিং একটা বই পড়ছি সাথে, অনেক দিনের অভ্যাস। লোডশেডিং চলছে, হাতে মোবাইলের ক্ষুদ্র টর্চ লাইট, মনোযোগ পুরোপুরি সংযোজিত হয়ে আছে বইয়ের পাতায়। এমন অবস্থায় ছোট আপুর মোবাইলে রিমাইন্ডার এ্যালার্ম বেজে উঠলো। হঠাৎ করে আমি এক… Read more »

দ্বিতীয় সত্ত্বার রূপকথা

/

আমার যাপিত জীবনটা মধ্যবিত্ত এক মানুষের। তবে, ভিতরে আরেকটা সত্ত্বা রয়েছে- যে মানুষটা কবিতা পড়তে ভালোবাসে, সমাজতন্ত্রের স্বপ্ন দেখে। দুইটা আলাদা সত্ত্বা বিরাজ করে এক মানুষে। আমার দ্বিতীয় সত্ত্বাটি ড. জেকিলের আর যাপিত মধ্যবিত্ত সত্ত্বায় মিঃ হাইড । ইকুয়েডরে সন্তান জন্মানোর পর তার ‘নাহুয়াল’ বা দ্বিতীয় সত্ত্বা নির্ধারণ করে। অনেকটা আমাদের দেশের জন্মতিথি গণনা করে… Read more »

দিনলিপি ও অন্যান্য -০০১

/

এক বন্ধু আমাকে খুব খেপাত। বলত আমি নাকি একটা পাগল বৈ কিছুই না। আমি কেনো কবিতা লিখি কিংবা কবিতা পড়ি কিংবা কবিতা ভালোবাসি এসবে তার মারাত্মক অনীহা। আমি একটা ভ্যাগাবন্ড। মেরুদণ্ডহীন প্রাণী। পাগল-ছাগল ছাড়া কিছুই না। আমার ভবিষ্যত অন্ধকার। একেবারে ঘোর অমানিশার কবলে পড়ে আছে। আমি আমার নিজের পায়ে নিজের তৈরী করা কুড়াল মারছি। এরকম… Read more »

পাঁজর জাগা বাংলা মা

/

মনে পড়ে ? উথালপাথাল ছিলো সুখে মাঠের সকাল ? দুপুর বিধুর রৌদ্র স্নানে আসতো বিকেল গাঁয়ে ? খেলাধূলার মুখর পায়ে-পায়ে ? আর সন্ধে হলে লণ্ঠনের কাঁচ গন্ধে আবছায়া মায়াময় বাড়ি — পড়ার টেবিলে মুখ গোঁজ উসখুস — কখন মিলবে ছুটি — অকরুণ স্যারের দুচোখে নেই ন্যূনতম ছাড় — এদিকে রাজ্যের অপঠিত নিষিদ্ধ পাঠের শত হাতছানি… Read more »

মৃত্তিকার দিনরাত্রি-২

/

দিনকাল: এহন আমি লোড শেডিং-এ আঁধারে বইসা থাকতে পারি….কাজ থাকলে সে কাজ আর করা লাগেনা, কি মজারে বাপ। অফিস থাইকা বিকালে বাসায় ফেরার পথে জ্যামে বহু সময় ধইরা বইসা থাইক্যা ভাভি কিভাবে কলাগাছ দিয়া রকেট বানানো যায় এইজন্য হয়তো কোনদিন নোবেলও পাইতে পারি। গ্যাস না থাকায় রাননা বাননায় এখন আমি মিতব্যয়ী, বাজারে মাছ, মাংস, চালের… Read more »

অপ্রিয়কে ভালবাসা

/

আমি রোবট তৈরীকে অপছন্দ করি, প্রোগ্রাম শিখাকে অপছন্দ করি,সাহিত্য পড়াকে অপছন্দ করি, বই পড়াকে অপছন্দ করি……………..। এই অবস্থায় যদি আমার কলমের কালি শেষ হয়ে যেত এবং নজরুলের মত পেন্সিল দিয়ে না লিখতে পারতাম তাহলে যেকেও হয়তো এই কলাম টুকু পড়ে তার জীবনের সবচেয়ে খারাপ মন্তব্য টুকু আমার জন্য উপহার হিসেবে তৈরী করতো। আমি যা চাই… Read more »