আলুব্দিবাসীর দাবি- কাদের মোল্লার ফাঁসি

জিনিয়ার পোস্টে (প্রকাশিত: বুধবার ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, সন্ধ্যা ৬:২৬) ব্লগারদের আহবান এবং সিদ্ধান্ত ছিল খুব স্পষ্ট – চলুন যাই- প্রতিবাদ হবে আলুব্দি গ্রামে, কসাই কাদেরের ফাঁসি চাই। ব্লগার নীলকণ্ঠ জয় যোগাযোগের দায়িত্ব নিয়েছিল। বিশাল প্রস্তুতি নেয়ার সুযোগ কম ছিল, তবু নীলকণ্ঠ জয় মোটা মোটা হরফে লিখে ফেলেছিল অসংখ্য ঝাঁঝালো স্লোগানের পোস্টার। সবাই সবার সাথে যোগাযোগ… Read more »

অপ্রতিরোধ্য জনতা-রুখবে কে? দেখা হবে বিজয়ে…

শাহবাগ থেকে, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ … একই পতাকার ছায়াতলে জমায়েত হচ্ছে পুরো দেশ…. একই দাবিতে… যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে সর্বত্র সংঘঠিত জনতার আন্দোলনকে প্রচারে গণমাধ্যম(মিডিয়া) -এর ভূমিকা অসীম। মিডিয়া সমর্থনও করছে এই আন্দোলনকে। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবির পাশাপাশি জামাত সমর্থিত ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বর্জনের দাবিও জোরালো। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এখনো এটিএন চ্যানেলের খবর পবিবেশিত হয় ইসলামি ব্যাংকের স্পন্সরশিপে। জামাত… Read more »

স্লোগান মুখর জনতা, শাহবাগ

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, বিকেল বেলা

ক্যাটাগরীঃ ফটো

আলুব্দি গ্রামবাসীর কাছে লজ্জিত জাতি: চাই কসাই মোল্লার ফাঁসি

কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন রায়ের প্রতিবাদে, এবং ফাঁসির দাবিতে ব্লগাররা ছুটে গিয়েছিল পল্লবীর আলুব্দি গ্রামে। এই গ্রামেই হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল ১৯৭১ সাথে। গ্রাম পুড়িয়ে দেয়া হয়েছিল। মানুষ গুলি করে কূয়ায় ফেলে দেয়া হয়েছিল। ব্লগাররা আলুব্দি গ্রামবাসীর কাছে লজ্জিত এমন একটি অপ্রত্যাশিত রায়ে। ব্লগাররা গ্রামবাসীর সাথে কণ্ঠে কণ্ঠ মিলিয়ে বলেছিল- ফাঁসি, ফাঁসি, ফাঁসি চাই, কাদের মোল্লার ফাঁসি চাই।

ক্যাটাগরীঃ ফটো

মাননীয় ট্রাইব্যুনাল, আদালত হবে জনতার-ফাঁসি হবে কাদের মোল্লার

মাননীয় ট্রাইব্যুনাল, ৩৪৪ জনকে হত্যার ঘটনাকে এ জাতি গণহত্যা হিসেবে চিহ্নিত করে। ১১ বছরের মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনাকে ঘৃণার চোখে দেখে। কিন্তু ট্রাইব্যুনাল কোন অপরাধকে কিভাবে মাপতোল করে তা নিয়ে বাংলাদেশে আজ দ্বিধান্বিত। ঘৃণ্য অপরাধ ধর্ষণের শাস্তি যাবজ্জীবন! গণহত্যার মত মানবতা বিরোধী অপরাধের শাস্তি যাবজ্জীবন! আর কতগুলো হত্যাযজ্ঞ চালালে রাজাকার কাদের মোল্লার সর্বোচচ শাস্তিদণ্ড হত? ৫০০?… Read more »

নড়বড়ে ফুটওভার ব্রিজ – জসিমউদ্দিন রোড

ফুটওভার ব্রিজের সিঁড়ি দিয়ে নামার দুলে ওঠে সিঁড়ি। কারণটা ভূমিকম্প নয়। সিঁড়ির গোড়া মূল ভিত্তি থেকে আলগা হয়ে গেছে। ফলে চলাচলকারীরা এই ফুটওভার ব্রিজের এই সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামার সময় সিঁড়ি সামান্য করে নড়েচড়ে-দুলে উঠছে। এই ফুটওভারের মোট ৪টা সিঁড়ি। এই সিঁড়ির ঠিক উল্টোপাশের সিঁড়ির মুখটা চলাচলের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, কোন না কোন ঝুঁকিপূর্ণ… Read more »

ক্যাটাগরীঃ ফটো