ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 
FB_IMG_1497374778553

১.
কথাসাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় রচিত বিশ্বসাহিত্যের ধ্রুপদী উপন্যাস ‘পথের পাঁচালী’র শিশুতোষ সংস্করণ ‘আম আঁটির ভেঁপু’। মানুষের বেড়ে ওঠার সময়কালকে ধারণ করে চিরায়ত শৈশবের গল্পগাঁথা নিয়ে কয়েক খন্ডে ঐ উপন্যাসটি নির্মাণ করেন লেখক। ভার্চুয়াল আর নেটের যুগে সেই ক্লাসিক উপন্যাস পড়বার সময় এখনকার ছেলেমেয়েদের কোথায়?

FB_IMG_1497374785806
২.
‘আম আঁটির ভেঁপু’টা কি একালের সুবর্ণসন্তানেরা চেনে? তারা জানে শুধু খাওয়াটুকুই। আম খেয়ে আটিটা মাটিতে ফেলে রাখলে কয়েকদিন পর সেখান থেকে নতুন চারা গজায়। অঙ্কুরোদগমকৃত আমের আটির ওপরের পশমযুক্ত ছাইরঙা খসখসে শক্ত ঢাকনা সরিয়ে নিলে ভিতরে পাওয়া যায় দু’পাটি সবুজ সফেদ শাস। যা ক্লাসিক ভেঁপুর অনুষঙ্গ। শাসটা ধুয়ে নিয়ে তার ভিতর কচু পাতা ঢুকিয়ে, দাও ‘ফু’। কী অসাধারণ পোওও পোওও সুর। আমাদের শৈশবে কচি প্রাণে হিল্লোল তুলত সেই আওয়াজ। কিন্তু বারবার বাজানোর ফলে বৃদ্ধ নানা’র মেজাজ যেত চরমে ওঠে। বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠে নতুন ওঠা ধানে মুরগী তাড়ানোর কঞ্চি নিয়ে দিত দাবড়ানি। দে ছুট! আবার সেই মনমোহন প্যা প্যা ভ্যা ভ্যা সুর। আমার যে কত ভালো লাগত নানা তা বুঝতে চাইতেন না। পড়ার অবসরে আমার ছিল ঐ বাঁশি বাজানোই কাজ। তাই খুব ভালো লাগত। কিন্তু নানার ছিল সংসার সামলানোর হাজারো ঝামেলা; চিন্তার বোঝা মাথায় তাই হয়ত ভালো লাগত না!
FB_IMG_1497374638916

৩.
আমাদের এ কালের সন্তানদের এসবের কিছুই দেখা হলো না। একটু বড় হলেই সেলফোন, ট্যাব আরো কত কি? কিন্তু আমের ভাজে ভাজেও দারুণ নস্টালজিক অনেক সুখের গল্প আছে, তা কি কোনো মূল্যেই আর ফিরে পাওয়া যাবে?

আম: রূপসুধা
মডেল: সুখপ্রীতা হেরা
অনুপ্রেরণা: কাজী শহীদ শওকত

ফারদিন ফেরদৌস
সুখেরছায়া
১৩ জুন ২০১৭।