ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

 
FB_IMG_1498231189224

ঈদের আগে অপ্রচলিত ‘ইদ’-এর হ্রস্ব ‘ই’ প্রসঙ্গে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন:-

বাংলা একাডেমির আধুনিক বাংলা অভিধানে প্রথম বানান হিসাবে ‘ঈদ’ এবং বিকল্প বানান ‘ইদ’ দেয়া আছে। প্রথম বানানটি প্রচলিত ; ২য় বানানটি সংস্কারকৃত। কোন মানুষ দীর্ঘকাল কোন বানান ব্যবহার করলে তা ঐতিহ্যে পরিণত হয়ে যায়। ‘ঈদ’ বানানটি তেমনি। অতএব, দুটি বানানই ব্যবহার করা যায়।

এই প্রেক্ষিতে আমাদের স্ট্যাটাস হলো:-

১.
‘ঈদ’-র প্রচলিত দীর্ঘ ‘ঈ’ এবং একাডেমির সংগততর হ্রস্ব ‘ই’ নিয়ে বাংলা একাডেমি’র ডিজি একসাথে দুই নৌকায় পা রাখতে বলছেন। বোধসম্পন্ন মানুষের পক্ষে যা করা অসম্ভব! আমরা ঐতিহ্যের অনুবর্তীই হতে চাই।

২.
আরবিতে ‘ঈদ’ লিখতে আলিফের পর একটি ইয়া অক্ষর আছে। ইয়া’র উচ্চারণ দীর্ঘপ্রাণ। আরবি থেকে ‘ইয়া’ বাদ দেয়ার কোনো তরিকা জানা আছে স্যার?

৩.
কিছু পারভার্টেড ইন্দো-পাক হেটার বাংলাদেশকে কাঙলাদেশ বলে ডাকে। আপনি কি দুইটা শব্দকেই জায়েজ বলবেন?

৪.
মুসলিম পারিবারিক ‘ল’তে ইদদাত বা নারীদের পিরিয়ড একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ ভুক্তি। এখন ইদদাতের হ্রস্ব ‘ই’ যদি কলকাতার ‘আনন্দবাজার পত্রিকা’র মতো করে আপনি খুশির উৎসবের ‘ঈদ’-এ নিয়ে যান, তবে ইদদাতে কি দীর্ঘ ‘ঈ’ টা ধার দেবেন স্যার?

FB_IMG_1498234531280

৫.
আরবি ও ফারসি ভাষায় ব্যুৎপত্তিসম্পন্ন আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জীবন ও কর্মের ওপর গবেষণা করে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের বহু শিক্ষক পিএইচডি পেয়েছেন। কবি লিখেছিলেন, রমজানের ঐ রোজার শেষে এল খুশির #ঈদ! আমরা সাম্যবাদী কবি নজরুলকে খুব ভালোবাসি এবং তাঁর কথায় বিশ্বাস ও আস্থা রাখি।

৬.
একাডেমি শব্দের অর্থ ‘পন্ডিতসভা’! ‘ঈদ’-এর পেছনে না লেগে নিজেদের নামের ওপরে বসে থাকা ইংরেজি শব্দ একাডেমি বাদ দিয়ে ‘বাংলা পন্ডিতসভা’ করে দিন।

৭.
আমরা এবং আমাদের শিশুরা সমস্বরে হাজারবার বলব, দীর্ঘ ‘ঈ’তে ‘ঈদ’! ঈদ মানে খুশি। বাঙালির খুশিতে কেন বাগড়া দিতে যাবেন স্যার?

ফারদিন ফেরদৌস
সুখেরছায়া
২৩ জুন ২০১৭