ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

আইসিটি ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক দরবারে সাফল্যের পুরস্কার পেয়েছেন আমাদের গর্ব ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রবক্তা, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর শিক্ষক,উপদেষ্টা, সুযোগ্য পুত্র,জাতির জনক বঙবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র, জনাব সজীব ওয়াজেদ জয়। দেশবাসীর পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও লাল গোলাপের শুভেচ্ছা।

সেই পথে আরো একধাপ এগিয়ে আইসিটি খাতকে সমৃদ্ধির উচ্চাসনে নিয়ে আসছেন যে মানুষটি সে আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহনকারী বীর মুক্তিযুদ্ধার সুযোগ্য সন্তান ডা. অসিত বর্ধন (Dr Ashit Bardhan)। তার গবেষণালব্দ ও ঐকান্তিক পরিশ্রমের ফসল বা আবিস্কার “BDEMR” সফটওয়্যার। যার পূর্ণরুপ হচ্ছে-
BD = Bangladesh
E = Electronic
M = Medical
R = Record

তার এ আবিস্কারের মধ্য দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে এক বলিষ্ঠ দৃষ্টান্ত রাখবে বলে আশা করছি।

বাংলাদেশে প্রতিটি ডাক্তার এই সফটওয়্যার ব্যবহারের মধ্য দিয়ে রোগী ব্যবস্থাপত্র দিতে সর্বোচ্চ সহায়ক ভূমিকা রাখবে। এই সফটওয়্যার ব্যবহার করার ফলাফলে ডাক্তার এবং রোগী উভয়ের সময় ও টাকা সাশ্রয় হবে।

খুব জরুরী রোগী ছাড়া কাওকেই আর দূর -দূরান্ত থেকে ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্র নিতে মেডিকেলে আসতে হবেনা। জ্যামে আটকা পরে নাঃবিশ্বাস উঠবে না।শুধু একবার নিবন্ধনের মধ্য দিয়ে রোগী বাড়িতে বসেই নোটিফিকেশন পেয়ে যাবেন তার ব্যবহারকৃত মোবাইল ফোনে। যে সকল ডাক্তার এই সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন তারা পুনঃপুন আপডেট পাবেন সেই সাথে রেজিস্টেশনকৃত রোগীর সার্বিক ব্যবস্থাপত্র দিতে পারবেন খুব নিমিষেই।

এই সফটওয়্যার ব্যবহারের মধ্য দিয়ে চিকিৎসা সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাবে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে এক যুগান্তকারী ভূমিকা রাখবে বলে আশা করি। আমরা এই সফটওয়্যার বিনামূল্যে ডাক্তারদের দেবো। ডাঃ অসিত বর্ধন একজন নিবেদিত প্রাণ পুরুষ, দেশের মানুষের কল্যাণে বদ্ধপরিকর। সারা পৃথিবীতে ডাঃ অসিত বর্ধনের এই সফটওয়্যারের উন্নয়নে গবেষণা, প্রচার, প্রসার, ব্যবহার চলছে।

এটা ব্যবহারের মধ্য দিয়ে আর হাতে কলমে ব্যবস্থাপত্র কাগজে কলমে চলবে না, দীর্ঘক্ষণ ডাক্তারের সিরিয়াল পেতে ধর্না দিতে হবেনা, বাড়িতে বসেই খুব সহজে কি কি ঔষধ খাবেন তার প্রেস্ক্রিপশন পেয়ে যাবেন। আশার প্রদীপ জ্বলে উঠুক মাঠে ঘাটে সমগ্র পান্তরে। চিকিৎসা ক্ষেত্রে বয়ে আনুক নতুন দিগন্ত। গ্রামের হত দরিদ্র মানুষগুলো অযত্নে অবহেলায় বিনা চিকিৎসায় ধুকে ধুকে মুত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাক। ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল ঘরে ঘরে পৌঁছে যেতে শুধু সময়ের ব্যাপার।