ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

 

ট্রাম্প

তেলবাজি কাকে বলে? কত প্রকার ও কি কি? যারা না জানেন এই লেখাটা পড়লে কিছুটা শিখতে পারেন। তবে ভাল তেলবাজ হতে গেলে নিয়মিত অনুশীলন বা চর্চা করতে হবে। নসিব খারাপ হলে যে কোন জায়গায় অতিরিক্ত তেলে পিচ্ছিল খেয়ে হাত-পা ভাঙ্গার আশঙ্কা থাকতেই পারে। যাই হউক যেই তৈলাক্ত খবরে আমার এলার্জি হয়েছে সেইটা বলি আগে।

একটি নিউজ পোর্টালে দেখলাম, ভারতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামে একটি গ্রামের নামকরণ করা হবে। দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ রাজস্থানের মিরাটে এক গ্রামের নাম বদলে ‘ট্রাম গ্রাম’ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কঠিন হিন্দুত্ববাদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমেরিকার সফরের আগে এ গ্রামের নাম পরিবর্তন করার ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির তেলবাজ এক খ্যাতনামা সমাজকর্মী।

তবে এই ধরনের তেলবাজ ভারতে এবারই প্রথম নয়, এর আগেও হরিয়ানা রাজ্যের একটি গ্রামের নাম কার্টারপুরি রাখা হয়েছিল। ১৯৭৮ সালে সরকারি সফরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার ভারতে গেলে ওই গ্রামের নাম বদলে কার্টারপুরি রাখা হয়। অবশ্য কার্টারের মা লিলিয়ান কার্টার দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের সময় ওই এলাকায় সমাজ কল্যাণমূলক কিছু কাজ করেছিলেন।

একইভাবে উত্তর প্রদেশের একটি গ্রামের নাম ক্লিনটনপুরি রাখা হয়েছিল। এ গ্রামের অধিবাসীরা ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনকে সমর্থন করেছিলেন এবং তার বিজয়ের জন্য প্রার্থনাও করেছিলেন। একই গ্রামের একটি স্কুলের নাম রাখা হয়েছে বিল এবং হিলারি ক্লিনটন স্কুল।

এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন তেলবাজি কাহাকে বলে। তবে একটা কথা মনে রাখবেন দৃশ্যমান তেল অপেক্ষা অদৃশ্য তেলের গুণাগুণ ও শক্তিমান অনেক বেশি। তাই এই অদৃশ্য তেল ব্যবহার বা প্রয়োগে সর্বোচ্চ সাবধানতা অবলম্বন করুন। তৈলাক্ত মানব-মানবী থেকে নিরাপদ দূরত্বে থাকুন।