ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা, ব্লগ সংকলন: সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড

 

জগত এখন হইহই রইরই নানা জাতের ঘটনায়। পাঠক মনে সুড়সুড়ি জাগাতে বড় হরফে ফ্রন্ট পেজে ছাপা হয় কত! হরেক পদের খবর নিয়ে আমরা সাংবাদিকেরা বছরের প্রতিটি দিনই চোখ-কান খুলে রাখি। ব্যতিক্রম আছে একটা জায়গায়।

একটি দৃষ্টিকোণ থেকে আমরা ৩৬৪ দিনই ঘুমে থাকি। তবে ঠিকই জাগি আজকের দিনে। দিনটি ১১ ফেব্রুয়ারি। এই দিনেই চিরঘুমে পাঠানো হয়েছিল সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনিকে।

আমরা সবকটি দিন জেগে থাকলেও তাঁরা চোখের আলোয় আসেন কেবল এই দিনটায়। আজকাল তাঁদের নিয়ে কেউ কেউ আলোচনায় বসলেও গলার স্বরটা আগের জায়গায় নেই। তবে নিয়ম করে বছর বছর এই কলংকিত দিনে খবর হয় তাঁদের নিয়ে। নতুন কাগজে পুরোনো কাহিনি আর ‘নতুন বোতলে পুরনো মদ’- কোনো ব্যবধান নেই তো!

 

 

Sagor-Runi

 

কাগজে তাঁদের নিয়ে দায়সারা গোছের রিপোর্ট দেখে এখন আর বিস্ময় জাগে না। চার বছর কেটেছে। আর কত? সাগর-রুনিকে নিয়ে সাড়া জাগানো একটি বিশেষ রিপোর্ট হবে, সেই রিপোর্ট কাগজের প্রথম পাতায় লাল হরফে ছাপা হবে- এসব এখন একদম দিবাস্বপ্ন!

কত রকমের অখাদ্য মাথা তুলে কাগজের পাতায় পাতায়। ডায়রিয়ার প্রকোপ না থাকলেও এসব অখাদ্য হজম করেই সতের কোটির পেট নেমে যায়! অভিযোগের তীর কারো দিকেই না। জগতের কেউই নিম না, সবাই ধোয়া তুলসী পাতা!

মেঘ, তুমি বড় হতে থাকো। তবে দুঃখিত, ক্ষমতাবানের পদলেহনকারী সাংবাদিকতার কাছে প্রত্যাশাটা কখনোই বাড়িও না! চোখ-কান খোলা আছে সত্যি, আমাদের সাংবাদিকতা আজ সত্যিই অন্ধ!

 

লেখক : সাংবাদিক, https://www.facebook.com/Joynal-Abedin-1583396225213159/