ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

 

জানিনাকে কিভাবে দেখছে বা কি ভাবে ভাবছে আমি জানিনা তবে একটা কথা নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি এর চুক্তিতে ব্যক্তিগত ভাবে আমি একটি আশার আলো দেখতে পাচ্ছি । চারটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপালের মধ্যে সড়ক পথে যে চুক্তি আমরা সবাই বিশ্বাস করি এর মধ্য দিয়ে একটি নতুন দিগন্তের সূচনা হবে উন্নয়নের ইস্যুতে যেখানে চারটি দেশের নাগরিকেরাই সমভাবে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা উপভোগ করতে পারবে । যানবাহন চলাচলে যদি এ চুক্তি বাস্তবায়ন হয় তাহলে ৪টি দেশের জনগনের মাঝে যেমন যাতায়াত বাড়বে তেমনি নিজেদের ভাল ইস্যুগুলো বা প্রোডাক্টগুলো সহভাগিতার সুযোগ তৈরী হবে যা উন্নয়নকে গতিশীল করবে এবং তা বলার অপেক্ষা রাখেনা । সব দেশই নিজের স্বার্থকে বিবেচনা করেই এ সুযোগ সুবিধাগুলো উপভোগ করবে বা গ্রহন করবে সেখানে নাগরিকদের সুযোগ সুবিধা গুলোই বেশী প্রাধান্য অবশ্যই পাবে বলে আমি বিশ্বাস করি ।

২০১৬ থেকে এ নতুন যাত্রা শুরু হতে পারে বলে জানা গেছে যা আমাদের জন্য একটি আশাব্যঞ্জক খবর এবং যথাসময়ে শুরু হোক তাই মনেপ্রাণে চাই এ দেশের একজন নাগরিক হিসাবে । চুক্তি অনুযায়ী ইউরোপের আদলে এই চার দেশের মধ্যে মোটরযান চলাচল শুরু হবে খুবই আশার কথা । কেমন যেন আলোকিত একটি ভূ-খন্ডের ভাবনা চলে আসে যেখানে রঙ বেরঙের সাজ সজ্জা বিশিষ্ট্য পরিবেশ থাকবে ১২ রকমের মানুষের বিচরন থাকবে সবার মূখে থাকবে শান্তির হাসি থাকবে নতুন চেতনাকে স্বাগত জানানোর দুটি হাত, সাথে উন্মুক্ত মানসিকতা, এ কথা ভাবতেই দারুন অনুভুতির জন্ম হয় মনের ভিতরে ।

আলোকিত ভূবনের যাত্রা শুভ হোক ঠিক ২০১৬ সনেই –অপেক্ষাই আছি আমরা।

slide