ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

16736774_1887958191450916_1665969302_n

জাহঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভাষা শহীদ আবুল বরকত স্মৃতি জাদুঘর ও সংগ্রহশালার উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাবির ইতিহাস বিভাগে এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক…… (নামটা প্রকাশ করলাম না) কারণ উনি অবমাননা হিসেবে নেন কিনা সেটা ভেবে।

উনার বক্তৃতার কিছু অংশ নিম্নরূপ:

* যাইহোক জিন্নাহ ultimately ঘোাষণা দিল উর্দুই হবে পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা।
* তারপর আমাদেরে মিছিলে পুলিশ protest করলো ।
* এ ভাষা আন্দোলনের climate শুরু হয় বহু আগেই।
* যেটা highlight করা দরকার ছিল সেটা করছি।
* Meeting ডাকা হলো Meeting এ উপস্থিত হলাম।
* এটা আমাদের carried করতে হলো।
* পুলিশ মিছিলের অনেককে Arrest করলো।
* আমার ওই পাশে লম্বা একজন সাদা Full shirt পড়া লোক ছিল।
* president, prime minister, every body say …..
* আমরা আত্মত্যাগের ফলে We have created 21 February
* Now and never মায়ের ভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য যা করা দরকার আমাদের তাই করতে হবে।
* ২১ ফেব্রুয়ারীর impact এর ফলেই আজ বাংলা একাডেমি তৈরী হয়েছে।
* আমাদের মধ্যে যে sprite ছিল সে sprite এখন আর নেই।
*আমাদের মধ্যে tolerance বলতে কিছু নেই। দিন দিন উঠে যাচ্ছে।
* নৈতিকতা সম্পর্কে তিনি বলেন, where are going morality? really you should come back.
* আমি কাউকে কোন criticise করতে চাইনা।
* অামাদের সব আশা destroy হয়ে গেছে।
* আমি young generation কে তিনটি উপদেশ দিয়ে আমি আমার বক্তব্য শেষ করবো।

একজন ভাষা সৈনিক। যিনি বাংলা ভাষার মর্যাদার জন্য নিজের জীবনকে বাজি রেখে সংগ্রাম করেছেন। তিনিই যদি ভাষা দিবসের মর্যাদার উপর বক্তব্য দিতে এসে এভাবে বক্তব্য দেন। তাহলে যাদের সামনে বক্তব্য দিচ্ছে তারা কি শিখবে? সবাই অনেক সুন্দর কথা বলতে পারি। কিন্তু মানাটা যে সত্যিই কঠিন।