ক্যাটেগরিঃ চিন্তা-দর্শন

 

মাদার তেরেসার একটা দুর্দান্ত কথা আছে, If you judge people, you have no time to love them. প্রতিনিয়তই তো কত অভিযোগ, কত সমালোচনা করে চলছি আশপাশের অনেক কিছু নিয়ে। এই ধরুণ আমাদের অর্থনীতি; জিডিপি প্রবৃদ্ধি বাড়লেও এর সুফল সবাই পাচ্ছি না কেন, বিশ্বব্যাংক মানদন্ডে অগ্রগতি হলেও এত এত বেকার বাড়ছে কেন? আবার দেখুন রাজনীতির ময়দানে সর্বত্রই অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগ। সামাজিকখাতেও অস্থিরতা, আমাদের কিশোররা নিজেদের গ্যাংস্টার ভাবছে, কেন হচ্ছে এমন আর কারা দায়ী এই অবক্ষয়ের জন্য।

ভালবাসার মানুষের প্রতি অল্পতেই রাগ-বিচ্ছেদ, সংসার-স্বপ্ন ভাঙ্গছে হরহামেশই। এইসব অভিযোগ-অভিমান আর প্রতিনিয়তই জিততে পারার মানসিকতা জটিল করে ফেলছে মানবিক সম্পর্কগুলোকে, বেঁচে থাকার সময়গুলোকে করে ফেলছে দুঃসহ। অথচ অভিমানেরর সময়ে হারিয়ে ফেলা ঘন্টা-দিনগুলোকি অভিমান কেটে যাওয়ার পর চাইলেই পাওয়া যাবে? খুঁত বিশ্লেষণে আমি কি নিজের জন্য বরাদ্দকৃত আয়ুষ্কালই শেষ করে ফেলছিনা? তাহলে ভালবাসার সময় কেন কমিয়ে ফেলছি, অথচ সবাইতো ভালো সময়ই কামনা করি।

arsingr

কালক্রমে একজন বলেছিল, এত মুড অফ-অন নিয়ে কি করবেন, সময়টা উপভোগ করুন। হ্যাঁ আজ যখন লিখছি, মনে হচ্ছে ঐ সময়টা উপভোগ করিনি, না হলে ঐ লোক একথা কেন ই বা বললো। বন্ধুর সংখ্যাও কমছে, এখন অনেকেরই মাত্র দু-একজন বন্ধু, ভার্চুয়াল বন্ধু অনেক। এই কয়েকদিন আগে তারকা কন্ঠশিল্পী হাবিব ও তার অর্ধাঙ্গিনী দাম্পত্য জীবনের বিচ্ছেদ ঘটালেন। উপভোগ করছেন না হয়তো সময়গুলো। মানুষ তার নিজের ভালো থাকার জন্যই সব করে, ভালো বুঝে হোক আর না বুঝে হোক।

তবু বিচার করতে করতে, খুঁত ধরতে ধরতে, রাগ-অভিমান নিয়ে আমাদের একটা জীবন পার করে দিলাম। ভালোবাসার অবসর আমাদের হলো না। আমরা জানলাইমই না, জীবন কত সুন্দর, জীবন কত মধুর। বাড়ির পাশে আরশিনগর আমাদের অদেখাই রয়ে গেলো।