ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

অবাক হচ্ছি না, শিরোনামের মূল বক্তব্যটুকু বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদার বরিশালের জনসভার মঞ্চের সামনে আগত নেতাকর্মীদের। যেহেতু খালেদা জিয়া তাদের কে থামিয়ে দেননি, তাই আপাতত ধরে নিচ্ছি খালেদার হা সূচক সম্মতি রয়েছে। মূল খবরটুকু পড়ে নিতে পারেন এই লিংকে গিয়ে। আরও রয়েছে ‘মরলে শহীদ, বাঁচলে গাজী’, ‘আমরা সবাই মরতে রাজি’ মূলক বক্তব্য তে হা সূচক সম্মতি। প্রিয় পাঠক আপনারা হয়তো প্রশ্ন করতে পারেন এই বিষয় নিয়ে ব্লগ লেখার কোনও বিষয় হলো ?

আমি স্বীকার করে নিচ্ছি এই বিষয় নিয়ে ব্লগ লেখার কোনও মানেই নেই, যেহেতু জামাত এর সাথে বিএনপির জোট রয়েছে। তবে প্রশ্ন হচ্ছে বিএনপি নেত্রী বা তার দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সাংবাদিক সম্মেলন একাদিক বার করে বলে দিয়েছেন জামাত-শিবিরের কোনও অপকর্মের দ্বায় বিএনপি নিবে না। বিএনপি নেতাদের ভাষায় যাকে বলা হয়ে থাকে বিএনপির সাথে জামাতের জোট রয়েছে শুধু মাত্র কৌশলগত। যা ভোটের রাজনীতিতে প্রযোজ্য হবে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, সারা দেশে জামাত-শিবিরের তান্ডব লীলার পড়ে ভিবিন্ন সময় ভিবিন্ন ভাবে মির্জা ফখরুল,জয়নাল আবেদীন ফারুক, সাদেক হোসেন খোকা, যে ধরনের বক্তব্য দিয়েছে জামাত-শিবিরের অপকর্ম কে সমর্থন করে তাতে মনে করার কোনও সুযোগ নেই বিএনপির সাথে জামাতের কৌশলগত জোট রক্ষা করে চলেছে। তবে আজকের বিষয়টি যেহেতু খালেদার সভামঞ্চের সামনে থেকে তাই বিষয়টি নিয়ে ভাবার দরকার রয়েছে আমাদের। আসলেই কী বিএনপি জামাতের সাথে কৌশলগত জোট রক্ষা করছে করছে বিএনপির ইন্ধনে জামাত-শিবির সারা দেশে তান্ডব লীলা শুরু করেছে।

ভাবনার সুযোগ করে দিচ্ছে এই ধরনের অনেক প্রশ্ন। কেন না, জামাত-শিবিরের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে যখন সকল রাজনৈতিক দল, নাগরিক সমাজ এক কাতারে দাড়িয়ে ঠিক তখন বাংলাদেশের অন্য একটি বৃহত্‍ রাজনৈতিক দল জামাতের অপকর্মের পক্ষ নিয়ে কথা বলে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে যাচ্ছে তাতে করে খুব সহজে অনুমেয় হয়ে উঠে এই পোস্টের শিরোনামের সাথে যথেষ্ঠ ভাবে সম্মতি সূচক।

এবার আসছি, অন্য প্রসঙ্গে যে মঞ্চে স্বাধীনতা বিরোধী ঘাতক চক্র নিয়ে খালেদা বসেছিলেন সে মঞ্চ থেকে খালেদা জিয়া যখন বিএনপিকে ‘মুক্তিযুদ্ধের দল’ বলে অভিহিত করেন, আবার তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে দেশবাসীকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তখন মনের খটকা বড় হয়ে দেখা দিতে পারে প্রতিটি স্বাধীনতা পন্থী মানুষের বিবেকে। রাজকার দের এক মঞ্চে নিয়ে খালেদা কী মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করলেন ? নাকি রাজকার চক্র কে মুক্তিযুদ্ধা বানানোর বীজ বুনলেন ? যেই জনসভায় জামাতের ও শিবিরের কর্মীরা মতিউর রহমান নিজামী এবং দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর পোস্টার সমেত হাজির হয়েছিল সেখানে খালেদা কী করে বললেন, বিএনপি একটি মুক্তিযুদ্ধের দল ?

-সুলতান মির্জা-


৪৯ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. মিজান বলেছেনঃ

    রাজকার দের এক মঞ্চে নিয়ে খালেদা কী মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নিয়ে হাসি ঠাট্টা করলেন ?

    মনে হয় করলেন যেভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শরিয়া আইনের কথা বলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নিয়ে হাসিঠাট্টা করলেন।

    আমি দুজনের আচরনে কোন পার্থক্য খুজে পাচ্ছিনা, কিন্তু এরকম তো হওয়ার কথা ছিলনা, আমরা আশা করিনি।

  2. নজরুল islam বলেছেনঃ

    যদি সবাই দুই নেত্রীর মধে কোনও পার্থক্য খুজে না পান তাহলে কেন ইসলামিক নেতাদের অত কষ্ট দেওয়া হচে জেলের মধে রেখে। আর তারাত আসলেই যোদ্ধাপরাধী নয়। সব পলিটিকাল টিক্স। তবে সবাই ধর্মান্ধ না হয়ে ইসলামী নেতাদের মুক্তির জন্য সুপারিশ করুন যা আপনারা মরার পরেও উপকারে আসবে انشاءالله।

  3. জল্লাদ 71 বলেছেনঃ

    মীর্জা দা……………………………………….নাম্বার ওয়ান । ওই পুরাতন ট্যাবলেট পাবলিক আর খাবে না । ইহাতে পাবলিকের অরুচি আসিয়া গিয়াছে ।

  4. মাহবুবুল আলম

    মাহবুবুল আলম বলেছেনঃ

    মির্জা ভাই এসবই আগামী নির্বাচনে জিতে আসার জন্যে ধোঁকাবাজি। ধোঁবাজিতে ম্যাডাম ও তার দল এতটাই পারঙ্গম যে, সে হিসেবে আওয়ামী লীগ নেত্রী তার কাছে শুধু শিশু নয় একেবারে দুধের শিশু!!!!!!!!!

    ১০
  5. ইবলিস বলেছেনঃ

    মিঃ সুলতান মির্জা এসব রেকর্ড বাজিয়ে এখন আর পয়দা হাসিল করা যায় না । পারলে নুতন কিছু ….। জামায়াতীরা যখন লগি-বৈঠা দলীয়দের সাথে মিটিং-ফিটিং করেছিল তখন আপনার মত আঁতেলরা কোথায় ছিল জানতে বড়ই ইচ্ছে করে । গায়ের জোরে দখল, ডাকাতি, লুটতরাজ করা যায় মানুষের মন জয় করা যায় না । ভাল-মন্দ বিচার মানুষের বিবেক হতে আসে আর তা-ই আইন হয় । কাউকে দাবিয়ে রেখে আর গায়ের জোরে চাপিয়ে দিয়ে কোন কিছুই আদায় করা যায় না । মির্জা সাহেব, নিজেদের দোষ গুলো বিবেচনা করুন এবং সে আলোকে কাজ করুন । আপনারা নিজেরা ব্যর্থ বলেই অন্যরা সফল । ভাল-মন্দ বিচার ভার মানুষের ওপর ছেড়ে দিন । বিএনপি-জামায়াত জোট আর আপনাদের গাত্র দাহ ! কী চমৎকার ! আপনাদের ভাষায় আপনারাতো শহস্র শতাব্দীর নিষ্কলুষ তাহলে দেশে এত জোর ধ্ববস্তি কেন ? পায়ের তলায় মাটি থাকলে বিরোধী জোটকে এভাবে পুলিশ-র‍্যাব দিয়ে দমন করতে হয়না এটা এদেশের মানুষ ভাল করেই জানেন । এটা গণতন্ত্র নয় । এটা স্বৈরতন্ত্র । শক্তি প্রয়োগ না করে সকল রাজনৈতিক দলকে তাদের শান্তিপূর্ণ প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যেতে দিন । আপনারাও আপনাদের রাজনৈতিক দর্শন সামনে রেখে কাজ করুন আর আমি এবং আমার মত নাগরিকরা বেচে নেব কাকে আমাদের প্রয়োজন । আপনি গংদের মধ্যে যে প্রতিহিংসা চরিতার্থ হচ্ছে তার আগুনে আপনারাই জ্বলবেন অন্যরা নয় । ধর্ম ভিত্তিক রাজনীতি খারাপ হলে দেশের মানুষ তা প্রত্যাখন করবে তাতে আপনাদের অসুবিধা কোথায় ? চট্রগ্রামের কালুর ঘাট বেতার কেন্দ্র হতে জিয়ার কন্ঠে স্বাধীনতার ঘোষণা(বঙ্গবন্ধুর পক্ষে) বিজ্ঞানের অবদানে এখনো আমরা শুনতে পাই আর আপনারা ঐ ঘোষকের প্রতিষ্ঠিত দলকে মুক্তিযোদ্ধার দল বলতে কুন্ঠিত বোধ করেন বরং গালি-গালাজও করেন । তখন আমি/আমার মত অনেকে অবাই হয় । এতে আপনাদের লাভ হয় না বরং অনেক বেশি লোকসান হয় । আর যুদ্ধাপরাধীর বিচারতো হচ্ছেনা । হচ্ছে মানবতা বিরোধী অবপরাধের বিচার । তাহলে আপনারা একে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বলেন কেন ? আইনে এক লেখা মুখে বলেন অন্যটা এটা কি ঠিক ? আসলে কাজ যদি সঠিক হতো তাহলে কথার ভাষা আর আইনের ভাষা এক হত । যুদ্ধাপরাধী আর মানবতাবিরোধী অপরাধ এক নয় । স্বাধীনতা যুদ্ধের পর অনেক মানবতাবিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে সে সবের বিচার কি হচ্ছে ? মনে প্রশ্ন থেকে গেল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার না হয়ে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার কেন হচ্ছে ? এটা প্রতিহিংসা নয়তো ? আগেতো যুদ্ধাপরাধীদের বিচার আর মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার সাধারণ আইনে যেমন চলছে তেমনি চলতে থাকবে যুগ হতে যুগান্তরে । কারণ, মানবতাবিরোধী অপরাধ সবসময়ই ঘটছে । ধন্যবাদ জনাব সুলতান মির্জা ।

    ১১
  6. ইবলিস বলেছেনঃ

    জনাব মির্জা আর একটি প্রশ্ন- যুদ্বাপরাধের বিচারের ক্ষেত্রে গোলাম আযম ১ নম্বরে যা আপনি যেমন জানেন আমিও । তাহলে তাকে বাদ দিয়ে প্রথমে সাঈদীর বিচার, কেন ? তবে কি ধরে নিতে পারি এটা প্রহসন ?

    ১৩
    • সুলতান মির্জা বলেছেনঃ

      ধন্যবাদ প্রশ্নের জন্য তবে কিছুটা অবাক হয়েছি গুয়াজম এর বিচার চলছে এই বিষয়টা আপনার জানা নেই দেখে। রাজাকার গুয়াজম, নিজামী, সাঈদী , মুজাহিদ, কামরুজ্জামান, সহ অন্যান্য আরও বিখ্যাত সব একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। কিন্তু আমার প্রশ্ন হচ্ছে আপনার কাছে, খালেদার উপস্থিতিতে একমাত্র সাঈদীর বিষয়ে কেন মিছিল করা হয়েছিল ? তাহলে কী ধরে নিব গুয়াজম, নিজামী, মুজাহিদরা সবাই রাজাকার ছিল বিএনপি-জামাত-শিবির তা মেনে নিয়েছে ?
      যদি এইসব ঘৃণিত রাজাকারদের বিএনপি-জামাত-শিবির মেনে নিয়ে থাকে তাহলে সাঈদীর বিচার কেন প্রহসন হবে ?

      ১৩.১
  7. মোঃ তানভীর সাজেদিন নির্ঝর

    মোঃ তানভীর সাজেদিন নির্ঝর বলেছেনঃ

    আফসোস এজন্য যে তাঁরা যখন ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলো তখন আওয়ামি লীগ সভানেত্রীর বরিশাল সফর কে বাধাগ্রস্থ করতে তাঁরা এমন কোন জঘন্য কাজ নেই যা করে নাই। ঠিক তাঁর ৬ বছর পর এসে বরিশাল জেলা ও মহানগর তাঁর আগমন কে কেন্দ্র করে যে বন্ধুসুলভ মনোভাব দেখিয়েছে তা দুর্বলতাকে পরিণত করেছেন ঐ যুদ্ধাপরাধীদের প্রশ্রয়দাতা বে.জি। উনার মতো ক্ষমতালোভী মানুষের কাছ থেকে এর বেশী কিছু আশা করা ভুল।

    আমাদের বরিশালের মেয়র যেভাবে একটি রাজনৈতিক বন্ধুসুলভ আচরণ করলেন তাঁর জবাবে তিনি মানে বে.জি যা করলেন তা সভ্যতা ও সমাজ বহির্ভূত।

    নামকরা দুর্নীতিবাজ মামুনের সাফাই ও গেয়েছেন তিনি। আসলে তাঁর দল ও জোট ভালো কিছু পাওয়ার যোগ্যে নন তাই প্রমানিত হলো।

    ১৪
  8. ইবলিস বলেছেনঃ

    জনাব সুলতান, গুআজমের বিচার চলছে এটা আমি জানিনা এরকম মনেকরাটা একটু বেশী বুঝে ফেলা নয়কি ? আমার প্রশ্ন ছিল যিনি প্রথমেই অভিযুক্ত হওয়ার কথা তিনি কয়েকজনের পরে বিচারিক কার্যে অন্তর্ভুক্ত এমনটি কেন ? আসলে এটা একটা আক্রোশ যা আপনারা বিনা যুক্তিতে সমর্থন করেন ।

    ১৫
  9. বাংগাল

    বাংগাল বলেছেনঃ

    লেখক বলেছেন: 10.1
    রাত ১০:২৯, মঙ্গলবার ২০ নভেম্বর ২০১২
    মাহবুবুল আলম ভাই,
    বক্তব্যে সহমত। আরেকটি খবর দেখে হাসতে হাসতে মরে গেলাম এই ভেবে যে খালেদা জিয়া শেষ বয়সে এসেও মিথ্যা কথা ছাড়তে পারেনি। পড়ুন ছেলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগকে ‘অপপ্রচার’ আখ্যা দিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, “তারেক অত্যন্ত সৎভাবে জীবনযাপন করেছে। দুর্নীতির সঙ্গে কখনোই তার কোনো সম্পর্ক ছিল না। তার কোথাও তেমন কোনো সম্পদও নেই।

    এই শতাব্দীর সেরা কৌতুক বটে

    ১৬
  10. কামাল বলেছেনঃ

    লেখক কে বলচি দয়া করে ‘আমার ফাঁসি চাই ‘ বই টা একটু কষ্ট করে পড়ে নিবেন। আপনার মতো মাথা মোটা খাটাশ এর মাথাটা তাতে যদি খোলে।।

    ১৮
  11. rafiq বলেছেনঃ

    মিঃ মিজা, ৭১ সালের আপনাদের কথিত অপরাধের জন্য ধরেন জামাত নেতাদের ফাসী দিয়ে দিলেন। বাংলাদেশে জামাতের ৮% ভোট আছে। অথ্যাৎ এই হিসাবে প্রায় ১ কোটি সমথক জামাতের। তাদের কোন অপরাধে ঠেকাবেন, ভেবে রেখেছেন কিছু?

    ১৯
  12. ভাবুক বলেছেনঃ

    আপনার অন্তরজালা টা ৭১, আর ৩০লক্ষ শহীদদের স্ব পক্ষীয় বলে মনে হয়নি।
    বিশেষ গোষ্ঠির প্রতি গাত্রদাহ। জামাত ধর্মকে ব্যবহার করে আর আপনাদের মত লেখক রা যত্রতত্র মহান মুক্তিযুদ্ধের ব্যবহার করেন বিশেষ কার্য লাভের আশায়।

    ২১
  13. হোসাইন বলেছেনঃ

    মুক্তিযুদ্ধ ব্যবসায়ী মির্জা সাহেব! আপনার অন্তরজালা আসলে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের নিয়ে না-কি দলবাজির ফায়দা হাসিলের জন্য। যে বিষয়টা মুখ ফসকে বের হয়ে যায় সেটা অাগে বলে ফেলাই ভালো। জামায়াত যদি ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করে তাহলে আপনারা করেছেন মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে। এসব ফেরি না করে নিজেদের চরিত্র সংশোধন করেন। ধর্ষণে সেঞ্চুরী করবেন, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, ডাকাতি, রাস্তায় মানুষ পিটিয়ে হত্যা করবেন, নেতাদের মনোরঞ্জনের জন্য দলের মেয়েদের পাঠাবেন, আবার মুখে মুক্তিযুদ্ধের ফানা তুলবেন! ছি! ধিক জানাই আপনাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিক্রিকে। যে লগি-বৈঠা নিয়ে আপনারা ক্ষমতায় গেছেন, কে বলতে পারবে তা আবার ফিরে আপনাদের ঘারে পরবে না!

    ২২
  14. তাহুরা বলেছেনঃ

    রাজাকার গুয়াজম, নিজামী, সাঈদী , মুজাহিদ, কামরুজ্জামান, সহ অন্যান্য আরও বিখ্যাত সব একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের কাছে (BAL)বাল সভানেত্রী শেমু কন্যা শেহা ১৯৯৬ সালে রাজাকার এর পরিবর্তে স্যার বলে তাদের পদযুগলে সালাম দিয়ে যখন ক্ষমতায় যায় তখন অাপনাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সিকায় তুলে রেখেছিলেন?তাদের পাশে নিয়ে মিটিং করতে তখন রাজাকারের গন্ধ লাগত না, এখন ক্ষমতায় তারা একটা ফ্যাক্টর হোয়ায় রাজাকারেরর গন্ধ পাচ্ছেন! ধান্ধাবাজির একটা সীমা থাকা উচিত নয় কি? সোনার ছেলেদের ধর্ষণে সেঞ্চরী, টেন্ডারবাজী, ডাকাতি, অপহরণ, প্রকাশে অস্ত্রবাজী এগুলো অাপনাদের চোখ এড়ায় কিভাবে? অার কতদিন মুক্তিযুদ্ধের ব্যবসা চালিয়ে যাবেন? এর একটা শেষ থাকা উচিত নয় কি!

    ২৩
  15. মাহি জামান বলেছেনঃ

    ““““““খুব জোরেশোরে বলতে ইচ্ছে করছে বিএনপির চেয়ে আওয়ামীলীগ অনেক ভাল একটি রাজনৈতিক দল। খালেদার চেয়ে হাসিনা অনেক নীতিবান একজন নেত্রী।“““““`
    হায়রে চামচা, হায়রে নির্লজ্জ দালাল। ছিঃ……[মডারেটেড]………..।

    ২৪
  16. জনতার মতামত বলেছেনঃ

    রাজাকারের বাচ্চারা রাজাকারদের চেয়ে আরো একধাপ বেশী বদমায়েশ যাহা কিছু কিছু মন্তব্যে প্রকাশ পেয়েছে। লেখককে বলবো- চালিয়ে যান। উচিত কথায় আহম্মক বেজার হবে এটাই স্বাভাবিক।

    ২৫
  17. আবীর বলেছেনঃ

    ৭১ বল্লে যারা বিভিন্ন যুক্তি দাঁড় করায়, বুঝতে হবে তাদের পূর্বপূরুষ ৭১ চাইনি।এখনো পাক সারকে স্বপ্ন দেখে । ইসলাম কি শুধু পাকিতে ? তারাই কি ইসলামের হোল এজেণ্ট?

    ২৬
  18. আবীর বলেছেনঃ

    বিরোধী নেত্রীর ভাষায় , ” আমার ছেলে তারেক কোন অন্যায় করেনি,সে অত্যন্ত সৎ জীবন যাপন করেছে, ।” — বাক্যটি হাজার বছরের সেরা কৌতক। মাননীয় ,বিরোধী নেত্রী এবং তার পরিবার নিন্মোক্ত দায় কি এড়াতে পারবেন ?
    ১) ২০০১ এ ক্ষমতায় আসার সাথে সাথে সংখ্যালঘুদের উপর অমানবিক নির্যাতন, সংখ্যালঘু নারীদের ধর্ষন ,বাড়ী ঘর লুঠপাট, জায়গা-সম্পত্তি জোরপূর্বক গ্রহন এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে অস্বীকার।
    ২) মাননীয় নেত্রীর কালো টাকা সাদা করা।
    ৩) প্রশাসনের সর্বস্থরে বি ,এন,পি ও জামাতীকরন।
    ৪) দেশকে জঙ্গীদের তীর্থক্ষেত্রে পরিনত করা এবং তা রাষ্ট্রীয়ভাবে অস্বীকার করা। বিখ্যাত উক্তি বাংলা ভাই ও ইংরেজী ভাই বলতে কেউ নেই সব মিডিয়ার সৃষ্ঠি।
    ৫) ১০ ট্রাক অস্ত্র ।
    ৬) ৬৪ টি জেলায় একসাথে বোমা বিষ্ফোরন।
    ৭) এস,এম, কিবরিয়া হত্যা।
    ৮) আহসান উল্লাহ মাষ্টার হত্যা।
    ৯) ২১ শে আগষ্ঠের বোমা হামলা এবং জজ মিয়াঁ নাঠক।
    ১০) ছাত্রদলকে সংঘঠিত করার নামে নেতাকর্মী (মহিলা সহ) দের কে নিয়ে প্রমোদবিলাস।
    ১১) বিচারক হত্যা ও সিলেটে আনোয়ার উল্ল্যাহ চৌধুরীর উপর বোমা হামলা।
    ১২) লক্ষ লক্ষ টাকা তারেক জিয়া কতৃক বিদেশে পাচার। কয়েক শ লাগেছ বিমানে পাচার।
    ১৩) প্রকাশান্তে সোনার ছেলে তারেক এর আন্তর্জাতিক মাফিয়া কানেকশন।
    ১৪) সি,এন,জি অঠোরিকসার উপর তারেকের সারচার্য।
    ১৫) আরো অনেক কাহিনি যা ভুলে যাওয়া জাতির জন্য দূর্ভাগ্য।
    ভোট চাওয়ার আগে এগুলোর সুরাহা প্রয়োজন।

    ২৭
  19. কাজি বলেছেনঃ

    আপনার যুক্তিটা অনেকটা নিমন্যরূপ
    মাছে মানব বর্জ্য খায়, মানুষ মাছ খায়, অতএব মানুষ মানব বর্জ্য খায়

    “সাঈদী যদি যুদ্ধাপরাধী হয়, তাহলে আমরাও যুদ্ধাপরাধী”
    এই কোথায় খালেদার প্রকাশে সম্মতি দিবে কোনও নির্বোধও এটা মনে করে না,
    আর খালেদা জিয়া এতবড় পাগলও না যে যে 18 দলীয় সমাবেশে তার বক্তব্য বন্ধ করে জামাতের কর্মীদের তাদের পোষ্টারএ বাধা দিবে।

    মহাজোটের জনশবায় যখন বাম পন্থীরা “পুজিবাদ নিপাদ যাক” বলে পোস্টার নিয়ে আসে
    অথবা গতো জোট সরকারেরে শেষে আওয়ামীলীগ এর ফতায়া চুক্তির মাধ্যমে খেলাফত মজলিসকে নিজের জোটে নিয়ে বিশাল মহাজোটের সমাবেশ করে সেই সমাবেশে খেলাফত মজলিস বড় বড়
    বেনার লিখে এই দেশ হবে খেলাফত রাষ্ট তখন তো শেখ হাছিনা তাদের থামায়নি
    তাই বলে কী তিনি পুজিবাদ নিপাদ যাক অথবা দেশ হবে খেলাফত রাষ্ট এসব কিছুর প্রতি হাছিনার সম্মতি আছে এটা ধরেনিবেন?

    এটা ছিল আমার , আপনার লেখার শিরোনাম ও প্রথম অংশএর মন্তব্য, আপনার লেখাটার শেষ দুই অংশ নিয়ে কিছু চমত্কার মন্তব্য আমার মাথায় ঘুরছে কিন্ত্তু সময় নেই বলে আজ লিখতে পারলাম না

    মাফ করবেন

    ২৮
  20. আদদফ বলেছেনঃ

    শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে যে সকল দুর্নীতি মামলা সরকারী আদেশে প্রত্যাহার করা হয়েছে-
    ১. নাইকোকে ২০০১ সালে অবৈধভাবে গ্যাস উত্তোলনের অনুমতি প্রদান, ১৩,৬৩০.৫ কোটি টাকা;
    ২. মিগ-২৯ বিমান ক্রয়ে দুর্নীতি, ৭০০ কোটি টাকা;
    ৩. কোরিয়ান ফ্রিগেট ক্রয়ে দুর্নীতি, ৪৪৭ কোটি টাকা;
    ৪. মেঘনা ঘাট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে ঘুষ গ্রহণ, ১৭.৮৯ কোটি টাকা;
    ৫. খুলনায় ভাসমান বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানে মোহাম্মদ আজিজের নিকট হতে ঘুষ গ্রহণ, ৩ কোটি টাকা;
    ৬. টুঙ্গীপাড়ায় স্মৃতিসৌধ নির্মানে দুর্নীতি, ৪১.৮৪ লক্ষ টাকা;
    ৭. আজম জে চৌধুরীর নিকট হতে ঘুষ গ্রহন, ৩ কোটি টাকা;
    ৮. কাজী তাজুল ইসলাম ফারুকের নিকট হতে ঘুষ গ্রহন, ৩ কোটি টাকা;
    ৯. নূর আলীর নিকট হতে ঘুষ গ্রহণ, ৫ কোটি টাকা;
    ১০. বেপজায় আমেরিকান লবিইস্ট নিয়োগে ঘুষ গ্রহণ, ২.১ কোটি টাকা; এবং
    ১১. নভোথিয়েটার নির্মানে দুর্নীতি, ৫২ কোটি টাকা।

    ২৯
  21. জনতার মতামত বলেছেনঃ

    আদদফ মিয়া, আপনের রাজনৈতিক দল সম্বন্ধে ধারনা নাই। রাজনৈতিক দলকে অনেক শুভাকাঙ্খী নিয়মিত টাকা পয়সা দিয়া চালায়। হেইডা কোন ব্যাক্তিগত ঘুষ না। আপনে যে গুলো তুইলা ধরছেন, বিএনপি-জামাতীগো হেইগুলা ধরলে তিন হাজার পৃষ্ঠা কাগজেও লেইখা শেষ করন যাইব না। আপনাগো মতো কিছু মাইনষের হুদাই বগর বগর করার অভ্যাস।

    ৩১
  22. হানিফ বলেছেনঃ

    ড: কামাল হোসেনের মেয়ে ব্যারিষ্টার সারা হোসেনের স্বামী ডেভিড বার্গমেনের এই লেখাটি সর্ম্পকে লেখকের মতামত চানতে চাই ।

    ১. http://bangladeshwarcrimes.blogspot.com/2012/11/exclusive-wife-of-abducted-witness.html
    ২. http://bangladeshwarcrimes.blogspot.com/search/label/1971%20death%20figures

    ৩২
  23. আবীর বলেছেনঃ

    জঃমঃ কথা থেকে যা বুঝলাম তা হল — বি,এন,পি ও জামাতের প্রেমের কাহিনী অতীব সুপ্রাচীন এবং অতলগভীর । তলে তলে তলানীতে ,কে তলে পরে থাকবে তা বুঝা কঠিন। ভবিষতে দেখা যাবে। তবে আকাশে কালো মেঘের গর্জন থেকে বাংলাদেশের ভাগ্যাকাশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উপর ১০ নং সিগনাল এটা আন্দাজ করা যায়। এমন প্রেমিক বি,এন,পি ,কে জামাত লতার মত পেঁচিয়ে রাখবে। বি,এন,পি এর শ্লোগান হল ,তোর যে যা বলিস ভাই আমরা জামাতকে চাই।

    ৩৩
  24. ইশতিয়াক বলেছেনঃ

    আ লীগ মুক্তিজুদ্ধ বেইচা খায় ।
    জামাত ইসলাম বেইচা খায় ।
    বি এন পি একসাথে দুইটাই বেইচা খায় ।
    বাকিরা কোন একটা বেচার চেষ্টা করে , কেউ কিনে না ।
    আসল কথা বাংলার কোন পলিতিশিয়ান ভাল না । সব কয়টায় সমান খারাপ , মন্দের ভাল বইলা কিছু নাই ।

    ৩৪
  25. Hossain বলেছেনঃ

    বি,এন,পি ও জামাতের প্রেমের কাহিনী অতীব সুপ্রাচীন এবং অতলগভীর- তাহলে ১৯৯৬ তে জামায়াতের সাথে অা:লীগের প্রেমকে কি বলবেন? মধুচন্দ্রিমা জাতীয় কিছু?
    বিএনপির সাথে জামায়াতের প্রেম নিয়ে অন্তর্জালা কেন? অাপনাদের প্রেমিক হাতছাড়া হয়ে গেছে বলে? বিষয়টিকে প্রভা-রাজিবের প্রেম কাহিনীর সাথে তুলনা করা যায়? প্রভা পালিয়ে অপূর্ব কে বিয়ে করলে রাজিবে তার পূর্বের ভিডিো নেটে ছেড়ে দেয়। অনুরূপ ভাবে জামায়াত অাপনাদের ছেড়ে বিএনপির সাথে চলে গেলে অাপনারা ৭১ এর স্মরনাপন্ন হন। যদি তা-ই না হতো তাহলে ৯৬ তে কেন তাদের দোয়া-অাশির্বাদ নিয়ে ক্ষমতায় গেলেন? তারপর পাচ বছর ক্ষমতার মধুচন্দ্রিমা উপভোগ করলেন কিন্তু ঘুর্নাক্ষরে ো তাদের বিচারের কথা মুখে অানলেন না, এমনকি কিছু দিন অাগের গনঅাদালতের কথা পর্য়ন্ত বেমালুম ভুলে গেলেন?
    তাই বলছি- প্রেমিক হারানোর বেদনা অাসলেই কঠিন, যেটা অাপনারা এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন। সত্যি, অাপনাদেরকে সান্তনা দেবার ভাষা এখন খুজে পাচ্ছিনা। তবে মহান অাল্লাহর কাছে কায়োমনো বাক্যে দোয়া করছি যাতে অাপনারা অাপনাদের পুরনো প্রেমিক জামায়াতকে ফিরে পান। যদি তা না পান তাহলে যেন একটা গতি হয়!

    ৩৫

কিছু বলতে চান? লিখুন তবে ...