ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

শিরোনাম প্রসঙ্গে বলছি:
হতাশার কিছু নেই, আমাদের ক্রিকেটার পাকিস্তান থেকে লাশ হয়েও ফিরতে পারে। অন্তত গত এক বছরের পাকিস্তানের পরিস্থিতির ফ্ল্যাশ ব্যাক দেখলে এমনটা যে কেউ ধারনা করে নিতে পারে। শুধু ২০১২ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাকিস্তানে বোমা হামলায় নিহত হয়েছে ৯২৫ জন এবং আহত হয়েছে ২,৩৯৪ জন। এমন একটা উদ্ভূত পরিস্থিতির মাঝে পাকিস্তানে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল, তাহলে সাথে করে কফিন নিয়ে গেলে সমস্যা কোথায় ? তাই বিসিবির নিকট আগাম দ্বাবি জানিয়ে রাখছি, শুধু মাত্র ক্রিকেটারদের মাথা গুণে অর্জুন কাঠের কফিনের অর্ডার দিয়ে দিন। পরে আবার কফিন যদি তাড়াহুড়ার মাঝে দেরি হয়ে যায়।


এইবার আসছি মূল আলোচনা:

আমরা জানি যে পাকিস্তান মূলত ক্রিকেট বিশ্ব থেকে এক প্রকার বিচ্ছিন্ন।২০০৯ সালের পর একটি আন্তর্জাতিক ম্যাচও আয়োজন করতে পারেনি। কারণ কেউ সেই দেশে খেলতে যেতে রাজি না। এই জন্য ক্রিকেট বিশ্বের কোনও দোষ নেই। দোষটা তাদের নিজেদের, জঙ্গিবাদ, রাজনৈতিক অস্থিরতা,নিরাপত্তা দানে সরকারের ক্রমাগত ব্যর্থতা এর জন্য দ্বায়ী।আর তাই ক্রিকেট বিশ্বের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি বারণ করে দিয়েছে পাকিস্তানে কোনও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ নয়। বলা যেতে পারে ক্রিকেট বিশ্বে ক্রমাগত পাকিস্তান একটি মৃত্যু হাতিতে রূপান্তরিত হয়ে যাচ্ছে। সেজন্য, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড তাদের ক্রিকেট কে বাচিয়ে রাখার স্বার্থে নিরপেক্ষ ভেন্যু তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে যাচ্ছে। যদিও এটা পাকিস্তানের ঘরের কথা এটা নিয়ে অযৌক্তিক মাথা ঘামানোর মত এত সময় আমাদের নেই, কিন্তু আমি যে বিষয়ে বলতে পারি তা হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের সাথে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে তারা খেলার আয়োজন করছে না কেন ? রহস্যটা কী ? নাকি বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম বর্তমান বিশ্বের অন্যান্য ক্রিকেট টিমের চেয়ে খানিকটা দুর্বল বলে ?

আমি স্পষ্ট বলতে পারি, যেই পাকিস্তানে ক্রিকেট বিশ্বের অন্যান্য দলগুলো খেলতে যেতে অপারগতা প্রকাশ করে সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে খেলা হতে পারে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে কিন্তু পাকিস্তানে গিয়ে আমরা খেলব না, সেখানে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানে যেতে বাধ্য করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড কী আমাদের সম্মান দেখিয়েছে ? নাকি খানিকটা অবমূল্যায়ন করেছে সেটা একটু ভেবে দেখা যেতে পারে।

এবার বলছি আমাদের ক্রিকেট বোর্ড কে,
যেখানে ক্রিকেট বিশ্বের কোনও দেশ পাকিস্তানে ক্রিকেট খেলতে যেতে রাজি হয় না, সেখানে আমাদের বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের পাকিস্তান সফরের প্রয়োজনীয়তা কী ? আর আমাদের ক্রিকেট বোর্ড এর বা এতটা আগ্রহ কেন ? বুঝলাম না বিসিবির মাঝে দালালটাকে ? বুঝলাম না বর্তমান সরকারের আমলে যারাই ক্রিকেট এর কমিটিতে আসছেন তাদের মনে কেন পাকিস্তান প্রীতি ? বুঝলাম না যেখানে সারা পৃথিবীর ক্রিকেট টিম গুলো পাকিস্তান সফর না করার পক্ষে সেখানে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের কেন পাকিস্তান সফর জরুরী ? বুঝলাম না বিপিএল ক্রিকেট বাচানোর জন্য কেন পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের দরকার ?

ঠিক আছে, বিপিএল আমাদের জন্য জরুরী কিন্তু সেটার জন্য পৃথিবীর অন্যান্য দেশ রয়েছে যেখান থেকে তারকা ক্রিকেটার এনে আমাদের বিপিএল সমৃদ্ধ হতে পারে। ভারত তাদের খেলোয়াড় বিপিএল এ দিবে না বলে যে বিসিবির পাকিস্তানের কাছে ওয়াদা করতে হবে যে আমাদের বাংলাদেশ এর ক্রিকেটারদের পাঠাচ্ছি, বিনিময়ে আপনাদের (পাকি) খেলোয়াড় দিতে হবে আমাদের বিপিএল এর জন্য। এটার কোনও মানে খুজে পাচ্ছি না।

আচ্ছা ধরে নিচ্ছি পাকিস্তান ওয়াদা করলো, যে কঠোর নিরাপত্তা দিবে বাংলাদেশ থেকে ক্রিকেটার পাঠান কিন্তু প্রশ্ন থাকে যে পাকিস্তান হচ্ছে পৃথিবীর এমন একটি দেশ যেখানে ভাল মানুষ সংখ্যালঘু ও সন্ত্রাসীরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। যে পাকিস্তানের সরকার প্রধান কে রাতে ঘুমাতে যেতে হয় ছয় স্তর বিশিষ্ঠ নিরাপত্তা বলয় তৈরি করে সেখানে, সেই পাকিস্তানে অন্য দেশের নাগরিকদের নিরাপত্তা কতটুকু ? আর তাদের নিজের দেশের ক্রিকেটার দের যেখানে নিরাপত্তা নেই সেখানে অন্য দেশের ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা কতটুকু ?

শেষ কথা, পাকিস্তানে গিয়ে যদি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবাইকে লাশ হয়ে ফেরত আসতে হয়ে কফিনে করে তাহলে এর দ্বায়ভার কে নিবে ? বিসিবি ? আইসিসির সহ সভাপতি ? প্রধানমন্ত্রী ? নাকি যার যার সন্তানরা জীবনের রিস্ক নিয়ে খেলতে যাচ্ছে তাদের বাবা-মায়েরা ? অবস্থার স্পষ্ট ব্যাখ্যা চাই। তারপরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে পাকিস্তানে পাঠানো হোক।

আমার বক্তব্য:
বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এর পাকিস্তান সফরের বিপক্ষে মতামত দিচ্ছি।

@সুলতান মির্জা।