ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ একজন সুযোগ সন্ধানি মানুষ। সুযোগ সন্ধানী মানুষ গুলি কেমন হয় তা এদেশের নাগরিকদের অজানা নয়। তিনি আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মপক্ষ সমর্থন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর তাকে প্রথম পোস্ট মাস্টার জেনারেল করা হয়।

পরে দেশের প্রথম সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানের সঙ্গে যোগ দেন মওদুদ। জিয়া তাকে মন্ত্রী ও উপপ্রধানমন্ত্রী করেছিলেন। জিয়ার মৃত্যুর পর মওদুদ সামরিক শাসক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের হাত ধরেন। এরশাদের নয় বছরের শাসনামলে তিনি মন্ত্রী, উপপ্রধানমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী এবং উপরাষ্ট্রপতির দায়িত্বও পালন করেন।

মওদুদ আবার বিএনপিতে ফেরেন। এবং ২০০১-২০০৬ মেয়াদে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারে আইনমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। আজ বেগম জিয়া যার জন্য কথার বুলি ছাড়ছেন তিনি হয়তো ভুলে গেছেন উনার স্বামীর (শহীদ জিয়াউর রহমান) সামরিক শাসন আমলে ব্যারিস্টার মওদুদ মন্ত্রী ও উপপ্রধানমন্ত্রী ছিলেন। উনার স্বামী খুন (শহীদ) হবার পর সেই ব্যারিস্টার মওদুদ তার স্বামীর খুনি আরেক সামরিক শাসক এরশাদ এর হাত ধরে টানা নয় বছর মন্ত্রী, উপপ্রধানমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রী এবং উপরাষ্ট্রপতির দায়িত্বও পালন করেন।

তারপরও বেগম জিয়া আবার তার আমলে ২০০১-২০০৬ মেয়াদে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারে আইনমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের সুযোগ করে দেন।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সুযোগ সন্ধানী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে তার দল ও সরকারে স্থান দিয়ে বেগম খালেদা জিয়া কি নিজেকে সুযোগ সন্ধানীদের একজন প্রমাণ করেননি?

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো বিডিনিউস২৪ডটকম