ক্যাটেগরিঃ খেলাধূলা

 

আগামী ১২ ও ১৩ জানুয়ারি-২০১৩ সালে, একটি “একদিনের আন্তর্জাতিক ও টোয়েন্টি ২০ ম্যাচ” খেলতে পাকিস্তান সফরে যাবে বাংলাদেশ ক্রিকেটদল। এর আগে চলতি বছরের শুরুর দিকেই বাংলাদেশ ক্রিকেটদলের পাকিস্তান সফরের সব কিছু প্রায় ঠিক হয়ে গিয়েছিল। শুধুমাত্র বিসিবির সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামালের উদ্যোগেই ছিল, কিন্তু তাতে বোর্ডের বেশির ভাগ পরিচালকেরই রাজি ছিলেন না। শেষ পর্যন্ত গত ১৯ এপ্রিল মোস্তফা কামালকে থামালেন হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা। হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হলেও পাকিস্তান সফরে উদ্যোগী হয়নি ছিলেন না সাবেক সভাপতি মোস্তফা কামাল। কিন্তু এবার দায়িত্ব গ্রহণের কিছু দিনের মাঝেই আবার পাকিস্তান সফরে উদ্যোগী হলেন বর্তমান বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।(সূত্রঃ নয়া দিগন্ত, ১৪.১২.১২)।

উল্লেখ্য গত মার্চ-২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলের বাসে সন্ত্রাসী হামলা হয় এবং তার পর থেকে পাকিস্তানে কোন দেশ খেলতে যায়নি।যেখানে কোন দেশ পাকিস্তান সফরে যেতে চায় না, সেখানে আমরা কেন পাকিস্তান যাব? আমাদের বিসিবির স্বার্থ কি? বিসিবি অবৈধ প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে আমাদের ক্রিকেটারের কেন জীবন ঝুঁকি থাকবেন? যেই দেশ নিজ দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিতে পারে না, তারা কিভাবে আমাদের ক্রিকেটাদের নিরাপত্তা দিবে? যেখানে আজ বুধবার দেশটিতে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হামলায় আরও দুজন মারা গেছেন। এক সপ্তাহের মধ্যে এ ধরনের হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল আটজনে।(সূত্রঃ প্রথম আলো)।

“বিসিবিকে পিসিবি লিখিত জানিয়েছে, বাংলাদেশ দলের সফর নিশ্চিত না হলে বিপিএলের দ্বিতীয় আসরে কোন পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে খেলার অনুমতি দেয়া হবে না”।আমরা পাকিস্তানি ক্রিকেটার চাই না আমাদের বিপিএলের দ্বিতীয় আসরে। আমাদের বিপিএল বন্ধ হয়ে যাবে? যাক বন্ধ হয়ে যাক, তবুও আমাদের ক্রিকেটাদের জীবনের ঝুঁকি চাই না। অন্যথায় আমও যাবে, ছালাও যাবে! আসুন সবাই পাকিস্তান সফরের বিরুদ্ধে সোচ্চার হই এবং পাকিস্তান সফর প্রত্যাখ্যানের দাবি জানাই।