ক্যাটেগরিঃ গণমাধ্যম

 

2017-07-13-22-38-08-036

সাংবাদিক, যিনি মানুষের সুখ-দুঃখের কথা লিখবেন। লিখবেন ভোগান্তীর গল্প। সাংবাদিকদের কারণে একটি আন্দোলন বেগবান হয়। যার প্রমাণ ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে সাংবাদিক বুদ্ধিজীবীরা প্রাণ দিয়ে প্রমাণ করে গেছেন।

দেশের ভাবমূর্তি বিশ্বের কাছে তুলে ধরে সাংবাদিক। সেই সাংবাদিকদের নাম ব্যবহার করে অনেকেই অপরাধ করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত। এতে করে আসল, সত্যিকারের সাংবাদিকদের মানহানি ঘটছে। মানুষের আস্থা উঠে যাচ্ছে এই মহান পেশাটির উপর থেকে। সম্মানের বদলে অসম্মান কামাতে হচ্ছে। আসল সাংবাদিকরা পড়ছে ভোগান্তিতে।

সাংবাদিক নাম ব্যবহার হচ্ছে যত্রতত্র। প্রশাসনকে ফাঁকি দিতে প্রেস আর সাংবাদিক লেখা ব্যবহার হচ্ছে বাইকে। কিন্তু যারা এমনটা করছে তাদের অনেকেই সাংবাদিক নয়।

তখন সময় দুপুর ৩ টা। চাঁদপুরের একটি শপিং মলের সামনে গাড়ি (বাইক) নিয়ে হাজির দুই যুবক। বাইকের সামনে লিখা সাংবাদিক! লাইসেন্স নেই নিমপ্লেটে লেখা প্রেস (PRESS)। দেখে মনে হলো না তারা সাংবাদিক। হুট-হাট করে দৌড়ে তাদের জিজ্ঞেস করতে গেলাম। ওমনি তাদের নাগাল আর পাওয়া গেল না।

কিছুক্ষণ পর কালী বাড়ি কোর্ট স্টেশনের সামনে আরেক বাইক আরোহীর সাথে দেখা। দ্রুত ছুটে যাই তার কাছে। বাইকে লেখা আছে সাংবাদিক। প্রশ্ন করলাম, ‘কোন পত্রিকায় কিংবা মিডিয়ায় কাজ করেন?’ কিছু আবোল-তাবোল জবাব। কি যেনো একটা পত্রিকার নাম বললো। কয়েক শতবার ঘেটে ও খুঁজে পাওয়া গেলো না পত্রিকার নাম। কিছুক্ষণ পর কথা তিনি বললেন, ‘ভাই আসলে হুন্ডাটা আরেক জনের। হয়তো তিনি সাংবাদিক।’

প্রিয় পাঠক, তিনি জানেন না আসলে কে সাংবাদিক। ঘটনা সমন্ধে জানতে ততক্ষণাৎ সাক্ষাত করি চাঁদপুর ট্রাফিক জোনের টিএসআই জয়নাল পিপিএম এর কাছে। তার সামনে দিয়েই সাংবাদিক নামক আরেকটি বাইক ও গেলো। প্রশ্ন করলাম, ‘লাইসেন্স ছাড়া গাড়িতে সাংবাদিক লিখে চলাটা কতটা যুক্তিসংগত? আর আপনি তাকে আটকালেন না কেন?’

তিনি একটু ইতস্তত হয়ে বললেন, ‘কি করবো বলেন। নকল সাংবাদিকদের ভিড়ে আসল সাংবাদিক চেনা বড় দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্যাঙের ছাতার মত সাংবাদিক, প্রেস লেখা বাইকগুলো দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। প্রশ্ন হলো আসলেই কি এরা সাংবাদিক? নাকি সাংবাদিক নামক মহান পেশাটিকে অবলম্বন করে তারা কুকর্মে জড়িত হচ্ছে?

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এসব লাইসেন্স বিহীন বাইক আটকালে তারা সাংবাদিক নাম বলে আমাদের ফাঁকি দেয়। বাইকে সাংবাদিক লেখা থাকে আমরা ভাবি তারা তো গুরুত্বপূর্ণ কাজে দৌড়াচ্ছে।’

আইনও বলছে লাইসেন্স বিহীন গাড়ি রাস্তায় চালানো অপরাধ। তার উপর পুলিশ, সাংবাদিক পরিচয় গাড়িতে কিংবা বাইকে ব্যবহার নিষিদ্ধ বলে উল্লেখ আছে আইনে। যদি পরিচয় লাগাতে হয় তবে যে প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন সে প্রতিষ্ঠানের লোগো ব্যবহারের নির্দেশ রয়েছে। কিন্তু বাস্তবে রাস্তায় ঘটছে তার উলটোটা।অনেকেই মানছেন না আইন। আর এতে করে আইন-শৃঙ্খলায় নিয়োজিত পুলিশ সদস্যরা বিপাকে পড়েন। কোনটা আসল, কোনটা নকল সেই টানাপোড়নে পড়তে হয় খোদ পুলিশ কর্তাদের।

বিষয়টি গুরুত্বের সাথে প্রশাসন দেখবে এমনটা প্রত্যাশা সাধারণ জনগণের।