ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

 

আমরা সবাই ত্রিভুজ প্রেমের গল্প সঙ্গে পরিচিত, এই গল্পগুলো বেশির ভাগই করুণভাবে সমাপ্ত হয় যদিও সেই গল্প গুলো উত্তেজনার কারণ এবং রমণ পূর্ণ হতে পারে। কিন্তু, বিপদ হয়ে যেতে পারে যদি গল্পটি তিন শত্রু নিয়ে হয়? তা জানতে আমাদের হয়তো কয়েক দশক অথবা কিছু দিনের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। কারণ, আপনারা ইতিমধ্যে জেনেছেন একটি জরিপ প্রকাশিত হয়েছে যারা ভবিষ্যত বাণী করেছে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ অতি সন্নিকটে!

এই আকর্ষণীয় ত্রয়ী প্রভাব- তিন মহাশক্তি থেকে বিস্তার লাভ করেছে। কিন্তু অনুরূপ উপায়ে না বরং এটা ভিন্ন ভিন্ন তিন মহাশক্তিধর দেশের ক্ষেত্রে। রাজনীতি বিজ্ঞানের বিশেষজ্ঞ হিসেবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন- যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষয়িষ্ণু ক্ষমতা, চীন এর শক্তি বৃদ্ধি এবং রাশিয়া এর প্রভাব পুনঃপ্রাপ্তি। তাছাড়া, এই তিনটি দেশের স্বতন্ত্র্যভাবে সবাই উচ্চাকাঙ্ক্ষী যে একটি এক কেন্দ্রিক বিশ্ব তৈরীর দ্বারা বিশ্বের অন্যদের ডিঙিয়ে নেতৃত্ব দেওয়া, যেখানে কেবল সেই হবে একমাত্র শক্তিধর দেশ।

অবশ্যই, কিছু বুদ্ধিজীবী যুক্তি দেখাতে পারেন যে রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার স্নায়ু যুদ্ধ কয়েক দশক পূর্বেই শেষ হয়েছে যার মাধ্যমে মার্কিন নেতত্বে এক বিশ্ব এখনও বর্তমান। কিন্তু আমি মনে করি, এটি সুপ্ত অবস্থায় ছিল। যা নতুন করে চীনের অর্ন্তভুক্তির মাধ্যমে নতুন মাত্রায় পুনরায় উদ্ভব হয়েছে। তাই …. অভিশাপ সত্যিই আসছে?

এছাড়াও আমরা অসহায় বোধ করছি কারণ সারা বিশ্বে চরম জাতীয়তাবাদী এবং ভিন-দেশীদের ঘৃণাকারী লোকজনের হাতে রাষ্ট্র ক্ষমতা চলে যাচ্ছে যারা মানবাধিকার নিয়ে সামান্যই ভাবে। এই মারমুখো নেতাদের অনুসারীরা অনেক সময় সামরিক কার্যক্রম উসকে দেয়। আমরা যদি বিশ্বের দিকে তাকাই– ব্রেক্সিট, ইউক্রেন, মার্কিন নির্বাচন এবং সমকালীন রাজনৈতিক বিষয়াবলি থেকে এটা স্পষ্ট যে বিশ্বের চরম জাতীয়তাবাদী দ্বারা বিশ্ব রাজনীতি নিয়ন্ত্রিত হতে যাচ্ছে যা সর্বত্র রাজনৈতিক হাওয়া দিন দিন খারাপ করে দিচ্ছে।

উপরন্তু, বিভিন্ন ধর্মের চরমপন্থী অংশগুলো তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ এর কেন্দ্র হতে পারে। বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্য ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যুদ্ধে  জড়িত এবং বেশি বা কম অশান্ত পরিস্থিতি প্রতিটি দেশে উপস্থিত। ত্রয়ী প্রভাবের ফল সেখানেও সক্রিয় হচ্ছে!

অবশেষে, তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করা যদিও অসম্ভব তবুও এটা বলা যায় যে ত্রয়ী প্রভাব যে কোনো সময় বিশ্ববাসীকে করুণ কাহিনী দেখা তরান্বিত করতে পারে ত্রিভুজ প্রেমের গল্প বা ত্রিভুজ শত্রুদের গল্প মত….।