ক্যাটেগরিঃ শিল্প-সংস্কৃতি

 

সুলতান সুলেমান একটি টিভি সিরিয়াল দ্বীপ্ত টিভি সম্প্রচার করছে। এটি জনপ্রিয়তাও পেয়েছে বেশ- এমনি জাতীয় দৈনিকগুলো এর কিছু পর্ব নিয়ে সংবাদ/প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। যাহোক, বিশ্বায়নের এ যুগে দর্শক/শ্রোতা কি দেখবেন বা শুনবেন তা নিয়ন্ত্রণ অসম্ভব প্রায়। তবুও টিভি চ্যানেলগুলোর কিছু দায়িত্ব কর্তব্য রয়েছে অনুষ্ঠানসমুহ নির্ণয়ের ক্ষেত্রে যা তারা প্রচার করতে চায়। আমি সে দৃষ্টকোণ থেকেই কিছু বলার চেষ্টা করছি।

সুলতান সুলেমান এর আগেও আমরা ভিনদেশী অনেক সিরিয়াল দেখেছি যেমন আলিফ লায়লা, ম্যাগগাইভার ইত্যাদি। কিন্তু এই ভিনদেশি সুলতান সুলেমান প্রচারের পর একটি লক্ষ্যণীয় প্রতিযোগিতা আমরা টিভি চ্যানেলগুলোর মাঝে দেখছি তা হলো ভিনদেশী সিরিয়াল প্রচার করার প্রবণতা। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি চ্যানেল এ কাজে মনে হয় কোমর বেধে নেমে পড়েছেন। যা আপনারা দেখছেন।

সমস্যাটি হলো এ প্রতিযোগিতার ভয়াবহতা! প্রথমত, এসব আমাদের সংস্কৃতির সাথে সাংঘর্ষিক। প্রশ্ন হলো কেন আমরা এগুলো প্রচার এমনকি প্রসারে ভূমিকা রাখছি? দর্শকের কাছে জনপ্রিয়তা বাড়ানোর জন্য! এটি ভুল ব্যাখ্যা- কারণ, আপনারা নিশ্চয় বাকের ভাই, রুপনগর, ইত্যাদি এর কথা ভুলে যাননি। আসলে বিষয়টি মানের সাথে সম্পর্কিত। মান সম্পন্ন সব অনুষ্ঠানই দর্শক জনপ্রিয়তা পায় এবং সংগত কারণে সেই চ্যানেলটির জনপ্রিয়তাও বেড়ে যায়। সুতরাং নির্মাতাদের মান সম্পন্ন অনুষ্ঠান নির্মাণ করতে হবে।

এখন হয়তো অনেকে বলবেন- মান সম্পন্ন অনুষ্ঠান নির্মাণ হচ্ছেনা বলেই এসব চ্যানেল ভিনদেশি প্রিয় হয়ে যাচ্ছে সাথে সাথে দর্শক/শ্রোতারাও। এটিও আংশিক মেনে নিলাম। কিন্তু এভাবেই কি চলবেন বা চলতে দিবেন? তাহলেতো কিছু দিন পর আর কোন দেশি অনুষ্ঠানই খুঁজে পাবেন না! সুতরাং প্রতিযোগিতা হওয়া উচিত দেশীয় অনুষ্ঠান এর মান উন্নয়নের ব্যাপারে, দেশীয় কলা কৌশুলীদের উৎসাহ দেয়ার ব্যাপারে। আর চ্যানেলগুলোই এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক এর ভূমিকা পালন করবে এটাই কাম্য।

আরেকটি বিষয় হলো এর সাথে অর্থনৈতিক সম্পর্ক। দেশীয় প্রোগামগুলোতে হয়তো তারা বিজ্ঞাপণ কম পান যা চ্যানেলগুলোর জন্য লাভজনক নয়। আচ্ছা এজন্য কি মূখ ঘুরিয়ে নিবেন? ভিনদেশী অনুষ্ঠান গুলোর পিছনে আপনাদের ব্যায় কত? টাকাগুলো যাচ্ছে কোথায়? এসব প্রশ্ন রেখে গেলাম।

আমার মতামত: একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবেই বলছি- ফিরে আসুন দেশের কাছে আমরাও থাকবো আপনাদের সাথে সব সময়।