ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

বর্তমান সংবাদ:
জামাতের যুদ্ধাপরাধী নেতাদের বিচারের বিরুদ্ধে ডাকা হরতালে নৈতিক সমর্থন দিয়েছে বিএনপি। অর্থাৎ নৈতিকভাবে যাহা জামাত তাহাই বিএনপি। যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে জামাতের ব্যানারে বিএনপির হরতাল। জামাত জিন্দাবাদ।

পূর্ব সংবাদ:
১৯৯৬-এর ক্ষণস্থায়ী সংসদের মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বিল পাস করতে বাধ্য হয়েছিল বিএনপি সরকার। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা হিসাবে বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান শপথ গ্রহন করেন। সেই মহেন্দ্রক্ষনে তত্বাবধায়ক সরকারের সাফল্য কামনা করে শেখ হাসিনা নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করেছিলেন এই বলে,”জনগণের অপরিসীম ত্যাগ ও তিন দলের আন্দোলনের ফলে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠার দাবি বিএনপিকে মানতে বাধ্য করা হয়েছে।” এখানেই শেষ নয়, আবেগাপ্লুত কণ্ঠে ও দৃঢ় চিত্তে বলেছিলেন ” “ন্যায় ও সত্যের সংগ্রাম সব সময় জয়ী হয়।” উল্লেখ্য এই ন্যায় ও সত্যের সংগ্রামে তিন দলের একটি ছিল জামাত। জয় জামাতের জয়।

সারমর্ম:
নৈতিকতা খুবই জটিল জিনিস। আমাদের রাজনীতিকদের নৈতিকতা, ন্যায় ও সত্য সদা পরিবর্তনশীল। যদি পরিবর্তনশীল না হত তবে নব্বই হতে বর্তমান পর্যন্ত জামায়াত দিনে দিনে এতটা শক্তিশালী হয়ে উঠত না। আমাদের প্রধান দুইটি রাজনৈতিক দল দুধ কলা দিয়ে জামায়াত নামক সাঁপ পুষেছেন। একবারও ভেবে দেখার প্রয়োজন বোধ করেন নাই সাঁপটি দিনে দিনে তার বিষদাঁতে কতটা বিষ সঞ্চয় করছে। আমাদের দায়িত্ব এখন এই বিষদাঁত ভেঙে দেওয়া। আজ হরতালে একবার রাস্তায় নেমে জানিয়ে দিন যে হরতালে আপনার সমর্থন নেই।

———————————————————————————–
এই পোস্টটির সাথে সহমত পোষন করলে পোস্টটি শেয়ার করুন