ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

ছাত্র রাজনীতির নামের সাথে যে জিনিসগুলো আমাদের চোখের সামনে চলে আসে – গুলিসহ অমুক ছাত্রনেতা আটক, হল দখল নিয়ে অমুকদল অমুকলীগ মারামারি, দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, ধর্ষন মামলা, রগকাটা ইত্যাদি। এভাবেই চলে আসছে দীর্ঘ ৩০-৪০ বছর যাবত।

একজন ছাত্রের প্রধান কাজ কী? প্রথমত নিশ্চয়ই পড়াশোনা করা। এখন ভাবতে পারেন তাহলে রাজনীতি কে করবে? রাজনীতি ঐ ছাত্রই করবে কিন্তু সেটা আফটার কেরিয়ার! ২০ বছরের একজন ছাত্র রাজনীতির পিছনে সময় দিবে না পড়াশোনা করবে, নাকি নিজ পেশা নিয়ে ভাববে? রাজনীতিকে নিজের পেশা হিসেবে নেয়া  আমাদের মত দরিদ্র দেশে কতটা উপকারি?

একজন ছাত্রনেতা প্রচন্ড মেধার অধিকারী, এই মেধাটা সে যদি অন্য কাজে খাটাত, তিনি হয়ত কোন একটা পতিষ্ঠানের মালিক থাকত যেখানে ৫০জন বেকারের কর্মসংস্থান হত।

উন্নতবিশ্বে দেখা যায় কোন মন্ত্রী স্ব স্ব কাজে দায়িত্ব পালন করতে ব্যর্থ হলে পদত্যাগ করে, এমনকি রাষ্ট্রপ্রধানরাও। আমাদের দেশে এমন নজির খুঁজে পেতে হলে দূরবীক্ষন লাগবে, খুঁজেইবা পাবো কিভাবে! গত ২০-৩০ বছর চাটুকারিতা করতে করতে আজকের এই অবস্থানে আসতে পারছেন যে!

ছাত্র রাজনীতি থেকে দেশ আজ কী পাচ্ছে তা এখন আর বোঝার বাকি নেই! একটু নিরপেক্ষ মন নিয়ে ভাবলেই বুঝতে পারা যায়।