গান যখন জীবনের প্রাণ!

/

চোখের আলো নিভে গেছে, তাই বলে জীবন তো থেমে থাকে না! জীবিকার টানে, গানই এখন জীবনের একমাত্র অবলম্বন ভিডিওটি রাজশাহী শহরের পদ্মা নদীর পাড় থেকে মুঠোফোনে ধারণ করা। সুমিত বণিক, উন্নয়নকর্মী।  

গান এবং ইভটিজিং

/

আপনার সন্তানকে শেখাবেন ইভটিজিং আবার তাকে বলবেন ইভটিজিং করো না! এমন চাওয়া আসলে অবাস্তব। একটি গান আছে– “মেলায় যাইরে”। ওখানে এমন কথা আছে “বখাটে ছেলের ভিরে ললনাদের রেহাই নাই।” কোন মেলায় গিয়ে কোন ভদ্র ছেলে এ গান শুনলে তারও একটু সুযোগে বখাটে হবার ইচ্ছে জাগতে পারে আর বখাটেরাতো পাগল হয়ে ললনাদের রেহাই না দেবারই জন্য… Read more »

পূর্ণিমা-জ্যোৎস্নার গান

/

পূর্ণিমার রাতটা চলে গেলো। বৈশাখী পূর্ণিমা। গ্রামের তুলনায় শহরে অনেক রাত অবধি জেগে থাকে মানুষ। গ্রামে রাত সাড়ে দশটা মানে তো গভীর রাত; শহরে তখন সন্ধ্যা মাত্র। তারপরও নাগরিক রাতের পূর্ণিমার বঞ্চনা বেশি। পথে চলতে মানুষ আকাশ দেখে না। সাঁইসাঁই গাড়ির গতি আর অজস্র বাতির মিছিলে চোখ সতর্ক থাকে। তখন চাঁদ দেখতে গেলে গাড়িচাপার ভয়… Read more »

প্রসঙ্গ: গানের বাজার – খাজনা দিতেই বাজনা থেমে যাচ্ছে!

/

গান-বাজনা ব্যাপারটা ক্রমশ CSR (কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা) খাতে চলে যাচ্ছে! আমি ব্যক্তিগতভাবে খোঁজ নিয়ে জেনেছি, এই দেশের হাতে গোনা সর্বোচ্চ দশ জন শিল্পীর বাইরে আর কেউ অ্যালবামের জন্য কোনো রয়ালটি পান না, অল্প ক’জন আছেন যাঁরা ‘নগদ যা পাও হাত পেতে নাও’ থিওরিতে অ্যালবাম তুলে দেন প্রকাশকের হাতে, বাকিরা উল্টো প্রকাশককেই টাকা দেন অ্যালবাম প্রকাশের… Read more »

আমার লিরিকগুলো আজকাল আর সবুজ হয় না!

/

কাঁচাবাজারে ঢুকতে বেরুতে কিংবা অনেক ঝাঁ-চকচকে শপিং মলের পাশেও, কিছু ছোট দোকান থাকে, দোকানগুলো দেখলেই বুকের ভেতর কেমন একটা ধাক্কা লাগে। প্রায় শূন্য, ফাঁকা একটা ঘর, কোনোরকমে একটা জরাজীর্ণ টেবিল পেতে তার পেছনে নড়বড়ে চেয়ারে বসে উদাস চোখে হাই তুলছে কেউ। এরা ঠিক কী বিক্রি করে তা কে জানে? কোনো কোনো দোকানে চেয়ার-টেবিলেরও বালাই নেই,… Read more »