মানিকের গল্প…

/

বাবুটার নাম মানিক। বাড়ি টেকনাফে। বাবা গত হয়েছেন আরো বছর কয়েক আগে। সে এখন ক্লাস ফোরে পড়ে। চার ভাই-বোনের মধ্যে বড় ছেলে সে! টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যাওয়ার পথে জাহাজে কথা হয় তার সঙ্গে। নিজেদের অল্পকিছু জমি আছে, যেখান থেকে অল্পসল্প কৃষিজ পণ্যের চাহিদা মেটে। পরিবারের ভরণ পোষণের জন্য বাদবাকি সমস্ত অর্থ উপার্জনের দায়িত্ব মানিকের ওপরই।… Read more »

মৎস ধরিব খাইব সুখে…

/

কথায় বলে… মৎস ধরিব খাইব সুখে লেখাপড়া করিব মরিব দুঃখে! বিষয়টি স্রেফ কথার কথা হলেও এই ভরা বর্ষায় সড়ক ডুবে যাওয়া স্বচ্ছ জলে পড়ালেখা শিকেয় তুলে মাছ ধরাটাই শিশু সুমাইয়া, হুমায়ুন ও হৃদয়ের কাছে মহা আনন্দের উপলক্ষ। ছবিটি সম্প্রতি গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বাংগুরী গ্রাম তোলা। ফারদিন ফেরদৌস twitter.com/fardeenferdous facebook.com/fardeen.ferdous  

slide

আমার অসমাপ্ত আত্মজীবনী!

/

কেউ না কেউ তো ঠিকই সাপোর্ট করতে হয়! এইতো কদিন আগে অনেক বড় বড় লোকের কাছে ছোট হয়েছিলাম। হয়তো বড় কিছু পাইনি তবু যা পেয়েছি তা ই বা ছোট কিসের। অনেক মাধ্যমে লেখা পাঠাতাম কেউ ছাপতো না,অনেক সাংবাদিকের কাছে করুনার ছলে, ভিক্ষুকের মত অনুরোধ করতাম। কেউই সাড়া দিতো না। সবার পিছনেই তো মামা, খালুদের জোর… Read more »

আমার মহররম, ছেলেবেলার মহররম

/

মহররম মাসের চাঁদের জন্য কোন দিন অপেক্ষা করতাম না। তবে পাশের পাড়ায় ঢাক-ঢোল বাজানোর  শব্দে বোঝা যেত আজ মহররম মাস। রোজ বিকেলে ‘ভাঙ্গার পাড়’ এ ঢাক-ঢোল বাজার আয়োজন চলত। আকবপুর নয় অানা থেকে আমাদের পাড়ায় আসার রাস্তাটি প্রতি বছরই বর্ষায় ভেঙ্গে যেত। এজন্য ভাঙ্গা অংশটির নাম ছিল ‘ভাঙ্গার পাড়’। উজানের আঁখিরা নদী যখন অতি বৃষ্টিতে… Read more »

যখন আমি ভূত ছিলাম!

/

তখন আমার বয়স কতই বা হবে। বড়জোর আট-দশ। বাবা-মায়ের আট সন্তানের মধ্যে আমি দ্বিতীয়। অনেক সন্তান বলে মা আমাদের খুব একটা সময় দিতে পারতেন না। আমরা মাকে খুব জ্বালাতন করতাম। বিশেষ করে আমি ছিলাম সবচেয়ে দুষ্টু; বদের শিরোমণি। বেশী জ্বালাতন করলে মা মারতেন। আমি অবশ্য বেশী জ্বালাতন করার সুবাদে বেশী মার খেতাম। মায়ের হাতের মার… Read more »