লাল ফড়িং যেন রূপসী বাংলা!

/

  সবুজ ঘাসের ডগায় লাল ফড়িং! যেন বাংলাদেশের পতাকার মধ্যবর্তীনি। রুপসী বাংলার সত্যিকারের রূপ। ছবিটি গাজীপুরের বাংগুরী গ্রাম থেকে ২৬ জুন ২০১৭ তারিখে তোলা। ফারদিন ফেরদৌস সুখেরছায়া ১৩ জুলাই ২০১৭।

slide

প্রকৃতির প্রতি তো প্রতিবাদী হওয়া যায় না!

/

যে সম্পর্কে বন্ধুত্ব অবধারিত, নইলে ভীষণ বিপদ হয় আমাদের– প্রকৃতির সাথে শত্রুতা চলে না, তাকে কোনো অজুহাত দেয়াও যায় না। একটু পরে আসো বৃষ্টি, ঝড়টা না হয় নাইবা হলো- এসব কথা প্রলাপ হয়ে যায় শুধু। প্রকৃতির চেয়ে শক্তিশালী ঈশ্বর কি আছে কিছু?     ঝলমলে রোদ, গরমের দীর্ঘশ্বাসে যখন প্রাণ ওষ্ঠাগত, পথচারী তখন একটু বেশি… Read more »

মেঘ গুড়গুড় ভোরে

/

পৃথিবীর আরেক রাত শেষে ভোর এলো। বিদ্যুৎ চলে গেলো। খিড়কি খুলতেই ছটফটে বাতাসের তোড়, নাকে মুখে। ঠাণ্ডা, স্নিগ্ধ, ভীষণ শিরিশিরে। আর খুব খুব ফিকে আলোয় তাকাতেই, আকাশজুড়ে মেঘ। সাদাকালো উড়াল পাহাড় যেনো। বইছে ভীষণ। দ্রুত রঙ বদলে নীলাভ থেকে কুচকুচে কালো। এভাবে এই ঘুমন্ত শহরে, জানলার ধারে  বসে, এই আষাঢ়-ভোরে, ভূমিষ্ঠপ্রায় বৃষ্টির মুখ দেখা যায়। এসময়… Read more »

গ্রাম বাংলার চিরসবুজ কাঁচা ধানের মাঠ

/

বিগত প্রায় এক মাস পূর্বে সপরিবারে আমি ঢাকা-কমলাপুর স্টেশন থেকে বাড়ি (সনুড়া, কলমাকান্দা, নেত্রকোণা) যাওয়ার উদ্দেশ্যে হাওড় এক্সপ্রেসে চড়ি। ট্রেন ছাড়ে রাত ১২টা ৫ মিনিটে। ট্রেনে ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে ঠাকুরাকোণা স্টেশনে পৌঁছে যাই সকাল ৫টা ৩০ মিনিটে। তখন গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি পড়ছিল। স্টেশনে নেমেই সিএনজি অটোরিক্সায় চড়ে পাগলা বাজারে চলে যাই আধা ঘন্টার মধ্যে। রিক্সা থাকলেও আমার… Read more »

ঘুরে এলেম তিলোত্তমা হাতিয়া

/

প্রায় প্রতি ঈদের রাতেই বাসা পালিয়ে মায়ের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যাই বাংলার প্রকৃতি ইতিহাস ঐতিহ্য সংস্কৃতির কাছে মায়ার টানে। ঘুরে বেড়ানো আমার সব চেয়ে প্রিয় ভাললাগা। ছয় বছর আগেও হারিয়ে যাওয়া সুখ পাখি সুরঞ্জনাকে নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম ঢাকা ও তার আশে পাশের প্রকৃতি ইতিহাস আর সংস্কৃতির খোজে। এখনো বদলায়নি আমার সেই ভাললাগাটা। যদিও বদলে… Read more »

এক চিলতে বিশুদ্ধ প্রকৃতি

/

খুব কাছেই মহানগর। খুব কাছেই মানুষ আর যন্ত্রের কোলাহল। কিন্তু এইখানটায় কোলাহল ছিল শুধু পাখিদের, রাজত্ব ছিল বেপরোয়া বাতাসের। এর মধ্যেও ছিল মানুষের আনাগোনা। তবে তখনও মানুষ ও প্রকৃতি বৈরী হয়ে উঠেনি। স্থান: সালেহপুর, সাভার; ডিভাইস: প্যানাসনিক লুমিক্স

slide

রাত পোহালে পাখি বলে…

/

ভোরে উঠে জানলা খুলতেই পাখিদের হৈচৈ এই গাছে। ফাল্গুনে, চৈত্রে গাছটাতে সাদা সাদা ফুলে ভরে থাকে। কড়া ঘ্রাণ ছড়ায়। ছাতিম ফুলের ঘ্রাণের কাছাকাছি। তখন এখানে অনেক মৌমাছির ভিড় থাকে। বৈশাখের শেষ দিকে এই ফুল থেকে হলদে রঙের ফল হয়। দূর থেকে মনে হবে, ছোটো ছোটো হলুদ ফুলের থোকা। ফুলগুলো পেকে লাল হতে থাকে, আর পাখিদের… Read more »

তুমি হাতখানি যবে রাখো মোর হাতের প’রে!

/

মিষ্টিকুমড়া’র বাড়িয়ে দেয়া হৃদ্যতার হাতে করল্লা’র সকৃতজ্ঞ হস্ত! এমন হৃদয়ছোঁয়া দৃশ্য চোখের মনিকোঠায় আসামাত্রই প্রেমের কবি কাজী নজরুল ইসলাম সুরের সৌরভ ছড়িয়ে যানঃ তুমি হাতখানি যবে রাখো মোর হাতের প’রে, মোর কন্ঠ হ’তে সুরের গঙ্গা ঝরে।। তব কাজল আঁখির ঘন পল্লব তলে বিরহ মলিন ছায়া মোর যবে দোলে তব নীলাম্বরীর ছোঁয়া লাগে যেন সেদিন নীলাম্বরে।।… Read more »

আনন্দধারা বহিছে ভুবনে!

/

জীবন সে তো কচু পাতার পানি। অকাল ও ক্ষণস্থায়ী জীবনের সাথে কচু পাতার এই তুলনা হয়ত সুখকর বা আনন্দদায়ক নয়। কিন্তু সাতসকালে বৃষ্টিজল বিধৌত কচু পাতার সবুজ গালিচায় বসে এক সুন্দর ফড়িং যদি সুস্বাদু খাবারে তার সারারাত্রির উপবাসভঙ্গ করে, তবে তা দেখতে বড় মনোমুগ্ধকর দৃশ্যই বটে। বৃহৎ যৌগিক চোখ, দুই জোড়া শক্তিশালী ও স্বচ্ছ পাখা,… Read more »