ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

 

Election-bhaban-new-02-ed

কি অদ্ভুত কথা! রাজনৈতিক দল নাকি নিরপেক্ষ লোকের তালিকা দেবে! প্রত্যেকটি দলের লক্ষ নির্বাচনে জয় লাভ। সেটা যেভাবেই হোক না কেন। কাজেই প্রত্যেকেই নিজেদের পছন্দের লোককে তালিকাভুক্ত করবেন। আর যারা তালিকাভুক্ত হবেন তারাও নিশ্চয়ই তাদের হরিহর আত্মা হবেন। তাহলে আর নিরপেক্ষ হলেন কি করে?

আরও কথা আছে। বিবেক-বুদ্ধি সম্পন্ন বিবেচক মানুষ কি করে নিরপেক্ষ হবেন? প্রত্যেকেরই নিজস্ব ভাল লাগা, পছন্দ অপছন্দ থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তাহলে তারা নিরপেক্ষ হবেন কি করে?

আপনারা বরং বলতে পারেন যারা নিরপেক্ষ বিচারে সক্ষম তাদের তালিকা তৈরির কথা। তা কিন্তু বলছেন না। তাহলে কি আমরা ধরে নেব যে, নিরপেক্ষ লোক বলতে আপনারা আসলে কিছু বর্ণচোরা লোক খুঁজছেন। যারা এ পর্যন্ত সক্ষমতার সাথে নিজেদের পরিচয় লুকিয়ে রাখতে পেরেছেন। আর যারা নিজেদের আসল পরিচয় লুকিয়ে রাখেন তারাই কি ভাল লোক সে প্রশ্নটাও কিন্তু এসে যায়।

আজ যদি একত্রিশটি দল থেকে পাঁচজন করে নিরপেক্ষ (!) লোকের তালিকা দেয়া হয় তাহলে কি সেই (৩১ x ৫) ১৫৫ জন মানুষই প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে যাবেন না? যাদের মধ্যে নিশ্চিত ভাবেই সৎ ও যোগ্য কিছু লোক থাকবেন। এই প্রক্রিয়ায় একেবারেই অনাহুত সেই ভদ্র লোকদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করা হবে। যা একেবারেই কাম্য নয়।

আমাদের মত ছোট একটি দেশে কতজনই বা বিবেকবান যোগ্য মানুষ আছেন। সেখান থেকে যদি শতাধিক লোককে আবার প্রশ্নবিদ্ধ করে ফেলেন তাহলে সেটা কি ভাল হবে?

আমাদের সবার আগে এটা নির্ধারণ করা দরকার ইসি গঠনের জন্য, আমরা কি সৎ ও যোগ্য লোক চাই নাকি প্রশ্নবিদ্ধ নিরপেক্ষ লোক চাই?