ক্যাটেগরিঃ প্রবাস কথন

বেশ কিছুদিন পূর্বে সৌদি সরকার অবৈধ অধিবাসীদের জন্য আউট পাশের যে ব্যাবস্থা করেছিল তার মেয়াদ শেষ হয়েছে গত মাসেই। সেই সময়ে প্রাপ্ত আউট পাশে এখন অনেকে দেশে যাচ্ছেন নির্বিঘ্নে। কিন্তু এই আউট পাশের সুযোগ তেমন বেশী অবৈধ বাংলাদেশী নেয়নি। শুধুমাত্র যারা অনেকদিনের পুরানো এবং দেশে ফিরতে পারছিলেন না তারা এই সুযোগে দেশে ফিরে গেছেন।

২০০৪-২০০৫ সালে যারা সৌদি এসেছিলেন তাদের বেশির ভাগ বাংলাদেশী এখন অবৈধ হয়ে আছে। তাদের এই অবৈধ হওয়ার পেছনে প্রধান কারন হচ্ছে ট্রান্সফার বন্ধ থাকায়। ট্রান্সফার বন্ধ থাকায় অনেক নিজের স্পন্সরের কাছে না থেকে বাইরে কাজ করতে গিয়ে অবৈধ হয়েছে। দেখা গেছে সে যে স্পন্সরের কাছে এসেছিল সেখানে নামে মাত্র বেতন। তখন পাঁচ ছয়লাখ টাকা খরচ করে আসা একজন বাংলাদেশী অনায়াসে অন্যত্র কাজের খোঁজে চলে যায় এবং কাজ পেয়ে যায়। তখন সে আর স্পন্সরের কাছে ফিরে যায় না। অনেক সময় স্পন্সর’রা তাকে না পেয়ে মামলা করে দেয় তখন সহজাত ভাবেই সে অবৈধ হয়ে যায় ।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় সৌদি আরবে অবৈধ হয়ে কাজের সুযোগ আছে। সৌদি সরকার এসব অবৈধ অধিবাসীদের তেমন কোন সমস্যা না করলে, কাজের ক্ষেত্রে তেমন বাঁধা দেয়না। বর্তমানে রিয়াদের ইন্ড্রাস্টিয়াল এলাকাতে (সানাইয়া ১,২,এবং ৩ এ) কম করে হলেও এক লক্ষের অধিক অবৈধ অধিবাসি বিভিন্ন কারখানায় কর্মরত আছে। এদের অনেকেই বাংলাদেশী কন্ট্রাক্টারের মাধ্যমে কাজে নিয়োজিত। সেই কন্ট্রাক্টাররা মুলত ম্যান পাওয়ার ব্যাবসার সাথে জড়িত। রিয়াদের হারা’য় বর্তমানে অবৈধ অধিবাসীর সংখ্যা কম নয়। রিয়াদ ছাড়া সবচেয়ে বেশী অবৈধ অধিবাসীদের কাজের প্রধান স্থান হল জেদ্দা। মক্কা এবং মদিনায় ও বেশ কিছু সংখ্যক অবৈধ অধিবাসি আছে, তবে জেদ্দা এবং রিয়াদের তুলনায় এরা সীমিত।

নতুন আরবি বছরের মহরম মাসের দশ তারিখের পর সৌদি সরকার নাকি বেশীরভাগ অবৈধ অধিবাসীদের ব্যাপক হারে ধরপাকড় শুরু করবে বলে গত কাল আরবি এক পত্রিকায় লেখা হয়েছে। বর্তমানে প্রায় তিন লক্ষের অধিক অবৈধ বাংলাদেশী সৌদি আরবে আছে (এর বেশী ও হতে পারে ) যারা সৌদি সরকারের শেষ সুযোগ আউট পাশের সুযোগ না নিয়ে এখনও অবৈধ ভাবে আছে, যদি সৌদি সরকার নতুন বছরে ব্যাপক ধরপাকড় করে এসব প্রবাসিদের দেশে পাঠিয়ে দেয় তখন দেশের কি অবস্থা হবে ভেবে দেখেছেন। সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালযের উচিত অবিলম্বে সৌদি সরকারের সাথে কো-অপারেশনের মাধ্যমে এসব অবৈধ লোকদের বৈধ করার ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ হওয়া। এই মুহূর্তে সরকার যদি চুপ থাকে তাহলে এই অবৈধ অধিবাসীদের ভাগ্যে শেষ পর্যন্ত কি আছে তা বলা মুশকিল। অন্যদিকে দেশের বর্তমান ভঙ্গুর অর্থনীতিতে এত লোক দেশে ফিরে গেলে কিরূপ ভয়াবহ প্রভাব পড়বে। সরকারের ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষ এই ব্যাপারে আর নিশ্চুপ বসে না থেকে ত্বরিৎ কিছু করা দরকার বলে মনে করি। আশা করি সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় এই ব্যাপারে যা কিছু করার তা অতিবিলম্বে করবে ।


১২ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. সংকলক বলেছেনঃ

    আপনাকে ধন্যবাদ। পোস্টের ভেতরে ব্লগারের নাম, ফোন ও ইমেইল আমরা প্রকাশ করি না। আপনি মন্তব্যের ঘরে সেটা দিতে পারেন। কেউ যদি আগ্রহী হয় তবে সে আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারে। অথবা আপনি আপনার প্রোফাইলে এই তথ্যগুলো দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে বারবার আপনার ব্যক্তিগত তথ্য প্রতিটা পোস্টের সাথে দেয়ার প্রয়োজন হবে না। – ব্লগ টিম।

  2. প্রবাসী

    প্রবাসী বলেছেনঃ

    মুহাম্মদ শাহেদ জহীর ভাই, আপনার বিনীত অনুরোধের কারণটা একটু ব্যাখা করলে ভাল হতো। আর যে পচিশ লাখ (আরও বেশি হতে পারে) মানুষ (নাকি অন্য কিছু মনে করেন আপনারা??) যারা আমরা আছি তারা কী করব তা কেন বললেন না। যারা আসেনি তারা না হয় চা বিক্রি করে চলবে, (সৌদিতে আসার রাস্তা আমাদের সোনার ছেলেদের জন্য চিরতরে বন্ধ হচ্ছে মনে হয়), আমাদের রেমিট্জ্ন্সে এ দেশ যে সমৃদ্ধ হচ্ছে তাদের কী হবে?
    তর্ক না করে আমার মতে সৌদিতে যত অবৈধ লোক আছে তাদেরকে অনতিবিলম্বে দেশে ফেরত আনতে হবে যেমনটা করেছে ভারত (গত মাসে ইন্ডিয়া 50,000 অবৈধ লোককে তারা ফেরত নিয়েছে) এতে দেশের ভাবমূর্তি যেমন উজ্জল হবে তেমনি বৈধদেরা ও আত্ম সম্মান নিয়া কাজকরতে পারবে। দেশ হবে সমৃদ্ধ।
    আপনাদের সকলের অবগতির জন্য বলছি ভাল, নম্র-ভদ্র, শিক্ষিত, ট্যালেন্ট লোকদের জন্য বৈধ ভাবে টাকা কমানোর সর্গতুল্য দেশ হল সৌদি আরব। আর ধর্ষক, সন্ত্রাসী, ডাকাতদের জন্য এদেশ অতীব ভয়ংকর (ধরা খেলে শিরোচ্দ অনিবার্য)
    সকলকে ধন্যবাদ।

  3. বিজন বি শর্মা বলেছেনঃ

    প্রবাসী বলেছেন: “আর যে পচিশ লাখ (আরও বেশি হতে পারে) মানুষ (নাকি অন্য কিছু মনে করেন আপনারা??) যারা আমরা আছি তারা কী করব তা কেন বললেন না। ” প্রবাসী আরও বলেছেন: “আপনাদের সকলের অবগতির জন্য বলছি ভাল, নম্র-ভদ্র, শিক্ষিত, ট্যালেন্ট লোকদের জন্য বৈধ ভাবে টাকা কমানোর সর্গতুল্য দেশ হল সৌদি আরব।” তাহলে তো ভালোই হল । আপনি আজীবন আপনার স্বর্গেই থাকুন”।

  4. প্রবাসী

    প্রবাসী বলেছেনঃ

    বিজন বি শর্মা সাহেব, এখনি দেশে এসে বোঝার উপর শাকের আঁটি (আপনাদের চাকরির বাজারে প্রতিদ্বন্দ্বী) হতে চাইনা আর কি। কারণ আমরা দেশকে, দেশের মানুষকে ভালবসি আপনাদের চেয়ে হাজারগুণ বেশি।
    আজীবন থাকবো না, তবে দেশে এসে কমপক্ষে একশত জনকে কাজের সুযোগ করার মত সামর্থ হলেই মাযের বুকে ফিরে আসব। তবে আমাদের দেশের কতগুলি গোণ্ডা-পাণ্ডা (সোনার ছেলেদের) জন্য এদেশের মাটি যেন আমাদের জন্য নরক না হয়। কারণ ওই অমানুষগুলি শিরোচ্ছেদের মত ঘটনার পরেও ধর্ষনের মত অপরাধ করেই চলেছে। মানবজমিনের শিরোনাম: সৌদি আরবে ধর্ষণের দায়ে বাংলাদেশী আটকলিঙ্ক: http://www.mzamin.com/index.php?option=com_content&view=article&id=25181:2011-11-13-15-58-35&catid=48:2010-08-31-09-43-22&Itemid=82

  5. েশখ নজরুল ইসলাম বলেছেনঃ

    জনাব লেখক আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ সুন্দর লেখার জন্য-
    আচ্ছা ভাইয়া, আপনার কি মনে হয় সরকারের কারও সদিচ্ছ/ সময় আছে এসব বিষয় নিয়ে ভাবনার/কিছু করার?
    আমাদের লজ্জা/ কষ্ট হয়, এমন এক দেশের মানুষ আমরা যে দেশের ক্ষমতাসীনরা(যে দলেরই হোক) ‘শুধু নিজেদের স্বার্থের কথাই ভাবে——জনগন তাদের কাছে খেলনা——-

  6. ফারুক জামান বলেছেনঃ

    প্রবাসী ভাইয়া আপনি অতিব একটি গুরুত্ব পূর্ণ বিষয় তুলে ধরেছেন এজন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ। আশা করি সরকারের ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষের নজরে এই লেখাটা পড়বে এবং দ্রুত পদক্ষেপ নিবে।
    (সৌদিতে আসার রাস্তা আমাদের সোনার ছেলেদের জন্য চিরতরে বন্ধ হচ্ছে মনে হয়)
    আপনাদের সকলের অবগতির জন্য বলছি ভাল, নম্র-ভদ্র, শিক্ষিত, ট্যালেন্ট লোকদের জন্য বৈধ ভাবে টাকা কমানোর সর্গতুল্য দেশ হল সৌদি আরব। আর ধর্ষক, সন্ত্রাসী, ডাকাতদের জন্য এদেশ অতীব ভয়ংকর (ধরা খেলে শিরচ্ছেদ অনিবার্য)।
    (তবে আমাদের দেশের কতগুলি গোণ্ডা-পাণ্ডা (সোনার ছেলেদের) জন্য এদেশের মাটি যেন আমাদের জন্য নরক না হয়। কারণ ওই অমানুষগুলি শিরোচ্ছেদের মত ঘটনার পরেও ধর্ষনের মত অপরাধ করেই চলেছে।) এই কথাগুলা একদম ১০০% সত্য।
    ভালো থাকুন সুন্দর থাকুন।
    মোঃ ফারুক জামান
    আল রিয়াদ
    সৌদি আরব।

  7. প্রবাসী

    প্রবাসী বলেছেনঃ

    ফারুক জামান ভাই, আমরা যারা সৌদিতে আছি তারাই কেবল বুঝতে পারি যে আমরা এসেছি শ্রমের বিনিময়ে টাকা রুজগার করতে। যে টাকা দিয়ে আমাদের সরকার প্রধানরা রেমিটেন্স এর হিসাব করে, আর আমাদের পরিবারগুলি দেখে সুখের স্বপ্ন। আমরা পচিশ লাখ বাংলাদেশী এই দেশ হতে চলে গেলে কমকরে হলেও এক কুটি মানুষের জীবনে হাহাকার নেমে আসবে। তাই আমি, আপনি তথা পচিশ লাখ সৌদি বসবাসকারী প্রবাসীর কেউই চায় না অল্প কিছু ঊশৃংখলদের জন্য এক কুটি মানুষের জীবন সংকতময় হউক।
    আপনিও ভাল থাকুন, সুখে আর সুন্দর থাকুন। সময় ও সুযুগ থাকলে আপনার পাশের মানুষদের একটু বুঝাতে থাকুন যাতে আমরা যে উদ্দেশ্যে এসেছি সেটাই ভাবি, আর ভাবি আমাদের মাতৃতুল্য বাংলাদেশের কথা।
    আবার ও ধন্যবাদ।

  8. আরেফ এম আবদুল বলেছেনঃ

    বিজন বি শর্মা: আপনার মনোভাব ভাল দেখাছে না।
    “If I knew what you think, I would know what you are, for your thoughts make you what you are; by changing our thoughts, we can change our lives”

    প্রবাসী ভাই: আপনার চিন্তাভাবনাকে ওয়েলকাম।

    ১০

কিছু বলতে চান? লিখুন তবে ...