ক্যাটেগরিঃ প্রবাস কথন

 

বেশ কিছুদিন পূর্বে সৌদি সরকার অবৈধ অধিবাসীদের জন্য আউট পাশের যে ব্যাবস্থা করেছিল তার মেয়াদ শেষ হয়েছে গত মাসেই। সেই সময়ে প্রাপ্ত আউট পাশে এখন অনেকে দেশে যাচ্ছেন নির্বিঘ্নে। কিন্তু এই আউট পাশের সুযোগ তেমন বেশী অবৈধ বাংলাদেশী নেয়নি। শুধুমাত্র যারা অনেকদিনের পুরানো এবং দেশে ফিরতে পারছিলেন না তারা এই সুযোগে দেশে ফিরে গেছেন।

২০০৪-২০০৫ সালে যারা সৌদি এসেছিলেন তাদের বেশির ভাগ বাংলাদেশী এখন অবৈধ হয়ে আছে। তাদের এই অবৈধ হওয়ার পেছনে প্রধান কারন হচ্ছে ট্রান্সফার বন্ধ থাকায়। ট্রান্সফার বন্ধ থাকায় অনেক নিজের স্পন্সরের কাছে না থেকে বাইরে কাজ করতে গিয়ে অবৈধ হয়েছে। দেখা গেছে সে যে স্পন্সরের কাছে এসেছিল সেখানে নামে মাত্র বেতন। তখন পাঁচ ছয়লাখ টাকা খরচ করে আসা একজন বাংলাদেশী অনায়াসে অন্যত্র কাজের খোঁজে চলে যায় এবং কাজ পেয়ে যায়। তখন সে আর স্পন্সরের কাছে ফিরে যায় না। অনেক সময় স্পন্সর’রা তাকে না পেয়ে মামলা করে দেয় তখন সহজাত ভাবেই সে অবৈধ হয়ে যায় ।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় সৌদি আরবে অবৈধ হয়ে কাজের সুযোগ আছে। সৌদি সরকার এসব অবৈধ অধিবাসীদের তেমন কোন সমস্যা না করলে, কাজের ক্ষেত্রে তেমন বাঁধা দেয়না। বর্তমানে রিয়াদের ইন্ড্রাস্টিয়াল এলাকাতে (সানাইয়া ১,২,এবং ৩ এ) কম করে হলেও এক লক্ষের অধিক অবৈধ অধিবাসি বিভিন্ন কারখানায় কর্মরত আছে। এদের অনেকেই বাংলাদেশী কন্ট্রাক্টারের মাধ্যমে কাজে নিয়োজিত। সেই কন্ট্রাক্টাররা মুলত ম্যান পাওয়ার ব্যাবসার সাথে জড়িত। রিয়াদের হারা’য় বর্তমানে অবৈধ অধিবাসীর সংখ্যা কম নয়। রিয়াদ ছাড়া সবচেয়ে বেশী অবৈধ অধিবাসীদের কাজের প্রধান স্থান হল জেদ্দা। মক্কা এবং মদিনায় ও বেশ কিছু সংখ্যক অবৈধ অধিবাসি আছে, তবে জেদ্দা এবং রিয়াদের তুলনায় এরা সীমিত।

নতুন আরবি বছরের মহরম মাসের দশ তারিখের পর সৌদি সরকার নাকি বেশীরভাগ অবৈধ অধিবাসীদের ব্যাপক হারে ধরপাকড় শুরু করবে বলে গত কাল আরবি এক পত্রিকায় লেখা হয়েছে। বর্তমানে প্রায় তিন লক্ষের অধিক অবৈধ বাংলাদেশী সৌদি আরবে আছে (এর বেশী ও হতে পারে ) যারা সৌদি সরকারের শেষ সুযোগ আউট পাশের সুযোগ না নিয়ে এখনও অবৈধ ভাবে আছে, যদি সৌদি সরকার নতুন বছরে ব্যাপক ধরপাকড় করে এসব প্রবাসিদের দেশে পাঠিয়ে দেয় তখন দেশের কি অবস্থা হবে ভেবে দেখেছেন। সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালযের উচিত অবিলম্বে সৌদি সরকারের সাথে কো-অপারেশনের মাধ্যমে এসব অবৈধ লোকদের বৈধ করার ব্যাপারে চুক্তিবদ্ধ হওয়া। এই মুহূর্তে সরকার যদি চুপ থাকে তাহলে এই অবৈধ অধিবাসীদের ভাগ্যে শেষ পর্যন্ত কি আছে তা বলা মুশকিল। অন্যদিকে দেশের বর্তমান ভঙ্গুর অর্থনীতিতে এত লোক দেশে ফিরে গেলে কিরূপ ভয়াবহ প্রভাব পড়বে। সরকারের ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষ এই ব্যাপারে আর নিশ্চুপ বসে না থেকে ত্বরিৎ কিছু করা দরকার বলে মনে করি। আশা করি সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় এই ব্যাপারে যা কিছু করার তা অতিবিলম্বে করবে ।