ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

 

বাংলা আমাদের মাতৃভাষা। কিন্তু আমরা বাংলা ভাষায় কতটুকু দক্ষ? কতটা শুদ্ধভাবে বাংলা লিখতে বা পড়তে পারি? বাংলায় কাউকে কোন চিঠি বা দরখাস্ত লিখতে বললে আমরা অনেকেই পারি না। অথচ আমাদের পঠিত মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং সহ উচ্চশিক্ষার অন্যান্য সকল বই ইংরেজিতে বা অন্যকোন ভাষায় লেখা।

আজকাল আমরা অভিভাবকরা আমাদের সন্তানদের বাংলায় কথা বলা না শিখিয়ে ইংরেজিতে কথা বলতে শিখাই এবং শুরু থেকেই ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে ভর্তি করানো হয় বাচ্চাদেরকে। তারা বাংলায় ঠিকমত কথাটাও বলতে পারে না। আমরা ইংরেজি ভাষা অবশ্যই শিখতে চাই; কিন্তু আগে বাংলা ভাষায় দক্ষ হয়ে তারপরে।

BABAKO

পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশ যেমন- জাপান, চীন, কোরিয়া প্রভৃতি তাদের উচ্চশিক্ষার বইসমূহ তাদের নিজস্ব ভাষায় রচনা করেছে। কিন্তু আমরা কেন পারি না?

ইদানিং আমাদের বাসাবাড়িতে বাচ্চারা হিন্দি কার্টুন দেখে ছোটবেলা থেকেই হিন্দি শিখছে। কিন্তু বাংলা ভাষা পারে না। অথচ মীনা’র কার্টুন এবং সিসিমপুর বেশ ভালই জনপ্রিয় এবং শিক্ষণীয় ছিল। কিন্তু সেগুলো পর্যাপ্ত না হওয়ায় আমরা বাচ্চাদেরকে খাওয়ানোর সময় অথবা বাচ্চারা যেন ডিস্টার্ব না করে সেজন্য বাচ্চাদেরকে সময় না দিয়ে এসব হিন্দি কার্টুন চ্যানেল দিয়ে বসিয়ে রাখি।

আমরা শুদ্ধভাবে বাংলা লিখতে বা বলতে পারি না। আমরা অনেকেই হয়তো অ, আ, ক, খ… সবগুলো বর্ণমালা বলতে পারবো না। কয়েকবছর আগে টিভিতে এসব নিয়ে একটা প্রতিবেদন দেখেছিলাম। খুব খারাপ লেগেছিল যে, আমরা বাংলার প্রতি এত উদাসীন। অথচ এই ভাষার রয়েছে এক সুমহান আত্মত্যাগের ইতিহাস, যা পৃথিবীতে আর কোন দেশে ঘটে নি। তাহলে কি আমরা আত্মত্যাগী ভাষা শহীদদের তথা আমাদের মাতৃভাষা বাংলার যথাযথ মর্যাদা দিতে পারছি না?