ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা, ব্লগ সংকলন: সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড

 

রাখাল বালকের বাঘ এসেছে বলে মিথ্যে চিৎকার এবং অবশেষে সত্যি সত্যি বাঘ আসার গল্প আমরা কম-বেশি সবাই জানি। মেহেরুন রুনি ও সাগর সারোয়ার এর নির্মম হত্যাকাণ্ডের পর ৪৮ ঘন্টা সময় বেঁধে দেয়া, জামায়াত শিবির এর সংশ্লিষ্টতা তত্ত্ব, বেডরুম তত্ত্ব এবং সর্বশেষ উচ্চ আদালতে মাননীয় বিচারপতিদের রায়। সবই আমরা দেখেছি, এটা নিয়ে এখন আর মন্তব্য করারও উপায় নেই। আমাদের বিচক্ষণ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শেষ পর্যন্ত কোথায় এর সমাপ্তি টানেন সেটাই এখন দেখার বিষয়।

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সাধারণ নাগরিকদের আকুতি যে কোন কিছুতেই প্রভাব ফেলতে পারেনি সেটা খুব প্রকট ভাবে ফুটে উঠলো আরো একটি হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে। পার্থক্য এতটুকুই যে এতদিনের বিষয়গুলো আমাদের অভ্যন্তরীন পরিমণ্ডলে ছিলো এখন সেটা আর্ন্তজাতিক হয়ে উঠলো।

উল্লেখ্য যে গত ৬ই মার্চ রাতে সৌদি দূতাবাসের পদস্থ কর্মকর্তা খুন হন বাংলাদেশের সবচেয়ে অভিজাত এবং সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদত্ত কূটনৈতিক এলাকায়।

আমরা শংকিত এই কারণে যে এই হত্যাকাণ্ডের পরিপ্রেক্ষিতে বাঘ আসার গল্পটা না আবার সত্যে পরিণত হয়। এই ব্লগেই দেখলাম জনৈক এহেছান লেলিন তাত্ত্বিক ভাবে জামায়াতে ইসলাম ও বিএনপির রাজনীতির সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পেয়েছেন !! মূর্খতা আর কাকে বলে !! এই অকাল কুস্মান্ডগুলোর জন্যই আজ আমাদের এই অবস্থা।

সৌদি প্রবাসী অনেকেই গতকাল ফোন করে বিষয়টির সত্যতার ব্যাপারে খোজ-খবর করেছেন। তারা খুবই আতংকের মধ্যে আছেন যে বিষয়টি সৌদি সরকার কিভাবে নেয় এবং আমাদের কূটনৈতিক তৎপরতা ব্যাপারটিকে কিভাবে সামাল দেয়। উক্ত ঘটনাটির কারণে হয়তো সাগর-রুনির হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি চাপা পড়ে যাবে, আর আমরাও ভুলে যাবো। এমনি হয় । এমনি হয়ে আসছে। তবে একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আমরা সত্যিই খুব উৎকন্ঠার মধ্যে আছি।

আমাদের মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী যদি বিগত হত্যাকাণ্ড এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বাগাড়ম্বর না করে নিজেদের দায়িত্বটুকু পালন করতেন তবে আজ আমাদের হয়তো এমন বিপদের সন্মুখীন হতে হতো না। আমরা আশা করবো সরকার উক্ত হত্যাকাণ্ডের সঠিক তদন্ত করে প্রকৃত খুনির শাস্তি নিশ্চিত করবেন, কারন বিষয়টির সাথে আমাদের দেশের সম্মান জড়িত। উল্টা-পাল্টা কথা বলে হয়তো পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তোলা যাবে, কাজের কাজ হবে না কিছুই।

তবে একান্তই আমার নিজের ধারণা হচ্ছে হয়তো বা হত্যাকাণ্ডটি আর্ন্তজাতিক রাজনীতির বাইরে নয়। অথবা হয়তো কেবলই একটি স্বাভাবিক হত্যাকাণ্ড। আমরা যেন বিষটি গভীরভাবে ভেবে দেখি।

সবার জন্য শুভকামনা।