ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

বিডিব্লগ লেখক ভাইরাস জ্বরে আক্রান্ত

আমার এটা কোন গতানুগতিক পোষ্ট বা লেখা নয়। অনেকটা কৌতুহল ও হতাশা থেকেই এ লেখা। গত বেশ কিছুদিন যাবত দেখা যাচ্ছে যে এ ব্লগে মাত্র ৩-৪ লাইন বা ৭-১০ লাইল লেখা দিয়ে পোষ্ট আসছে অহরহ।

আর যেসব পোষ্ট আসছে তার আসলে কোন সারগর্ভও নেই। নেই কোন বিশ্লেষন বা যুক্তিনির্ভর তথ্য। কোন তথ্য সোর্সও নেই। সাধারন ভাবে চায়ের দোকান বা বন্ধু-বান্দবদের আড্ডায় বা ঘরের খাবার টেবিলে বসে আমরা যেসব গুরুত্বহীন ও কল্পিত বা অনুমান নির্ভর কথা বলে থাকি, তাই এখানে এখন আসছে পোষ্ট হিসাবে। এটা কি সুস্থ্য ব্লগের পরিচয় বহন করছে ?

ব্লগে কি তাহলে যে কেউ লিখতে পারে ? মানে, মনে যা আসল তা অমনি বমি করে দিল আর আমরা কতগুলো পাঠক তা বোকার মত গিলে ফেলছি । আর না গিলেই বা উপায় কি ? ঐ গুলি দিয়েইতো ব্লগ কর্তৃপক্ষ প্রথম পৃষ্ঠার স্বাস্থ্যের পরিপূর্নতা সাধন করে রেখেছেন। যদি এ ব্লগে ঢুকি বাধ্য হয়েতো পড়তে হবেই !

আজকাল আবার শুরু হয়েছে পথ সাংবাদিকতা। দেখলাম আর লিখলাম। যাকে আবার প্রতিষ্ঠা দেয়া হচ্ছে সিটিজেন জার্নালিজম বলে! এটাকেই কি বলে সিটিজেন জার্নালিজম ? বাহ ! এত সহজ সাংবাদিকতা ? (এখানে বলে রাখি পড়ালেখা, অভিজ্ঞতা ও সার্টিফিকেট ছাড়া যদি পত্রিকার সম্পাদক বা সাহসী ও সত্য ন্যায়ের প্রতিক !!! হওয়া যায়, তাহলে…….)। আর ব্লগে যদি তা চর্চা করা হয় তাহলে বিডিনিউজ২৪.কম সহ বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকা বা অন্যান্য দৈনিক পত্রিকার দরকার আছে কি ? ব্লগ গুলিই হতে পারে এখন পত্রিকার বিকল্প (?) এভাবে কি বিডিনিউজ২৪.কম ব্লগ এটাকে ব্লগ বানাচ্ছেন না অনলাইন পত্রিকা বানাতে চাচ্ছেন বুঝে আসছেনা। আমার আবার মাথা মোটা তো। তাই বুদ্ধি-শুদ্ধি হয়ত এখানে অনেক ব্লগারের চেয়ে অতি নগন্ন। তাই ভুল-ত্রুটি মার্জনা করবেন বলে আশা করছি।

তবে ইদানিং কালের পোষ্ট প্রকাশের ধরন দেখে মনে হচ্ছে, বিডিব্লগ লেখক দেউলিয়াপনায় ভুগছেন। নয়ত এভাবে চায়ের দোকানের কথাগুলোকে তারা ব্লগে আদর করে স্থান দিবেন কেন ?

এই লেখা গুলো দেখলেই তা প্রমাণ পাওয়া যায়। যেমন : জয় বাংলা জয় শামসু-গোবিন্দ; দেশে আসলে কী হচ্ছে?

আমাদের এক নব্য সাংবাদিক ভাই আমাদের সিটিজেন জার্নালিজমের ধারনা ও শিক্ষা দিচ্ছেন। এর জন্য তিনি একই দিনে ৪-৫ লাইনের ৪-৫টি পোষ্ট দিতেও ভুল করেন না। আর তার সাথে তা বিডিব্লগও কোন বিচার বিশ্লেষন না করেই প্রকাশ করতেও কোন রকম কৃপনতা প্রকাশ করেন না। এই দুর্মূল্যের বাজারে অন্তত এটা খুব সহজেই লেখক পেয়ে গেলেন। আর আমর মত গো-মুর্খরা চিৎকার করে বলি আমার পোষ্ট গেল কৈ ? বোকার মত এটা কেন বুঝিনা এটাতো ব্লগ না সাংবাদিক প্রশিক্ষন সেন্টার (!) তারপর প্রমোশন হবে বড় বড় পত্রিকায় মানে দি নিউইয়র্ক টাইমস, ধান্ধাবাজ ইকোনোমিষ্ট ইত্যাদিতে । কি মজা ! কি মজা ! ফ্রি প্রশিক্ষন কেন্দ্র !!!

দেখুন তার আলামত। গত ২৩-২৪ আগষ্ট রাত্র ১১.০৮ হতে সকাল ১০.২৮ পর্যন্ত ৪টি পোষ্ট যা ২৪ আগষ্ট প্রথম পৃষ্ঠা জুড়ে ছিল। ২২ আগষ্ট সন্ধ্যা ৬.১৬ হতে সন্ধ্যা ৬.২৫ = ২টি পোষ্ট। এভাবে দেখলে দেখতে পাবেন। আর পোষ্ট গুলো শুধু নিউজ। কোন বিশ্নেষন বা গবেষনা নাই। বিস্তারিত দেখুন। তাহলে এটা কি অনলাইন সাংবাদিক প্রশিক্ষন সাইট ? না পত্রিকা ?

যাই হোক এসব দেখে এখন মনে হয়, বিডিব্লগ সম্ভবত লেখক দেউলিয়ায় ভুগছে। তা না হলে এরক সস্তা লেখা কোন বিচার-বিশ্লেষন ছাড়াই গনহারে প্রকাশিত হবে কেন ?

পাদটিকা: ব্লগটীম দয়া করে ব্লগের মানের প্রতি নজর দিন। ব্লগটিকে সত্যিকার সৃজনশীল, বস্তনিষ্ঠ, তথ্যনির্ভর ও বিশ্লেষনধর্মী লেখায় ভরপুর করে সাজিয়ে তুলতে চেষ্টা করুন। এতেই সাফল্য, বস্তা-পচা হাজার হাজার লেখার চেয়ে সুন্দর, পরিছন্ন, তথ্যনির্ভর একটি লেখা প্রকাশ অনেক ভাল বলে আমি মনে করি। ধন্যবাদ।