ক্যাটেগরিঃ সেলুলয়েড

 

মুশফিক ;বাংলাদেশ অধিনায়ক,ক্রিকেট দল

ব্যাপারটিকে কি বলবো_ এটিকেট মর্যাদাবোধ না দেশপ্রেমের সঙ্কট!সমপ্রতি একটা খবর পড়লাম অনলাইন ডেইলিতে। ২০ কোটি রুপির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন হূতিক রোশন! একটি মুঠোফোন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনে কাজ করার জন্য এ প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু ব্র্যান্ডটির কার্যক্রমের ওপর বিশ্বাস নেই হূতিকের। নিজের ভাবমূর্তি নিয়ে দারুণ সচেতন তিনি। আর সেটা ধরে রাখতে এত বড় অঙ্কের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতেও আপত্তি নেই তাঁর।

প্রথমে ১৫ কোটির কথা বললেও প্রতিষ্ঠানটি পরে অর্থের পরিমাণটা বাড়িয়ে দেয়। তবু পাওয়া গেল না হূতিককে। মনে হচ্ছে, আমিরের পথেই আছেন হূতিক।এ খবর মিড-ডের।

রিতিক রোশন: অতুলনীয় এটিকেট

আবার একটা অদ্ভুত একটা বিজ্ঞাপন দেখছি টিভি চ্যানেলগুলোতে। মাই ওয়ান কিংবা মাই টিভি মার্কা কোন টিভি কোম্পানির বিজ্ঞাপন। তাতে মুখটি দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক মুশফিকের। তিনি বলছেন-বাংলাদেশের গর্ব ক্রিকেট; তেমনি তার বিজ্ঞাপিত টিভিটিও বাংলাদেশের গর্ব।

এমনটি মুশফিক ব্যাক্তিগতভাবে মনে করতেই পারেন। তাতে আপত্তির কিছু দেখি না। যিনি বাসাতে যে ব্র্যান্ড ব্যবহার করেন সেটিকে সেরা বা সবচেয়ে ভাল দাবি করতেই পারেন। কিন্তু বাংলাদেশের অধিনায়ক হিসেবে এমনটি বলতে পারেন না। এটা খুবই আপত্তিকর। কোন টিভির পক্ষেই তিনি টাকা পয়সার বিনিময়ে এমন বিজ্ঞাপন করতে পারেন না।

মুম্বাইর তারকা অভিনেতার মর্যাদাবোধ দেখুন। আর আমাদের জাতীয় দলের অধিনায়কের কাণ্ডজ্ঞান দেখুন। এটা কি মর্যাদাবোধ এটিকেট বা দেশের প্রতি দায়িত্ববোধের অভাব!!

এটিকেট শেখার বিষয়। একটা দেশের জাতীয় অধিনায়ক বয়েসে যতই ইম্যাচিয়ুর হোক না কেন ক্রিকেট জগতে কি কান্ডজ্ঞানঅলা কেউ নেই। এটা আমার দু:খবোধের প্রতিক্রিয়া। ব্যাপারটি নিয়ে তাই ব্লগে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ না করে পারলাম না। রিতিক রোশনদের কাছে থেকে আমরা কি শিক্ষা নিতে পারি না!!!