ক্যাটেগরিঃ আন্তর্জাতিক

আধুনিক বিশ্বে থাইল্যান্ড আমোদ-প্রমোদ আর ভ্রমনের জন্য খুবই জনপ্রিয় । বিশেষ করে শীতপ্রধান দেশের ভ্রমনপিপাসুদের তালিকা দীর্ঘ । কারন এখানে তাপমাএা ক্রান্তীয় ও আর্দ্র প্রায় সারাবছর জুড়ে । আর এজন্য থাইল্যান্ড বিশেষত ব্যাংকক জমজমাট শহর । কিছুদিন আগে সুইডিশ একটা মৌলিক টিভি নাটক দেখে থাইল্যান্ড সম্পর্কে ধারনা কিছুটা পোক্ত হয়েছে। নাটকটির নাম “ফেব্রুয়ারী তে ৩০ ডিগ্রি তাপমাএা ” । [লিংক] নাটকটিতে দেখানো হয়েছে কিছু অসুখী সুইডিশ সুখের খোঁজে থাইল্যান্ড এ পাড়ি জমায় । মূলত একজন মা ও তার দুই সন্তান, এক বয়স্ক দম্পতি এবং এক ব্যাচেলর কে নিয়ে কাহিনি । এই নাটকটিতে এক অংশে দেখানো হয়েছে কিভাবে থাই নারীরা বিদেশীদের আকৃষ্ট করে এবং সর্বস্বান্ত করতে কতটা পটু । অনেক থাই নারীরা দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত। তাই পর্যটকরা আনাগোনা করে থাইল্যান্ড এ । আমি দুবছর হলো সুইডেন এ আছি । কিছুদিন আগে এক সুইডিশের সাথে কথা হলো থাই নারীদের নিয়ে । সে বলল তার শশুড় স্বস্ত্রীক হয়েও কিভাবে এক থাই নারী দ্বারা প্রণয়ে জড়িয়ে পড়েছিল। বেচারা শেষপর্যন্ত ঐ নারীকে বিয়ে করেছিল । কিছু থাই নারী উন্নত জীবনের আশায় পর্যটকদের বিয়ে করে দেশ ছাড়ে । কারন অনেক মেয়েরা গরীব পরিবার থেকে এসে দেহ ব্যবসা করে এবং পরিবারের উপার্জনের উৎস হিসেবে কাজ করে । এমন ঘটনা অহরহ ঘটছে । বিপরীত ঘটনাও ঘটে । কিছু ইউরোপিয়ান ও আমেরিকানরা শেষ বয়সে অর্থনৈতিক মুক্তি ও জীবন সঙ্গী হিসেবে থাই নারীদের বিয়ে করে ।

সম্প্রতি বিডি নিউজের একটা খবর পড়ে লেখাটা লিখলাম। লিংক
অনেক অপরাধ ঘটে থাকে পর্যটন এলাকাগুলোতে। তাই বলছি যারা থাইল্যান্ড এ ভ্রমন করার পরিকল্পনা করছেন অথবা ভ্রমন করবেন তাদের একটু সাবধান হওয়া ভালো । তা না হলে সর্বস্বান্ত হওয়া ছাড়াও জীবন নিয়ে টানাটানি হতে পারে।