ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

গ্রাহকসেবা দেবার জন্য প্রতিটি মোবাইল অপারেটরেরই রয়েছে গ্রাহক সেবা নম্বর বা হেলপ্ লাইন। সম্ভবত এমন কোন মোবাইল ব্যবহারকারী পাওয়া যাবেনা যিনি অন্তত একবারও হেলপ্ লাইনে ফোন করেননি। মোবাইল ব্যবহারকারীনগণ মূলত সার্ভিস সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানার জন্যই হেলপ লাইনে ফোন করে থাকেন। কিন্তু দু:খের বিষয়, একমাত্র রাষ্ট্রায়াত্ব মোবাইল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানটি ছাড়া প্রতিটি মোবাইল অপারেটরই গ্রাহক সেবা দেবার বিপরীতে উচ্চহারে কলচার্জ আদায় করে আসছে। শুধু তাই নয়, গ্রাহকসেবা কেন্দ্রে ফোন করে তাৎক্ষণিক সংযোগ পাওয়া গেলেও কাস্টমার কেয়ার অফিসারের সাথে সংযোগ পেতে প্রায়ই দীর্ঘসময় অপোয় থাকতে হয় এবং অপেক্ষাকালীন সময়ে সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর বিভিন্ন বিজ্ঞাপন শোনার জন্যও একই হারে বিল দিতে হয়। প্রতিটি অপারেটরেরই পিক-অফপিক, এফএন্ডএফ ইত্যাদি সুবিধা থাকলেও কাস্টমার কেয়ারে ফোন করার জন্য সার্বক্ষণিক ফ্লাট রেটে উঁচুহারে বিল চার্জ করা হয়। এমনকি আন্ত:সংযোগে সর্বনিম্ন কলরেট প্রদানকারী ১টি অপারেটর তাদের কাস্টমার কেয়ারে কল করার জন্য প্রতি মিনিটে ১.৩৫ টাকা আদায় করে থাকে যদিও আন্ত:সংযোগে তাদের কলরেট মাত্র ৩৫ পয়সা/মিনিট। এ থেকে স্পষ্টই প্রতীয়মান হয় যে, তারা গ্রাহক সেবার নামে অন্যায়ভাবে ফায়দা লুটতে ব্যস্ত আছে এবং গ্রাহকদের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। অথচ নীতিমালা অনুযায়ী মোবাইল কোম্পানীগুলোর বিনামূল্যে গ্রাহকসেবা দেবার কথা। তাই বিনামূল্যে গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়, বিটিআরসিসহ সংশ্লিষ্ট সকল মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।