ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় খুব ছোট ছিলাম। তেমন কিছু বুঝি নাই। যুদ্ধ ফেরত চাচাকে দেখেছি বুক চিতিয়ে চলাফেরা করতে। সবাই তাকে সম্মান করত। তখন মনে হতো বড় হয়ে অামিও চাচার মত যোদ্ধা হবো। যা হোক, বড় হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশুনা শেষ করে বুঝতে শিখলাম মুিক্তযোদ্ধারা দেশের জন্য প্রাণ দিলেও দেশ এখন ভাগে ভাগে বিভক্ত। এদেশে তারেক মাসুদ জন্মায়।সাগর-রুনার মত মানুষদের জন্ম হবে। িকন্তু স্ব্বাভাবিক মৃত্যুর নিশ্চয়তা নেই। দেশের টানে জামার্নী থেকে দেশে ফিরে এলো। খুনিদের হাতে খুন হলো সবচেয়ে ভাল আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির (!) সময়ে। যারা মানুষের সুখ-দুঃখের কথা লিখে তদের যদি এই অবস্থা হয় তাহলে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে? তাদের কী অবস্থা হবে? নেতা-নেত্রীদের ছেলে মেয়ে লন্ডন-আমেরিকা-কানাডা-অস্টেলিয়া সেটেল্ড। সাধারণ জনগণতো আর তা পারবে না। তারা রেমিটেন্স পাঠানোর জন্য বিদেশ যাবে। অার এই টাকার ভাগ-বাটোয়ারার জন্য ক্ষমতার লড়াই হবে। সে লড়াই অামরা দেখব প্রজন্ম প্রজন্মান্তরে।