ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

ধর্ম জ্ঞান আমার খুব কম। এ কারণে এ সংক্রান্ত তর্কে আমি যায় না। আমি মনে করি যে বিষয়ে আমার জ্ঞান নেই সেই বিষয়ে কথা বলা উচিৎ নয়। এখানেও আমি ধর্ম নিয়ে বলব না। তাই বলে আমি ধর্মহীন নই। যা কিছু ভাল, মানবতার কল্যাণকর তা গ্রহন করা বা মেনে নেয়া যেমন আমার কাছে ধর্ম, তেমনি খারাপ বা অকল্যাণকর বর্জন করা বা মেনে না নেয়াও আমার কাছে আমার ধর্ম। ভাল বা মন্দ ব্যক্তি ও অবস্থান ভেদে ভিন্ন হতে পারে এবং হয়। তবে তা আমার কাছে সব সময় একই থাকে। কারণ আমি আমার জ্ঞানবুদ্ধিতেই ভাল মন্দ বিচার করি। জামাতের সব কাজ আমার কাছে খারাপ নয় একটি ছাড়া আর তা হল আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধীতা করা। তাছাড়া তাদের ব্যাংক-বীমা, স্কুল-কলেজ বা যে কোন ব্যবসা আমার কাছে খারাপ নয় এ জন্যে যে এসকল ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড এদেশের জিডিপি তে হিসাব হচ্ছে এবং জনসংখ্যার বিরাট একটি অংশের কর্মসংস্থান হচ্ছে যা যে কোন ভাবে অপরাধ কমিয়ে দিচ্ছে। যে দেশে বেকার সমস্যা বেশি সে দেশে অপরাধ প্রবণতাও বেশি।

গতকালের (০৫/১১/২০১২) যে জালাও পোড়াও তা এদেশের জন্য নতুন কিছু নয় । জামাত করে,আঃলীগও করে এবং বিএনপিও করে। সুতরাং এ ক্ষেত্রে জামাতের সাথে অন্য দলের কোন পার্থক্য আমি দেখি না। একজন রাজাকার যা করে একজন মুক্তিযোদ্ধাও যদি তাই করেন তবে রাজাকার আর মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে তফাৎ কোথায়? আর তফাৎটা করতে না পারার কারণেই জামাত দিন দিন তাদের শক্তি বৃদ্ধি করে চলেছে। ব্যর্থতা আঃলীগ ও বিএনপি উভয়ের। নৈতিকভাবে বড় দু দলই জামাতের কাছে হার মেনেছে।

জামাতে ইসলামীর সাথে ইসলামের সম্পর্ক শুধু গঠন তন্ত্রেই সীমাবদ্ধ। কারণ ক্ষমতার লোভে তারা আঃলীগ ও বিএনপি উভয়ের সাথেই জোট বেধেছে। এই জোট বাধার সাথে ইসলামের সর্ম্পক হয়ত নেই তবে রাষ্ট্র ক্ষমতার সর্ম্পকটা পরিস্কার। জামাতের সহায়তায় বড় দু দলই রাষ্ট্র ক্ষমতার অমৃত স্বাদ গ্রহন করেছে যা তারা কেউ ভুলতে পারে না । আর এ কারণেই এদেশে জামাতের রাজনীতি নিষিদ্ধ হয় না।

নিষিদ্ধ হলেই কি শেষ হয়ে যাবে ? আমরা কি সভ্য সমাজে পরিণত হব ? হরতাল, জ্বালাও পোড়াও শেষ হয়ে যাবে ? আমার তা মনে হয় না। খারাপ জিনিস নিষিদ্ধ করেও সরকার তা চিরতরে শেষ করতে পারে না। যেমন প্রকাশ্যে ধুমপান নিষিদ্ধ হলেও তা প্রকাশেই চলছে এবং চলবে যতক্ষন না আমরা নিজেরা উপলব্ধি করতে পারছি ধুমপান খারাপ। ঠিক তেমনী আমরা নিজেরা যতক্ষন না বুঝতে পারছি জামাত খারাপ ততক্ষন পর্ন্তার জামাতের রাজনীতি চলতেই থাকবে হয়ত নতুন বোতলে বা মোড়কে।

আজকে সর্বক্ষেত্রে যে বিশৃংখলা তার জন্যে কি দায়ী জামাত? আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর দুর্নীতির জন্য কি জামাত দায়ী? চাকুরী বাজারে দলীয়করন-বাণিজ্যিকরণে কি জামাত দায়ী? দেশের ফেন্সিডিল ইয়াবা ব্যবসার সাথে জামাতের কোন নেতা কি কোনভাবে জড়িত? দেশের অর্থ বিদেশের ব্যাংকে রেখেছে এমন কেউ আছে কি তাদের? শেয়ার বাজারের কোটি কোটি টাকা লুটের সাথে জামাতের কেউ আছে কি? আমার জানামতে নেই। আর না থাকাটাই স্বাভাবিক । সরকারের অংশ হিসেবে ক্ষমতায় থাকলেও একক ভাবে ক্ষমতায় আসতে দেয়নি এদেশের জনগন। তাই ঠিক বোঝা যাচ্ছে না তারাও আজকের আঃলীগ বিএনপির মত হত কি না। তবে ক্ষমতা এমনই এক জিনিস যা মানুষকে মুহূর্তের মধ্যে বদলে দিতে পারে।

আচ্ছা যদি কোন ভাবে জামাত একক ক্ষমতায় আসত এবং উল্লেখিত সকল দুর্নীতির বিরুদ্ধে থেকে তাদের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী রাষ্ট্র পরিচালনা করত তা হলে আমাদের কি হত?! আমাদের বলতে আমরা যারা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি হিসেবে নিজেদের দাবি করি তাদেরকে বোঝাতে চাচ্ছি। ভাবতেই গা শিউরে উঠছে। লজ্জায় মাথা হেট হয়ে যাচ্ছে। এবং মনে মনে মহান মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। সাবধান৥! এমন কোন পরিবেশ তাদের জন্যে গড়ে দেবেন না যার জন্যে সমগ্র জাতির মুখে জন্ম জন্মান্তরের কলঙ্ক লেগে যায়।

আচ্ছা যদি জামাতের রাজনীতি নিষিদ্ধ হয়েই যায় তবে কি –
১. এদেশে হরতাল জ্বালাও পোড়াও বন্ধ হয়ে যাবে?
২. শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাস বন্ধ হয়ে যাবে?
৩. চাকুরি ক্ষেত্রে দলীয়করণ বাণিজ্যিকরন বন্ধ হয়ে যাবে?
৪. মেয়র লোকমানের মত হত্যা গুম বন্ধ হয়ে যাবে?
৫. ঘুষ দুর্নীতি বন্ধ হয়ে যাবে?
৬. দেশের সার্বিক অপরাধ কমে যাবে?
৭. টেনডার বাজি দখল বাজি কমে যাবে?
৮. মাদক সম্রাটগন ব্যবসা গুটিয়ে জনসেবা শুরু করবে?
৯. মাথাপিছু আয় বেড়ে দ্বিগুন বা তিনগুন হয়ে যাবে?
১০. মিথ্যা মামলা হামলা বন্ধ হয়ে যাবে?
১১. ঠান্ডা মাথায় অন্যের মাথায় গ্রেনেড মারা বন্ধ হয়ে যাবে?
১২. রগ কাটা বন্ধ হয়ে যাবে?
১৩. মদ জুয়া ইভ টিজিং বন্ধ হয়ে যাবে?
১৪. সীমান্তে মানুষ হত্যা বন্ধ হয়ে যাবে?
১৫. দেশে কোন দরিদ্র লোক থাকবে না?
১৬. দেশে সংখ্যা লগু নির্যাতন বন্ধ হয়ে যাবে?
১৭. ইত্যাদি ইত্যাদি !!!

এর কিছুই হবে না। সবই চলতে থাকবে যদি না আমরা নিজেরা নিজেদেরকে জামাতিদের থেকে উন্নত মন মানসিকতায় উঠতে না পারি। আমি ভাল হলে আমার পিছে অনেকেই আসবে এমনকি জামাতও। যদিও ভাল লোকের সংখ্যা ও সংজ্ঞায় পার্থক্য জনে জনে। তবে হ্যা। জাতি কলঙ্কমুক্ত হবে। নির্যাতিত ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবার মনে শান্তি পাবেন।
এদেশের মুসলিমরা জামাতের হাত ধরে ইসলাম গ্রহণ করেনি কিন্তু বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে স্বাধীন হয়েছে। সুতরাং এদের উপর সব সময় জন্মগতভাবেই বঙ্গবন্ধুর অধিকার রয়েছে, জামাতের নয়। তাই সে অধিকার রক্ষার দায়িত্ব বঙ্গবন্ধুর উত্তরসূরীদেরকেই নিতে হবে । দায়িত্বে অবহেলার কারণে যদি অধিকার জামাতের হাতে চলে যায় সে দায়ভারও তাদেরকেই নিতে হবে।
আর নয় । ইতোমধ্যেই আমি আমার সীমা লঙ্ঘন করে ফেলেছি মনে হচ্ছে। এবং কেউ কেউ পাকিস্তান-ইন্ডিয়াতেও পাঠিয়ে দিয়েছেন হয়ত। আমি ভাই এদেশের একজন অতি নগন্য মানুষ। খেয়ে না খেয়ে এদেশেই পড়ে আছি। পেটের জ্বালায় জ্বলে মরলেও দেশের বাইরে যায়নি (সুযোগ পাইনি তাই! হাঃ হাঃ )। তাই বিদেশের মাটিতে নিজের পরিচয় ভুলে ভারতীয় বাংগালী বলে পরিচয় দেওয়ার প্রয়োজনও পড়েনি।

বিঃদ্রঃ ১. খারাপ জিনিস সকলেই বর্জন করে যদি তা বুঝতে পারে
২. জামাত= জামায়াত ইসলামী বাংলাদেশ