ক্যাটেগরিঃ নাগরিক আলাপ

যে বিবাহিত মহিলা স্বামী থাকা সত্বেও পর পুরুষের সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে যান স্বভাবতই তিনি চাইবেন না তার স্বামী এটা জানুক,
স্বামীকে নিজ থেকে ত্যাগ না করে হাতে রেখেই এইসব মহিলারা অনৈতিক সম্পর্ক চালিয়ে যান আর ভুলের শুরুটা এভাবেই করেন যার জন্য পরবর্তীতে অনেক বড় মাশুল দিতে হয়,

অবাক হয়ে লক্ষ করলাম আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্যা তারানা হালিম আজকে একটি মতামত-বিশ্লেষণ উপসম্পাদকীয়তে এর পক্ষেই সাফাই গেয়েছেন,তিনি বলেছেন……

“যদি তর্কের খাতিরে ধরে নিই যে, ওই শিক্ষক অন্য কোনও সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন, তাই বলে তাকে নিপীড়ন করার অধিকার তো তার স্বামীর নেই। তিনি স্ত্রীকে ত্যাগ করতে পারতেন। এটা ছিল তার আইনি অধিকার”

বাহ্‌ চমৎকার,অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে দিনের পর দিন স্বামীর সাথে দূরত্ব সৃষ্টি করে সংসারে অশান্তি বাড়িয়েই যাবেন তবুও পর পুরুষকে বিছানায় সঙ্গ দেয়ার আগে স্বামীর কাছ থেকে ত্বালাক আদায় করে নিবেন না,অপেক্ষায় থাকবেন কখন স্বামী সবকিছু জানতে পেরে অতিষ্ট হয়ে নিজ থেকে ত্বালাক দেয়,

এভাবে সমস্যা জিইয়ে না রেখে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পরা ঐ মহিলাটির ই উচিত হবে স্বামীর সাথে সম্পর্ক ত্যাগ করার যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা,এভাবেই অস্বস্তিকর পরিস্থিতি এমনকি পত্রিকার শিরোনাম হওয়া থেকে এড়িয়ে যাওয়া যেতে পারে।

কৃতজ্ঞতাঃ বিডিনিউজ২৪ ডট কম