ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
দয়া করে সোনালী ব্যাংকের মধ্যম সারীর ঐ কর্মকর্তা যারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চার হাজার কোটি টাকার লুটপাটের কাহিনী দেশবাসীর সামনে মেলে ধরছেন তাদেরকে দেশপ্রেমিকের মর্যাদা দিয়ে পুরস্কৃত করুন,দেশবাসীর সাথে এই দুইজন বীরকে পরিচয় করিয়ে দিন,আর দূর্নীতির বিরুদ্ধে আপনার অবস্থানের যে দাবী দীর্ঘ দিন ধরে করে আসছেন,সেটি প্রমাণ করুন।

একজন সৎ লোকের কাজের সঠিক মূল্যায়ন হলে আরও দশজন এগিয়ে আসবেন এজাতীয় দূর্নীতি প্রতিরোধে,কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য যারা যথেষ্ঠ ঝুঁকি নিয়ে দেশবাসীর এই উপকার টি করেছেন তাদের কে ঢাকার বাইরে বদলী করে দেয়া হয়েছে,নি:সন্দেহে এটি প্রশাসনে একটি ভুল বার্তা পৌছে দিবে,

সর্বোপরি সৈয়দ আবুল হোসেনের মত লোক,যাকে দেশের জনগন দুর্নীতিবাজ মনে করে বলে আপনি নিজেও বিবিসির অনুষ্ঠানে স্বীকার করেছেন,তাকে যখন “দেশপ্রেমিক” বলেন তখন হলমার্কের তানভির এর মতন লোকেরা আপনার দেখানো পথ অনুসরণ করে সরকারী ব্যংকের টাকা লুটপাটের উৎসবে ঝাঁপিয়ে পরে আর আবুল মাল মুহিতের মতন মন্ত্রীরা চার হাজার কোটি টাকার লুটপাটের ঘটনাকে আমলে না নেয়ার সাহস দেখায়,

“পরীক্ষিত দুর্নীতিবাজ আর তাদের আশ্রয়দাতাদের রাজনৈতিকভাবে বর্জন করাই হোক আজকের অঙ্গিকার”