ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

এদেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে আর কাউকে ছিনিমিনি খেলতে দেয়া হবেনা

হাসিনার এই কথার মাজেজা দেশকে যদি “বাকশালী” করনের দিকে নিয়ে যায় তবে “জিয়া স্বাধীনতার ঘোষক” বলাটা ফরজ হয়ে যায়।

জাতির পিতা,মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ,স্বাধীনতার ঘোষক………..এইসব ধারনার আবেদন যখন গণমানুষের পরিবর্তে রাজনৈতিক দল কেন্দ্রিক হয়ে যায় আর সেটা যদি রাষ্ট্র ক্ষমতা কুক্ষিগত করার অশুভ বাসনার হাতিয়ার হিসাবে ব্যাবহ্যত হয় তখন সেটি আমজনতাকে একত্রিত করার বদলে দ্বিধাবিভক্ত করে দেয়,দুঃখজনক হলেও সত্য গত কয়েক বছর যাবত এই দেশে এই রোগটি থেকে থেকে প্রকট আকার ধারণ করছে।

এ থেকে আশু পরিত্রাণের উপায়……

দেশটা কারো বাবার বা স্বামীর রেখে যাওয়া জমিদারী সম্পত্তি………এ রকম ধারণা মন থেকে ঝেঁটিয়ে দূর করে দেশটির মলিকানা ষোল কোটি মানুষের এটি মেনে নেয়া ।