ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

বাংলাদেশের সকল প্রেমিকাদের জন্য অশনি সংকেত ! প্রেমিক বন্ধুরা ক্ষিপ্ত হয়েছেন। তারা সকল প্রেমিকাদের উপর বোমা হামলার পরিকল্পনা নিয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে শক্তিশালী এক বোমার বিস্ফোরণে আয়সা আক্তার (২৫) নামে এক প্রেমিকা গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে আশংকাজনক অবস্থায় পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সহকারী প্রোগামার হিসেবে কর্মরত।

আহত আয়শা আক্তারের অবস্থা ও ঘটনা শুনে আগারগাঁও এলাকার রিকসাওয়ালা, চাঁ বিক্রেতাসহ প্রত্যদর্শী অনেকেই মজা করে বলছেন, দুনিয়ার প্রেমিকারা সাবধান। প্রেমিকরা প্তি।

এ ঘটনায় জুবায়ের আহমেদ নামে তার প্রেমিককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। শুধু তাই নয়, যিনি বোমাটি তৈরী ও সরবরাহ করেছেন, তাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তার নাম নুরুল ইসলাম। নারী ঘাতক প্রেমিক জুবায়ের তার প্রেমিকাকে হত্যার জন্য ২০ হাজার টাকায় বোমাটি ক্রয় করেছিলেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকারও করেছে।

দুনিয়ার প্রেমিক-প্রেমিকাদের মধ্যে ভাল বাসার নামে যা চলছে, তা হচ্ছে কেউ ভাল বাসে সারা জীবন চোখে দেখার জন্য, আবার কেউ ভাল বাসে, ছুয়ে দেখার জন্য, আবার কেউ ভাল বাসে সরাজীবন সঙ্গী হয়ে থাকার জন্য আবার কেউ ভাল বাসে শুধুই ভোগ করার জন্য। ভাল বাসার নামে যারা প্রেমিকাকে শক্তিশালী বোমা হামলা চালিয়ে হত্যা করতে চায়, তারা প্রকৃত প্রেমিক নয়, তারা নারী খাদক। তারা শুধু ভোগ করার জন্যই প্রেম ভাল বাসার অভিনয় করে। দুনিয়ার সকল প্রেমিকাদের ঘাতক কথিত প্রেমিক নামকে নরখাদকদের সাবধান থাকার অনুরোধ করছি।

বার্তা সংস্থা ফোকাস বাংলা সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) সামনে দিয়ে পায়ে হেঁটে আয়শা তার কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন। এ সময় হঠাৎ তার হাতে থাকা একটি ব্যাগ বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এসময় আয়শা আক্তার পিকেএসএফ ভবনের সামনে থেকে দৌঁড়ে মালেক নামে এক চাঁ বিক্রেতার সামনে যান এবং বাঁচান বাঁচান বলে চিৎকার করতে থাকে। বিস্ফোরণে আয়েশা সিদ্দিকার কোমরের পেছনের অংশে বড় ধরনের আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে তের সৃস্টি হয়। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে পঙ্গু হাসপাতালে নিয়ে যান।

শেরে বাংলানগর থানার ওসি জাকির হোসেন মোল্লাহ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে আগারগাঁওয়ের ইসলামী ফাউন্ডেশন কার্যালয়ে সামনে আয়শার সঙ্গে তার সহকর্মী জুবায়েরের দেখা হয়। এসময় জুবায়ের তাকে একটি প্যাকেট দিয়ে তা তার অফিসে পৌঁছে দিতে বলেন। আর ওই প্যাকেটটি তার ব্যাগে নিয়ে আশার সময় বিস্ফোরণে তিনি গুরুতর আহত হন।

তেজগাঁও জোনে পুলিশের উপ কমিশনার ইমাম হোসেন ফোকাস বাংলাকে জানিয়েছেন, আহত আয়েশার কাছ থেকে তথ্য পেয়ে গ্রেমিক জুবায়েরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত জুবায়ের প্রার্থমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, আয়েশার সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু সম্প্রতি তাদের মধ্যে বিরোধের সৃস্টি হয়। ফলে আয়েশাকে শিা দেওয়ার জন্য সকালে প্যাকেটে ভরে ওই বোমাটি আয়শাকে জুবায়ের দেয়। আর বিস্ফোরিত বোমাটি নুরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির কাছ থেকে ২০ হাজার টাকায় কিনেছে বলে পুলিশকে জানায়। পরে কাজীপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে নুরুল ইসলামকেও পুলিশ গ্রেফতার করে। গোয়েন্দা পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিটের সহকারী কমিশনার সানোয়ার হোসেন জানান, বিস্ফোরিত বোমাটি পাইপ জাতীয় বোমা। ঘটনাস্থল থেকে মোবাইল সেটের যন্ত্রাংশ, কাগজ ও একটি পোড়া পাইপের অংশ পাওয়া গেছে। আর আয়শার হাতব্যাগটি ছিন্নভিন্ন হয়ে পড়ে ছিল।###