ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

আমি তখন ক্লাস সিক্সে পড়ি। আমাদের স্কুলটি ছিল গ্রামে। তখন আমাদেরকে স্যারেরা ক্লাসে মুখস্ত পড়া নিতেন। আমরাও মুখস্ত করে আসতাম। আমাদের স্কুলে ২ জন শিক্ষক ছিলেন যারা মেয়েদেরকে পড়া জিজ্ঞাসা করতেন বেশি। শুধু জিজ্ঞাসা নয় বরং তাদের কাছে গিয়ে পড়া বলতে হত। মাঝে মধ্যে হাত ধরে টেনে কাছে নিয়ে পড়া জিজ্ঞাসা করতেন। আবার পড়া না পারলেও মেয়েদেরকে বেত দিয়ে না পিটিয়ে হাত দিয়ে মারতেন। আমাদের মনে তখন আক্ষেপ স্যার এমন করে মেয়েদেরকে কাছে টানেন আর আমরা কিছু বললেই দোষ। অনেকে বিশেষ করে যারা দুস্ট ছিল তারা বলত আমিও ভবিষ্যতে শিক্ষক হব(এর বিশেষ আকর্ষন হিসেবে ছিল শিক্ষকের আদর্শ!)।

আমি এসএসসি পাশ করেছি ২০০৪ সালে। এরপরও নানা কারনে বিদ্যালয়ে যেতে হয়েছে। তখন প্রায়ই শুনেছি ছাত্রীদের সাথে শিক্ষকদের অশালীন আচরনের কথা। আজ আমি খুব ভালভাবেই অনুভব করতে পারি মেয়েদেরকে কি ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। মেয়েদের বুক ফাটে তো মুখ ফোটেনা। তাই অবলীলায় সহ্য করে যায় মানুষরূপী ওই পশুদের নির্যাতন। দরিদ্রের অনেক টাকা পয়সা নেই কিন্তু আছে আত্মসম্মানবোধ, আছে মান সম্মান হারানোর ভয়। কিন্তু আজ যখন শুনি দেশের শীর্ষস্থানীয় ভিকারুন্নিসার স্কুলের কোন মেয়ে শিক্ষক কতৃক ধর্ষিত হয় তখন বিবেক আর কাজ করেনা। শুধু ভিকারুন্নিসা নয় দেশের অধিকাংশ বিদ্যালয়েই এমন ঘটনা অহরহ ঘটছে। কিন্তু মান সম্মান হারানোর ভয়ে অনেক শিক্ষার্থী এমনকি পরিবার পর্যন্ত ঘটনা প্রকাশ করতে চান না। এর সূযোগ নিয়ে অনেক নরপিশাচ শিক্ষার্থীদেরকে ব্লাঙ্কমেইলও করে থাকেন । আমার জানামতে এমন ঘটনার সংখ্যা অনেক। শিক্ষক সম্প্রদায় যারা মানুষ গড়ার কারিগর তারা যদি এমন কাজ করে তাহলে আমরা জাতি হিসেবে দাঁড়ানোর মত অবস্থান আমাদের থাকবেনা এটা নিশ্চিত।

কিন্তু কেন এমন ঘটনা ঘটে? কারন শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে দলীয় লোক, ঘুষ খেয়ে নিয়োগ প্রদান, আত্মস্বার্থ হাসিল করার জন্য নিয়োগ প্রদান করা হয়। কমিটির নিয়োগদানের ক্ষেত্রে দলীয় নিয়োগ প্রদান করা হয়। কমছে জ্ঞানের কদর, তাই শিক্ষকতার মত মহান পেশায় ভালো শিক্ষার্থীরা আসছেনা। বিশ্বের অন্যান্য দেশে যেখানে সবচেয়ে ভাল ফলাফল অর্জনকারী শিক্ষার্থীরা শিক্ষক হিসেবে মহান এই পেশায় যোগদান করে আমাদের দেশে এর অবস্থা ঠিক বিপরীত। এই যদি হয় আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার হালচাল তাহলে দেশের অবস্থা যে কি তা সহজেই অনুমেয়।

আসুন আমরা শুধু পরিমল, বিপুলদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি নয় বরং এর সাথে মেধাবিদের শিক্ষাব্যবস্থার প্রতি আকর্ষন করুন করে শিক্ষা ব্যাবস্থা , নিয়োগ ক্ষেত্রে দলীয় নিয়োগ রহিত করার দাবি জানাই। নইলে হয়ত কোন্ দিন হয়ত এর শিকার হবে আমার বোন, আপনার মেয়ে, আপনার স্ত্রী কিংবা খুব কাছের কোন মানুষটি। শিক্ষকের মহান পেশাটি মহান মানুষদের হাতেই ন্যস্ত করা উচিত। সকল দলীয় নিয়োগ বন্ধ করা হোক। নিশ্চিত হোক আগামীর মান সম্মত শিক্ষা……।