ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

সংসদে প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী,

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রাজধানীর যানজট নিরসনে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে আরো ৪৫০টি বিআরটিসি বাস চালু করা হবে। তিনি গত বুধবার সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের বেগম ফরিদুন্নাহার লাইলীর এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, এ বাসগুলোর মধ্যে ৩শটি দ্বিতল, ১শটি একতলা এবং ৫০টি আর্টিকুলেটেড বাস রয়েছে। এ বাসগুলো ঢাকা শহরের বিভিন্ন রুটে চলাচল করবে।

তিনি বলেন, বিআরটিসি রাজধানীতে যানজট নিরসনে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে চীন থেকে আমদানি করা ২৭৫টি বাস রাজধানীর ৬টি রুটে চলাচল করছে। মিরপুর-আজিমপুর রুটে শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থেও যানজট নিরসনে ১৪টি স্কুল বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছে। ঢাকা শহরের সরকারি-আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত-আধা স্বায়ত্তশাসিত, বিশ্ববিদ্যালয়-কলেজের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের পরিবহনে ১২২টি বাস বিভিন্ন রুটে চলাচল করছে। তিনি বলেন, এছাড়া কোরিয়া থেকে সদ্য আমদানি করা ২৫৫টি নতুন বাসের মধ্যে ৮০টি বাস ঢাকায় পৌঁছেছে। শিগগিরই শহরের বিভিন্ন রুটে এসব পরিচালনা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, এসব পদক্ষেপ ও কর্মপরিকল্পনার বাইরে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় বোর্ড (ডিটিসিবি) বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে যানজট নিরসনে ২০ বছর মেয়াদি কৌশলগত যানবাহন পরিকল্পনা নীতিমালা প্রণয়ন করেছে। এর আওতায় বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অংশ হিসাবে উত্তরা থেকে আজিমপুর রুটে বাস রুট ফ্রান্সসাইস পদ্ধতিতে চলাচলরত বাস সার্ভিসে প্রথমবারের মতো আইসি কার্ড টিকেটিং সিস্টেম চালু করা হয়েছে। ঢাকা শহরের অন্যান্য রুটে এই পদ্ধতি প্রবর্তনের বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এছাড়া যানজট নিরসনে নগরীত ৫টি ওভারপাস ফ্লাইওভার নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সেতু বিভাগ থেকে পিপিপি পদ্ধতিতে ২৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

***
ফিচার ছবি: ব্লগার নির্জীব এর যানজট ও জনজীবন… বি আর টি সি’র সিএনজি বাস নামছে পোস্ট থেকে সংগৃহিত