ক্যাটেগরিঃ সাম্প্রতিক

বিপ্লব-হারুন জাতের ক্যাডার না হওয়াই কি কারন? কোন কারন দর্শানো ছাড়াই ২৮তমের মত ২৯তম বিসিএসের গেজেটেও নজিরবিহীনভাবে বাদ দেয়া হলো ২৪২ জন মেধাবীকে –

২৯তম বিসিএস-এ পিএসসি’র ১ হাজার ৭২২ জনকে বিভিন্ন ক্যাডার সার্ভিসে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করলেও নিয়োগ পেল ১৪৮০ জন। বাদ দেওয়া হলো ২৪২ জন মেধাবীকে।

উল্লেখ্য পিএসসির ইতিহাসে অন্যতম ফেয়ার ২৮তম বিসিএসেও পুলিশের প্রতিবেদন ভালো থাকার পরেও এনএসআইয়ের রিপোর্টের বায়বীয় আপত্তি তুলে বাদ দেওয়া হয় ৬৪ জন মেধাবীকে। (উল্লেখ্য সরকারী চাকরিতে পুলিশ প্রতিবেদনের বিধান থাকলেও এনএসআইয়ের প্রতিবেদনের কোন নিয়ম নেই। আওয়ামী লীগ সরকারই কেবল নিয়ম বহির্ভূতভাবে এনএসআইকে দিয়ে ভেরিফিকেশন করাচ্ছেন)। এক্ষেত্রে চলছে ব্যাপক লেনদেন। যারাই এটি করতে বা বুঝতে ব্যর্থ হচ্ছেন তারাই নিয়োগ থেকে বাদ পড়ছেন।
সূত্র: New Recruit

আর বাদ পড়া ২৪২ জনের মধ্যে পরিমল মাত্র ১ জন। তাও ভিকারুননিসার ঘটনার কারনে অনেক চাপ ও মামলা হওয়ায় তার নামটি শুরুতে থাকলেও আপাতত তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।
বিস্তারিত
Click this link…

২৯তম বিসিএসে ১৪৮০ জন নিয়োগ পেলেন : সুপারিশের চেয়ে ২৪২ কম নিয়োগ

বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের (বিপিএসসি) ২৯তম বিসিএসে ১ হাজার ৭২২ জনকে নিয়োগে চূড়ান্ত সুপারিশ করা হয়েছে। তবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সুপারিশের চেয়ে ২৪২ জনকে কম নিয়োগ দিয়েছে। মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নিয়োগ না পাওয়া অনেকের ক্ষেত্রে রাজনৈতিক বিবেচনা এবং বাকিদের ক্ষেত্রে মন্ত্রণালয় পুলিশ ভ্যারিফিকেশন ও মেডিকেল রিপোর্ট না পাওয়ায় নিয়োগ দেয়া হয়নি। নিয়োগ না পাওয়াদের মধ্যে ছাত্রী ধর্ষণকারী ভিকারুননিসার শিক্ষক পরিমল জয়ধরও আছেন।

গত ১০ জুলাই জনপ্রশান মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মো. জাকির হোসেনের স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ২৯তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারের ১ হাজার ৪৮০ জনকে নিয়োগ দেয় হয়। নিয়োগপ্রাপ্তদের আগামী ১ আগস্ট ক্যাডার নিয়ন্ত্রণকারী মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিত বা পদায়িত কার্যালয়ে যোগদানের জন্য জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে। সর্বাধিক নিয়োগ পেয়েছেন সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে। এ ক্যাডারে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ৬৫৩ জনকে।

নিয়োগ পাওয়া কর্মকর্তাদের মধ্যে বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ১৭৭ জন, নিরীক্ষা ও হিসাব ক্যাডারে ২ জন, আনসার ক্যাডারে ১২ জন, শুল্ক ও আবগারি ক্যাডারে ৬৪ জন, সমবায় ক্যাডারে ৬ জন, খাদ্য ক্যাডারে ১ জন, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ১৩ জন, পরিবার পরিকল্পনা ক্যাডারে ৪ জন, তথ্য ক্যাডারে ৫ জন, ডাক ক্যাডারে ৩ জন, পুলিশ ক্যাডারে ৩৩ জন, রেলওয়ে পরিবহন ও বাণিজ্যিক ৩ জন, কর ক্যাডারে ২৫ জন, বাণিজ্য ক্যাডারে ২ জন, ইকনোমিক ক্যাডারে ৩২ জন, কৃষি ক্যাডারে ২০৪ জন, মত্স্য ক্যাডারে ১১ জন, খাদ্য কারিগরি ক্যাডারে ৩ জন, স্বাস্থ্য ক্যাডারে ১৯৭ জন, তথ্য প্রকৌশল ক্যাডারে ৫ জন, সড়ক ও জনপথ ক্যাডারে ১৮ জন, রেলওয়ে প্রকৌশল ক্যাডারে ৬ জন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী ১ জন, সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে ৬৫৩ জন রয়েছেন।
পরিমল জয়ধরসহ ২৪২ জন নিয়োগ পায়নি : ছাত্রী ধর্ষণের দায়ে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের শিক্ষক পরিমল জয়ধরকে নিয়োগ দেয়নি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বোরবার মন্ত্রণালয়ে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, নৈতিক অবক্ষয়ের কারণে পরিমল জয়ধরকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। পুলিশ ভ্যারিফিকেশন ও মন্ত্রণালয়ের গোপন তদন্তে নিয়োগ না পাওয়ার ক্ষেত্রে ভিন্ন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতার গন্ধ পাওয়ার তাদের নিয়োগ হয়নি। এ সম্পর্কে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষের বক্তব্য জানার চেষ্টা করা হয়েছে। সচিব ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ২৯তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। পিএসসির ১ হাজার ৭২২ জনকে বিভিন্ন ক্যাডার সার্ভিসে নিয়োগের জন্য সুপারিশের প্রেক্ষিতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ নিয়োগ দেয়। মৌখিক পরীক্ষায় ৫ হাজার ৬২ প্রার্থী চূড়ান্তভাবে কৃতকার্য হয়েছিল। ২৯তম বিসিএস পরীক্ষায় আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ২৩ হাজার ৯৪৯ জন। প্রিলিমিনারি টেস্ট ও লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর ৭ হাজার ২১৭ প্রার্থীকে মৌখিক পরীক্ষায় ডাকা হয়। গত বছরের ১৭ আগস্ট থেকে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত মৌখিক পরীক্ষায় ৬ হাজার ৫২৩ জন প্রার্থী অংশ নেয়। ২০০৯ সালের ১৪ আগস্ট ২৯তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি টেস্ট (প্রাথমিক বাছাই পরীক্ষা) অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

সূত্র:

বি.দ্র. পোস্টটি সোনার বাংলাদেশ ও বর্ণমালাতে আমার ব্লগে প্রকাশিত