ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

 

কিছুদিন আগে আমার মাকে নিয়ে গিয়েছিলাম নিউ মার্কেট-এ। রোদে পুড়ে কেনাকটা শেষ করে ঢুকলাম গলা ভেজাতে এক খাবার দোকানে। তিন কিশোরী গল্প করছে। ২৫ মিনিট ওদের গল্প শুনলাম।
কন্যা ১ – নুপুর বেচারি খুব বিপদে পরেছে, ওর ফেসবুক অ্যালবাম থেকে ওর ছবি ছুরি করে কারা জানি নকল আইডি বানিয়েছে।
কন্যা ২-আমি ও তো ওই প্রব্লেম ফেস করেছি। নাবিল এর সাথে ব্রেক-আপ হবার পর ও আমার সাথে একই অকাজ করেছিল।
কন্যা ৩- তোরা না এমন খেত মারকা কাজ কাম করিস। দেখিস না আমি ক্লোজ ছাড়া বাকি সবার কাছ থেকে অ্যালবাম হাইড করে রাখি।
…………(কথোপকথন চলছে)
আমার মা নাদান মহিলা উনি তো আর এত কিছু বুঝেন না তাই জানতে চাইলেন জিনিস টা কী?

সত্যি তো জিনিস টা কী আসলে? কি ভয়ানক তার ক্ষমতা, চোখের সামনের মানুষগুলোকে ও পলকে হাওয়াই মিঠাই বানিয়ে দেয়। ২৫ মিনিট কেটে যায় ভুলে যায় ওরা একে অপরের সামনে, হাত বাড়ালেই ছুঁতে পারে একে অন্যকে; ফেসবুক-এর বায়বীয় বন্ধুত্বের দেওয়াল করাঘাত করার দরকার নেই।

যখন দূরে আছি তার কথা ভিন্ন পাশে বসে থাকা মানুষটির মাঝে ফেসবুক এর দেওয়াল না হয় আমরা নাই বা তুললাম।